মহিলাদের নিরাপত্তায় সরকারি বাসে মোতায়েন মার্শালের সংখ্যা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল দিল্লি সরকার। রাজধানীকে মহিলাদের জন্য আরও বেশি নিরাপদ করে তুলতেই এই সিদ্ধান্ত বলে সোমবার জানান মুখ্যমন্ত্রী  অরবিন্দ কেজরীবাল। তিনি জানান, এই মুহূর্তে রাজধানীর সরকারি বাসগুলিতে ৩ হাজার ৪০০ মার্শাল মোতায়েন রয়েছেন। তা বাড়িয়ে ১৩ হাজার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তাঁর সরকার। মঙ্গলবার থেকে সমস্ত বাসে তাঁরা মোতায়েন থাকবেন।

সদ্য নিযুক্ত অতিরিক্ত মার্শালদের নিয়ে এ দিন দিল্লির ত্যাগরাজ স্টেডিয়ামে বিশেষ অনুষ্ঠানের আয়োজন হয়েছিল। সেখানে কেজরীবাল বলেন, ‘‘বিশ্বাস করে আপনাদের হাতে মহিলাদের নিরাপত্তার দায়িত্ব তুলে দিচ্ছি, যাতে নিশ্চিন্তে বাসে উঠতে পারেন তাঁরা এবং বাড়ির মতোই নিরাপদ বোধ করেন। দিল্লিকে মহিলাদের জন্য নিরাপদ করে তোলাই আমাদের লক্ষ্য। তার জন্য এখনও পর্যন্ত আমরা যে পদক্ষেপ করেছি, পৃথিবীর আর কোনও শহরে মন ব্যবস্থা নেই।’’

এর আগে, রাখির দিন দিল্লিতে মহিলাদের জন্য বিনামূল্যে বাসযাত্রার ঘোষণা করেছিল দিল্লির আম আদমি পার্টি (আপ) সরকার। মঙ্গলবার থেকে সেই প্রকল্প শুরু হচ্ছে। তার আগে অতিরিক্ত মার্শাল নিয়োগ করে ফের চমক দিলেন দিলেন কেজরীবাল।

আরও পড়ুন: মোদীর বিমানে আপত্তি, আন্তর্জাতিক মঞ্চে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে নালিশ ভারতের​

 মার্শাল নিয়োগের পাশাপাশি এ দিন ১০৪টি নতুন বাসেরও উদ্বোধন করেন কেজরীবাল। মহিলাদের নিরাপত্তার জন্য তাতে উন্নত প্রযুক্তির বন্দোবস্ত রয়েছে। রয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরা, প্যানিক বাটন। এমনকি বিশেষ ভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের বাসে উঠতে সুবিধার জন্য রয়েছে হাইড্রোলিক লিফ্টসও। আগামী দিনে তাঁদের জন্য ১০০০ অপেক্ষাকৃত নীচু বাস চালুর পরিকল্পনাও রয়েছে বলে জানিয়েছেন কেজরীওয়াল।

আরও পড়ুন: ‘যত খুশি সন্তানের জন্ম দিন’, বদরুদ্দিনের মন্তব্য ঘিরে বিতর্ক​

আগামী বছর দিল্লিতে বিধানসভা নির্বাচন। তার আগে বিনামূল্যে মহিলাদের মেট্রো সফরেরও প্রস্তাব দিয়েছে কেজরীবাল সরকার। তবে তা নিয়ে সমালোচনায় সরব হয়েছে প্রায় সমস্ত বিরোধী দলই।  এতে সরকারের ঘাড়ে বাড়তি ৭০০ কোটি টাকার বোঝা চাপবে বলে দাবি তাদের। তা সত্ত্বেও নিজের সিদ্ধান্তেই অনড় কেজরীবাল।