তিন তালাক বিল নিয়ে লোকসভায় আলোচনার মাঝেই আজ তুমুল উত্তেজনা তৈরি হল এসপি সাংসদ আজম খানের একটি মন্তব্যকে ঘিরে। স্পিকারের অনুপস্থিতিতে আসনে তখন ছিলেন বিজেপি সাংসদ রমা দেবী। অভিযোগ, কথোপথনের সময় তাঁর প্রতি ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করেন আজম খান। সরকারি বেঞ্চে এই নিয়ে চিৎকার শুরু হয়। অসন্তুষ্ট রমা দেবী পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনার আগেই অবশ্য চলে আসেন স্পিকার ওম বিড়লা। তিনি কড়া ভাষায় কার্যত তিরস্কারই করেন এসপি সাংসদকে। অন্য দিকে আজম খান জানান তিনি রমা দেবীকে ‘বোনের মতো’ দেখে যা বলার বলেছেন। তাঁর বক্তব্যে যদি কোনও অসংলগ্নতা বা অন্যায় পাওয়া যায়, তা হলে তিনি পদত্যাগ করতে রাজি আছেন। এর পরই কক্ষত্যাগ করতে দেখা যায় আজমকে।

এসপি-র পক্ষে বিড়ম্বনা আরও বেশি এই কারণে যে, সে সময় আজমের পাশেই বসেছিলেন উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা দলের নেতা অখিলেশ সিংহ যাদব। বিজেপি-র সঙ্গে কক্ষে রাজনৈতিক লড়াইয়ে তাঁকে কিছুটা বাধ্য হয়েই আজমের পাশে দাঁড়াতে হয়। ঘটনা হল, আজম বলার সময় সরকারি বেঞ্চ থেকে মুখতার আব্বাস নকভি তাঁকে বারবার থামাচ্ছিলেন। স্পিকারের আসনে বসা রমা দেবী আজমকে এ দিক ও দিক না দেখে সোজা আসনের দিকে তাকিয়েই নিজের বক্তব্য জানাতে বলেন। 

তখনই রমার দিকে অপলকে চেয়ে থাকা সংক্রান্ত কিছু মন্তব্য করতে থাকেন আজম। পরে এই সমস্ত বাক্যগুলি সংসদের রেকর্ড থেকে বাদ দেওয়া হয়। 

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।