নীলরতন সরকার হাসপাতালে জুনিয়র ডাক্তার নিগ্রহের ঘটনায় সোমবার ফের দেশ জুড়ে প্রতিবাদে নামলেন চিকিৎসকেরা। ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশনের ডাকে প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন দেশ জুড়ে বিভিন্ন রাজ্যের চিকিৎসকেরা। ফলে শুক্রবারের পর সোমবারও কার্যত শিকেয় দেশ জুড়ে স্বাস্থ্য পরিষেবা।

ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (আইএমএ) চিকিৎসকদের সর্বোচ্চ সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে, জরুরি ও রুটিন পরিষেবা চালু থাকবে। তবে আউটডোর এবং অন্যান্য পরিষেবা বন্ধ থাকবে। ফলে আজ, সোমবার সারা দেশেই চিকিৎসা পরিষেবায় ব্যাপক প্রভাব পড়তে চলেছে। এ দিন দুপুর থেকে মঙ্গলবার সকাল ৬টা পর্যন্ত আংশিক স্বাস্থ্য পরিষেবা দেবেন না বলে ঘোষণা করেছেন এমস-এর রেসিডেন্ট ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশনের চিকিৎসকেরা।

এ ছাড়াও ভোপাল, লখনউ, মুম্বই, ভুবনেশ্বরেও প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন চিকিৎসকেরা। ২৪ ঘণ্টা স্বাস্থ্য পরিষেবা বন্ধের ডাক দিয়েছেন তেলঙ্গানার চিকিৎসকেরা। লখনউয়ের কিং জর্জ’স মেডিক্যাল ইউনিভার্সিটি-র ডাক্তাররা এনআরএস ঘটনার প্রতিবাদে ধর্মঘট করছেন। ধর্মঘট চলছে ঝাড়খণ্ডেও। শুধু দেশের বিভিন্ন রাজ্যেই নয়, ব্রিটেনের বাঙালি ডাক্তারদের অ্যাসোসিয়েশনও প্রতিবাদে সামিল হয়েছে। ১৮ জুন ম্যাঞ্চেস্টারে ভারতীয় রাষ্ট্রদূতের হাতে তাঁরা বিবৃতি জমা দেবেন। বিবৃতির একটি কপি পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছেও পাঠাবেন।

 

আরও পড়ুন: জুনিয়র ডাক্তারদের কাছে পৌঁছল নবান্নের আমন্ত্রণপত্র, তবে মিডিয়ার উপস্থিতি নিয়ে এখনও টানাপড়েন

শুক্রবারও কর্মবিরতির ডাক দিয়েছিলেন দেশ জুড়ে চিকিৎসকেরা। উত্তরপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলঙ্গানা, মহারাষ্ট্র, কেরল, পঞ্জাব, বিহার, অসম-সহ সব রাজ্যের মেডিক্যাল কলেজের চিকিৎসকরা নিরাপত্তার দাবিতে আন্দোলনে সামিল হন। কোথাও কাজ বন্ধ রেখে আন্দোলন হয়েছে। কোথাও বা রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ মিছিল করেছেন চিকিৎসকরা। সব মিলিয়ে এনআরএস আন্দোলনের ঢেউ ছড়িয়ে পড়ে সারা দেশেই।

আরও পড়ুন: আপনার ব্যবহারই আপনার পরিচয়! ডাক্তাররাও কেন এটা শিখবেন না

আরও পড়ুন: আরও সহিষ্ণু হতে হবে: নিগৃহীত চিকিৎসক

আজই নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে বসার কথা আন্দোলনকারী জুনিয়র ডাক্তারদের। সেই বৈঠক নিয়ে অবশ্য এখনও টানাপড়েন চলছে। তবে স্বাস্থ্য কর্তাদের আশা, এই জটিলতা খুব তাড়াতাড়ি কাটবে।