ভোটের আগে রাম মন্দির ইস্যু জিইয়ে রাখতে নয়া পন্থা নিল বিজেপি। অযোধ্যায় সরকার অধিগৃহীত জমির যে অংশে বিতর্ক নেই, সেই অংশ রাম জন্মভূমি ন্যাস (ট্রাস্ট)-এর হাতে তুলে দেওয়ার জন্যসুপ্রিম কোর্টে আর্জি জানাল কেন্দ্র। মঙ্গলবার রিট পিটিশন দাখিল করে এই আবেদন জানানো হয়েছে।

অযোধ্যায় রাম জন্মভূমি-বাবরি মসজিদ এলাকায় মোট ৬৭ একর জমি রয়েছে। বর্তমানে পুরো জমির উপরই স্থিতাবস্থা জারি রাখার নির্দেশ রয়েছে শীর্ষ আদালতের। ২৫ বছর আগে এই জমি অধিগ্রহণ করেছিল সরকার। এর মধ্যে বিতর্কিত জমি ২.৭ একর। মঙ্গলবার সরকারের পক্ষ থেকে একটি রিট পিটিশন দাখিল করে আর্জি জানানো হয়েছে, বিতর্কিত ২.৭ একর ছাড়া বাকি অংশের উপর থেকে স্থিতাবস্থা তুলে নেওয়া হোক। তার পর ওই জমি রাম জন্মভূমি ন্যাসের হাতে তুলে দেওয়া হোক। গোড়া থেকেই রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষে সওয়াল করে আসছে এই ট্রাস্ট।

বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামী সোমবার সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংহের সঙ্গে দেখা করে এই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন। পরে তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘সরকার চায় দ্রুত রাম মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু করতে। তবে আদালত স্থিতাবস্থা তুললে তবেই সেটা করা হবে।’

আরও পডু়ন: প্রয়াত প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জর্জ ফার্নান্ডেজ

আরও পড়ুন: ‘প্রতিটি গরিব মানুষকে ২০১৯-এ কংগ্রেস সরকার ন্যূনতম আয় নিশ্চিত করবে’, প্রতিশ্রুতি রাহুলের

এ দিনই সুপ্রিম কোর্টে অযোধ্যার মূল মামলার শুনানি ছিল। কিন্তু বিচারপতি এস এ বোবদে শারীরিক অসুস্থতার জন্য অনুপস্থিত ছিলেন। তাই শুনানি হয়নি। পরবর্তী শুনানির দিনও ধার্য হয়নি। এই পরিস্থিতিতে ভোটের আগে রাম মন্দির ইস্যু আরও জোরদার করতে তৎপর বিজেপি। সেই কারণেই এবার স্থিতাবস্থা তোলার আর্জি। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, সুপ্রিম কোর্টে যা-ই সিদ্ধান্ত হোক, বিজেপি যে রামমন্দির নির্মাণে তৎপর, এটা বোঝানোর চেষ্টা করতে পারবে। কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী যেমন সোমবারও বলেছেন, আমরা সুপ্রিম কোর্টকে শ্রদ্ধা করি। শীর্ষ আদালতের উপর আমাদের বিশ্বাস আছে। কিন্তু ৭০ বছর ধরে ঝুলে থাকা মামলার অবিলম্বে সমাধান হওয়া দরকার।