• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

সোপিয়ানে তিন পুলিশকর্মীকে অপহরণ করে খুন, পালিয়ে বাঁচলেন এক জন

Abduction
তিন পুলিশ অফিসারকে অপহরণ করে খুন করল জঙ্গিরা। —প্রতীকী ছবি

Advertisement

জম্মু কাশ্মীরে অপহৃত চার পুলিশকর্মীর মধ্যে তিন জনকে হত্যা করল জঙ্গিরা। বৃহস্পতিবার রাতেই চার জনকে অপহরণ করে জঙ্গিরা। হুমকি দেয়, চাকরি থেকে ইস্তফা না দিলে অপহৃতদের হত্যা করা হবে। শনিবার ভোরে তিন জনকে জঙ্গিরা খুন করেছে বলে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে। তবে অপহৃতদের মধ্যে এক জন গ্রামবাসীদের সাহায্যে পালিয়ে আসতে সক্ষম হন। 

মঙ্গলবারই একটি ভিডিয়ো বার্তায় পুলিশ ও নিরাপত্তা কর্মীদের চাকরি থেকে ইস্তফা দেওয়ার দাবি জানায় হিজবুল। পদত্যাগ না করলে হত্যার হুমকিও দেওয়া হয়। এর পরই এই ঘটনা। তাই প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, অপহরণের নেপথ্যে রয়েছে হিজবুল মুজাহিদিন। স্বরাষ্ট্র দফতরের এক কর্তা বলেন, উপত্যকায় জঙ্গিরা কোণঠাসা। পাথর বৃষ্টি বা অন্য কোনও বিশৃঙ্খলায় কাশ্মীরবাসী আর তাদের সাহায্য করছেন না। তাই এখন অন্য পথে চাপ সৃষ্টির চেষ্টা করছে।

বৃহস্পতিবার রাতে জম্মুর সোপিয়ান থেকে তিন স্পেশাল পুলিশ অফিসার (এসপিও) এবং এক কনস্টেবলকে অপহরণ করে জঙ্গিরা। অপহৃতদের চাকরি থেকে ইস্তফা দেওয়ার দাবি জানানো হয়। পুলিশ সূত্রে খবর, অপহৃতরা হলেন ফিরদৌস আহমদ কুচে, কুলদীপ সিংহ, নিসার আহমেদ ধোবি এবং কনস্টেবল ফৈয়াজ আহমদ ভাট। ওই দিন রাতে সোপিয়ান জেলার কাপরান গ্রামে ওই চার পুলিশ কর্মীর বাড়িতে ঢুকে পড়ে টেনে হিঁচড়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়। তারপর গোপন আস্তানা থেকে জানানো হয়, ওই চার জন চাকরি থেকে পদত্যাগ করলে তবেই ছাড়া হবে। না হলে ঘটবে চরম পরিণতি। তারপরই শনিবার সকালে তিন জনের মৃতদেহ উদ্ধার হয়। 

আরও পড়ুন: পাইলট ইচ্ছাকৃত ভাবে এসি প্যাক বন্ধ করবেন না, তিনিও তো কষ্ট পাচ্ছিলেন

গত মঙ্গলবারই নিরাপত্তা বাহিনীকে একটি ভিডিয়ো বার্তা পাঠায় হিজবুল মুজাহিদিন জঙ্গি গোষ্ঠী। ওই বার্তায় পুলিশ ও নিরাপত্তা কর্মীদের হুমকি দেওয়া হয়েছিল, ইস্তফা দিন, নয়তো মৃত্যুর জন্য প্রস্তুত থাকুন। ভিডিয়োতে স্থানীয় এক যুবককে কাশ্মীরী ভাষায় কথা বলতে দেখা গিয়েছে। পুলিশ প্রশাসনের কর্তারা মনে করছেন, ওই যুবক জঙ্গি গোষ্ঠীর স্থানীয় কম্যান্ডার। তার খোঁজ চলছে।

তিন সপ্তাহ আগেই দক্ষিণ কাশ্মীরে তিন পুলিশকর্মী ও পুলিশকর্মীদের পরিবারের আট সদস্যকে অপহরণ করেছিল হিজবুল জঙ্গিরা। ডজন খানেক জঙ্গি পরিবারের সদস্যকে মুক্তি দেওয়ার পর ওই ১১ জনকে ছেড়ে দেয় জঙ্গিরা। একে এই ঘটনা, তার উপর ভিডিয়ো বার্তায় হুমকি, তার পরও সতর্কতা না নেওয়ায় পুলিশ-প্রশাসনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে।

আরও পড়ুন: সার্জিক্যাল স্ট্রাইক দিবস পালনে নারাজ রাজ্য

অক্টোবরে জম্মু কাশ্মীরে অক্টোবরে পঞ্চায়েত ভোট। ইতিমধ্যেই মুফতি মহম্মদ সইদের পিডিপি ভোট বয়কটের ঘোষণা করেছে। অন্যদিকে বয়কটের ডাক দিয়েছে বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনগুলিও। এই পরিস্থিতিতে ভোটের আগে উপত্যকায় অশান্তি বাড়ছে। ফলে প্রার্থীদের নিরাপত্তা এবং ভোট প্রক্রিয়া নির্বিঘ্নে শেষ করাই কঠিন চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াচ্ছে নিরাপত্তা কর্মীদের কাছে।

(দেশজোড়া ঘটনার বাছাই করা সেরা বাংলা খবর পেতে পড়ুন আমাদের দেশ বিভাগ।)

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন