গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পর্রীকর প্রয়াত। দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন তিনি। অগ্ন্যাশয়ের ক্যানসারে ভুগছিলেন। মৃত্যুর সময় বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর। 

গত বছর ফেব্রুয়ারি থেকে অসুস্থ ছিলেন প্রাক্তন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পর্রীকর। অগ্ন্যাশয়ের ক্যানসার ধরা পড়ে তাঁর। যার পর মার্চ মাসে চিকিত্সা করাতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যান তিনি। গত বছর সেপ্টেম্বরে দিল্লির এইমসেও ভর্তি ছিলেন তিনি। গোয়া ফেরেন অক্টোবরে। সেই অবস্থাতেই বাড়ি থেকে কাজ সামলাচ্ছিলেন। পালা করে দিল্লির হাসপাতালেও যাচ্ছিলেন। গতমাসেই গোয়া মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। তার মধ্যেই তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটেছে বলে শনিবার সংবাদমাধ্যমকে জানান রাজ্যের বিজেপি নেতা তথা বিধানসভার  ডেপুটি স্পিকার মাইকেল লোবো। এর পর এ দিন সন্ধ্যার দিকে তাঁর মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়। তাঁর মৃত্যুতে আগামিকাল রাষ্ট্রীয় শোক পালন করা হবে বলে ঘোষণা করেছে কেন্দ্র।

পর্রীকরের মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর টুইটারে  রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ লেখেন, ‘‘শ্রী মনোহর পর্রীকরের মৃত্যু সংবাদে আমি শোকগ্রস্ত। দীর্ঘদিন ধরে অত্যন্ত সাহসিকতার সঙ্গে যন্ত্রণার সঙ্গে লড়াই করছিলেন তিনি। অত্যন্ত নিষ্ঠার সঙ্গে গোয়া এবং দেশের সাধারণ মানুষের সেবা করে গিয়েছেন উনি। ওঁর অবদান কখনও ভোলা যাবে না।’’

রাষ্ট্রপতির টুইট।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী লেখেন, ‘‘নেতা হিসাবে অতুলনীয় ছিলেন মনোহর পর্রীকর। একজন সত্যিকারের দেশপ্রেমী এবং ব্যতিক্রমী প্রশাসক। প্রত্যেকে ওঁকে পছন্দ করতেন। দেশের প্রতি ওঁর অবদান পরবর্তী প্রজন্মও মনে রাখবে। ওঁর প্রয়াণে শোকাহত আমি। ওঁর পরিবার ও সমর্থকদের সমবেদনা জানাই।’’

প্রধানমন্ত্রীর টুইট।

দেশের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায় লেখেন, ‘‘মনোহর পর্রীকরের প্রয়াণে শোকাহত। অত্যন্ত সাহসের সঙ্গে রোগের বিরুদ্ধে লড়ে গিয়েছেন উনি। ভেবেছিলাম শেষমেশ হয়ত জিতেও যাবেন। শরীর ভেঙে পড়া সত্ত্বেও কাজে অবহেলা করেননি। শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত কাজ করে গিয়েছেন। ওঁর আত্মার শান্তি কামনা করি। ’’

প্রণব মুখোপাধ্যায়ের টুইট।

কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী টুইটারে লেখেন, ‘‘গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী শ্রী মনোহর পর্রীকরের মৃত্যু সংবাদে আমি অত্যন্ত ব্যাথিত। এক বছরেরও বেশি সময় ধরে মারণ রোগের বিরুদ্ধে লড়ছিলেন উনি। সব রাজনৈতিক দলের নেতারা ওঁকে শ্রদ্ধা করেন। গোয়ার অন্যতম প্রিয় সন্তান উনি। এই দুঃখের মুহূর্তে ওঁর পরিবারকে সমবেদনা জানাই।’’

রাহুল গাঁধীর টুইট।

পর্রীকরের প্রয়াণে শোকপ্রকাশ করেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। তিনি লেখেন, ‘‘গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী মনোহর পর্রীকরের প্রয়াণে ব্যথিত। অত্যন্ত ধৈর্যের সঙ্গে অসুস্থতার সঙ্গে লড়াই করে গিয়েছেন উনি। ওঁর পরিবার ও অনুরাগীদের সমবেদনা জানাই।’’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের টুইট।

বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ লেখেন, ‘‘মনোহর পর্রীকরজি-র প্রয়াণ অত্যন্ত যন্ত্রণাদায়ক। ওঁর মৃত্যুতে একজন সত্যিকারের দেশপ্রেমীকে হারালেন মানুষ, যিনি কিনা দেশ ও আদর্শের প্রতি নিজের জীবন উত্সর্গ করেছিলেন। দেশের মানুষ এবং কর্তব্যের প্রতি ওঁর নিষ্ঠা সকলের কাছে উদাহরণ হয়ে থাকবে।’’

অমিত শাহ-র টুইট।

পর্রীকরের মৃত্যুতে সোমবার সকাল ১১টায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় বিশেষ শোকসভার আয়োজন হবে বলে জানানো হয়েছে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে।