দু’মাস গৃহবন্দি থাকার পরে অবশেষে মুক্তি পেলেন জম্মুর রাজনৈতিক নেতারা। সরকারি সূত্রে খবর, ব্লক উন্নয়ন কাউন্সিলের নির্বাচনের কারণে ছাড়া হচ্ছে জম্মুর নেতাদের। জম্মুর নেতারা মুক্তি পেলেও কাশ্মীরী নেতাদের গৃহবন্দি দশা এখনই কাটছে না।

সোমবার জম্মু কশ্মীরের মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক জম্মুতে নির্বাচনের কথা ঘোষণা করেন। এই নির্বাচনী প্রক্রিয়ায় অংশগ্রহণের জন্যেই মুক্তি দেওয়া হয় দেবেন্দ্ সিংহ, রমন ভাল্লা, চৌধুরীলাল সিংহ, ভিকার রসুল, জাভেদ রানা, সুরজিৎ সিংহ স্লাথিয়া, সাজ্জাদ আহমেদ কিচলুকে। এদিন সরকারি বিবৃতিতে জানানো হয়, জম্মু এখন অনেকটাই শান্ত। সেই কারণে ছাড়া হচ্ছে এই নেতাদের।   

অগস্ট মাসের গোড়ায় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ রদ করে জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপের পর থেকে উপত্যকায় নিরাপত্তার কড়াকড়ি শুরু হয়। কার্ফু জারি করা ছাড়াও বন্ধ করে দেওয়া হয় টেলি-যোগাযোগ এবং ইন্টারনেট পরিষেবা। সেই সঙ্গে প্রায় ৪০০ জন রাজনৈতিক নেতা-নেত্রীকে হয় গ্রেফতার, না হয় আটক করা হয়। এর মধ্যে রয়েছেন রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা ও মেহবুবা মুফতির মতো রাজনৈতিক হেভিওয়েটরাও। তাঁদের গৃহবন্দি করে রাখা হয়েছে। এই ঘটনাকে মানবাধিকার লঙ্ঘন বলে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থও হন অনেকে। মেহবুবা মুফতির মেয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠিতে লেখেন, ‘কাশ্মিরীদের পশুর মতো খাঁচায় ভরে রাখা হয়েছে।’ ধাপে ধাপে নিরাপত্তার বিধিনিষেধ হালকা হলেও মুক্তি পাননিকাশ্মীরি নেতারা।

আরও পড়ুন:১৫০তম জন্মবার্ষিকীতে গাঁধীজিকে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন মোদীর, দেশকে প্রকাশ্য শৌচমুক্ত ঘোষণা করবেন আজ
আরও পড়ুন:নিজের ফ্ল্যাটেই খুন ইসরোর বিজ্ঞানী, মাথায় ভারী আঘাতের চিহ্ন

এদিন জম্মুর নেতাদের ছাড়া হলেও কাশ্মীরি নেতাদের কবে ছাড়া হবে এ বিষয়ে কোনও সরকারি বিবৃতি পাওয়া যায়নি। জম্মুতে ব্লক উন্নয়ন পরিষদের ভোট আগামী ২৪ অক্টোবর, মোট ৩০০ ব্লকে এই নির্বাচন হবে। প্রক্রিয়ায় অংশ নেবেন ২৬০০০ পঞ্চায়েত সদস্য।