• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

রাফাল কাণ্ডে প্রাণ সংশয় রয়েছে পর্রীকরের? দাবি কংগ্রেসের

manohar
অসুস্থ অবস্থাতেই দফতর সামলাচ্ছেন পর্রীকর। ছবি: পিটিআই।

রাফাল দুর্নীতি নিয়ে এ বার রাষ্ট্রপতির দ্বারস্থ কংগ্রেস। গোয়ায় দলের সভাপতি গিরীশ ছোডানকর। সরাসরি রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে চিঠি লিখেছেন তিনি। তাতে জানিয়েছেন, এমনিতেই অসুস্থ মনোহর পর্রীকর। তার উপর রাফাল সংক্রান্ত গোপন তথ্য জানেন। অনেক গুরুত্বপূর্ণ ফাইলপত্র রয়েছে ওঁর হাতে। তার জেরে ওঁর জীবন বিপন্ন। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব নিরাপত্তা দেওয়া হোক প্রাক্তন প্রতিরক্ষা মন্ত্রীকে।

চিঠিতে গিরীশ ছোডানকর লেখেন, “রাফাল চুক্তির সময় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের দায়িত্বে ছিলেন মনোহর পর্রীকর। চুক্তি সংক্রান্ত অনেক গুরুত্বপূর্ণ ফাইল রয়েছে ওঁর হাতে। এই মুহূর্তে রাফাল বিতর্ক চরমে। গোপন তথ্য সামনে আসুক তা চায় না একদল মানুষ। যেন তেন প্রকারে ওই ফাইলগুলি হাতিয়ে নিতে পারে তারা। তাতে প্রাণ যেতে পারে পর্রীকরের। তাই আমার অনুরোধ, অবিলম্বে ওঁকে কড়া নিরাপত্তা দেওয়া হোক। যাতে বিনা সংশয়ে দেশবাসীর সামনে সত্যিটা তুলে ধরতে পারেন উনি।” দুর্নীতি ধামাচাপা দিতে ওই ফাইলগুলি নষ্ট করে দেওয়া হতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেন ছোডানকর।

ফ্রান্সের দাসোঁ সংস্থার থেকে রাফাল যুদ্ধবিমান কেনায় কোটি কোটি টাকার দুর্নীতি হয়েছে বলে গত বছর থেকেই অভিযোগ তুলে আসছে কংগ্রেস। আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের আগে সেই বিতর্ক চরমে উঠেছে। সুপ্রিম কোর্ট গোটা মামলা থেকে কার্যত হাত তুলে নিয়েছে। তবে সংসদে বাদানুবাদ চলছেই। তার মধ্যেই চলতি সপ্তাহে একটি অডিয়ো রেকর্ডিং সামনে আসে, যাতে গোয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী বিশ্বজিত্ রাণে ও এক ব্যক্তির মধ্যে রাফাল দুর্নীতি নিয়ে কথোপকথন ধরা পড়ে। তাতে বিশ্বজিত্ রাণে দাবি করেন, বেডরুমে রাফাল চুক্তির ফাইল রয়েছে বলে নিজেমুখে তাঁকে জানিয়েছেন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী পর্রীকর।

আরও পড়ুন: দিলীপের মমতা-স্তুতিতে স্তম্ভিত গোটা দল, তোলপাড় শুরু বিজেপিতে​

আরও পড়ুন: সিডনিতে ইতিহাস, কুলদীপ-ভেল্কিতে ৩০ বছর পর দেশের মাটিতে ফলো অন অজিদের​

যদিও অডিয়োর কথোপকথন তাঁর নয় বলে দাবি করেন বিশ্বজিৎ রাণে। তবে সেটি হাতে পেয়েই বিজেপিকে দুরমুশ করতে নেমে পড়ে কংগ্রেস। এমনকি সংসদের অধিবেশনে রাফাল নিয়ে প্রশ্নোত্তর পর্ব চলার সময় অধ্যাক্ষার কাছে সেটি শোনানোর জন্য আর্জিও জানান কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গাঁধী। তাঁর অনুরোধ যদিও গৃহীত হয়নি, তবে হাল ছাড়েনি কংগ্রেস। শনিবার গোয়া কংগ্রেসের তরফে প্রশ্ন তোলা হয়, রাফাল দুর্নীতি নিয়ে কথোপকথন ধরা পড়েছে ওই অডিয়োতে। তা সত্ত্বেও এখনও পর্যন্ত কোনও এফআইআর দায়ের হল না কেন? মন্ত্রিসভা থেকে রাণে-কে বহিষ্কারেরও দাবি জানায় তারা।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন