মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরেন্দ্র সিংহের বনিবনা তেমন ছিল না। গত মাসে মন্ত্রিসভায় রদবদল করে তাঁকে অন্য মন্ত্রকের দায়িত্ব দিলেও তাতে যোগ দেননি। এ বার পঞ্জাব মন্ত্রিসভা থেকেই ইস্তফা দিলেন নভজ্যোত সিংহ সিধু। রবিবার তাঁর ইস্তফাপত্রটি নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করেছেন এই প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা রাজনীতিক।

এক লাইনের একটি চিঠিতে কংগ্রেসের বিদায়ী সভাপতি রাহুল গাঁধীকে উদ্দেশ্য করে সিধু লিখেছেন, ‘পঞ্জাব ক্যাবিনেট থেকে আমি পদত্যাগ করছি।’ ওই চিঠিতে লেখা তারিখ অবশ্য চলতি মাসের নয়। গত মাসের ১০ তারিখ তা লেখা হয়েছিল। তবে ঠিক কী কারণে সিধু ইস্তফা দিলেন, তার কোনও ব্যাখ্যা ওই চিঠিতে নেই। প্রকাশ্যে এ নিয়ে কোনও মন্তব্য না করলেও নতুন মন্ত্রকের দায়িত্বভার যে তাঁর পদাবনতির সমান, ঘনিষ্ঠ মহলে এমনটাই জানিয়েছেন সিধু।

গত ৬ জুন পঞ্জাব ক্যাবিনেটে রদবদল করেন মুখ্যমন্ত্রী ক্যাপ্টেন অমরেন্দ্র সিংহ। স্থানীয় প্রশাসন এবং পর্যটন ও সংস্কৃতি মন্ত্রক থেকে সিধুকে  বিদ্যুৎ ও পুনর্নবীকরণযোগ্য শক্তি মন্ত্রকের দায়িত্ব দেওয়া হয়। তবে সেই মন্ত্রকের দায়িত্ব তিনি গ্রহণ করেননি।

আরও পড়ুন: ঐতিহাসিক! ভোররাতে উড়বে চন্দ্রযান-২, মহাকাশ অভিযানে নবযুগে পা দিচ্ছে ভারত

আরও পড়ুন: ওষুধে কাজ হচ্ছে না! চুপ চিকিৎসক​

২০১৭-তে পঞ্জাব বিধানসভার নির্বাচনের আগে বিজেপি ছেড়ে কংগ্রেসে যোগ দেন সিধু। তবে নির্বাচনী প্রচার থেকেই অমরেন্দ্র সিংহের সঙ্গে তাঁর বিবৃতির লড়াই চালু ছিল। গত মাসে সেই লড়াই আরও তীব্র হয়। লোকসভা ভোটে কংগ্রেসের শোচনীয় ফলের জন্য সিধুকেই দায়ী করেন অমরেন্দ্র। তাঁর মতে, স্থানীয় প্রশাসন দফতরে থেকে নিজের দায়িত্ব সঠিক ভাবে পালন না করাতেই শহুরে ভোটাররা লোকসভা নির্বাচনে কংগ্রেস-বিমুখ হয়েছে। যদিও সে কথা মানতে নারাজ সিধু। সিধুর মতে, প্রকাশ্যে তাঁর দফতরকে বা তাঁকে এ ভাবে দায়ী করা উচিত নয়। তাঁর দাবি, সারা বছরই তিনি কাজ করে গিয়েছেন। এর পর ক্যাবিনেটে রদবদল করে তাঁকে নতুন দায়িত্ব দেওয়া হলেও তা নিয়ে কোনও কথা বলেননি তিনি। ওই রদবদলের চার দিনের মাথাতেই রাহুল গাঁধীকে ইস্তফার চিঠি লেখেন। যা তিনি এ দিন টুইটারে পোস্ট করেছেন।

এবার শুধু খবর পড়া নয়, খবর দেখাও।সাবস্ক্রাইব করুনআমাদেরYouTube Channel - এ।