রেহাই মিলল না অন্তঃসত্ত্বারও। বাড়ি ফেরার পথে একা পেয়ে তাঁকে তিন জন মিলে পরপর ধর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ। পৈশাচিক এই ঘটনা নিয়ে হরিয়ানার মানেসার এলাকায় তোলপাড় পড়ে গিয়েছে। প্রশ্ন উঠছে প‌থেঘাটে মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়ে।

লোকলজ্জার ভয়ে প্রাথমিক ভাবে ঘটনাটি চেপে যেতে চেয়েছিল ওই পরিবার। কিন্তু ঘটনার দিন চারেক পরে শেষ পর্যন্ত তাঁরা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেছেন। জানা গিয়েছে, বছর তেইশের ওই মহিলা ছ’মাসের অম্তঃসত্ত্বা। বাড়ি বিহারে। স্বামী যেহেতু কর্মসূত্রে মানেসারে থাকতেন, তাই তিনি সেখানেই চলে আসেন পাকাপাকি ভাবে।

স্বামীর সাইকেলে চেপে গত ২১ মে তিনি গিয়েছিলেন মানেসার হাসপাতালে রুটিন ‘চেকআপ’ করানের জন্য। ফেরার পথে শারীরিক সমস্যা বোধ করায়, স্বামী তাঁকে অটো ধরে বাড়ি ফেরার পরামর্শ দেন। কিন্তু বুঝতেও পারেননি যে অটোতেইঅপেক্ষা করছে ভয়ঙ্কর বিপদ।

আরও পড়ুন: ভিন্‌ধর্মী মহিলা বন্ধু! মার যুবককে

আরও পড়ুন: বন্দি বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতার মেয়ে দ্বাদশে কাশ্মীর-সেরা

পুলিশে দায়ের করা অভিযোগ অনুযায়ী, মাদক মেশানো জল খাইয়ে অটো ড্রাইভার প্রথমে ওই অন্তঃসত্ত্বাকে আচ্ছন্ন করে ফেলে। এর পর তিন জন মিলে তাঁকে গণধর্ষণ করে। এই ঘটনার তদন্ত শুরু হলেও, এখনও পর্যন্ত এক জনকেও গ্রেফতার করা যায়নি। তবে স্বস্তির খবর এটাই যে,ওই মহিলা মোটের উপর সুস্থ রয়েছেন। চিকিত্সকেরা জানিয়েছেন, ক্ষতি হয়নি গর্ভস্থ ভ্রণের।