কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গাঁধীর স্বামী ব্যবসায়ী রবার্ট বঢরাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠাল এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট (ইডি)। আগামী কাল, বৃহস্পতিবার ইডির দিল্লি অফিসে সকাল সাড়ে ১০টায় হাজির হতে হবে রবার্টকে। রবার্টের আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিহীন সম্পত্তির তদন্ত করছে ইডি। তদন্তকারী সংস্থার অভিযোগ, লন্ডন, দুবাই, রাজস্থান ও দিল্লিতে রবার্টের নামে ও বেনামে প্রচুর স্থাবর সম্পত্তির হদিশ মিলেছে। এই নিয়ে ইডি জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রবার্টকে ৯ বার ডেকে পাঠাল।

রবার্টের আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিহীন সম্পত্তিই এ বার অন্যতম প্রধান টার্গেট ছিল লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির প্রচারে। ‘এই সব রাজনৈতিক ডাইনি শিকার’ বলে উড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করলেও ভোটের সময় যাতে তাঁকে গ্রেফতার করা না হয়, তার জন্য শুনানি আদালতে গিয়ে ‘আইনি রক্ষাকবচ’ নিয়ে রেখেছিলেন রবার্ট। গত এপ্রিলে তাঁর আগাম জামিনের আর্জি মঞ্জুর হয় আদালতে।

আগাম জামিন বাতিল করার আর্জি জানিয়ে পরে ইডি যায় দিল্লি হাইকোর্টে। ইডি যুক্তি দেখায়, রবার্টের নতুন আরও কয়েকটি বেনামি (অবৈধ) সম্পত্তির তথ্যপ্রমাণ তাদের হাতে এসেছে। ইডির তরফে আদালতে জানানো হয়, নামে বা বেনামে লন্ডনে অন্তত ৯টি স্থাবর সম্পত্তি রয়েছে রবার্টের। যার আর্থিক মূল্য প্রায় ১ কোটি ২০ লক্ষ পাউন্ড। সেই ৯টি সম্পত্তির মধ্যে রয়েছে তিনটি ভিলা। বাকিগুলি বিলাসবহুল ফ্ল্যাট। সেই সবই কেনা হয়েছিল ২০০৫ থেকে ২০১০ সালের মধ্যে, যখন কেন্দ্রে ক্ষমতাসীন ছিল কংগ্রেসের নেতৃত্বে ইউপিএ সরকার।

আরও পড়ুন- লন্ডনে সম্পত্তি: রবার্ট বঢরার জবাব তলব, আগাম জামিন খারিজের আর্জি ইডির​

আরও পড়ুন- 

ইডির তরফে আদালতে এও জানানো হয়েছে, লন্ডনের ১২, ব্রায়ানস্টন স্কোয়ারে ওই সময় একটি ম্যানসনও কিনেছিলেন রবার্ট। জড়িত ছিলেন হরিয়ানা ও রাজস্থানে জমি কেনাবেচাতেও।

তার প্রেক্ষিতে ১৭ জুলাইয়ের মধ্যে রবার্টকে তাঁর বক্তব্য জানাতে বলেছে আদালত।