• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘চাপে নয়, ঐতিহ্য মেনেই ওষুধ আমেরিকাকে’, দাবি ‌মোদীর

HCQ
ছবি এপি।

চাপে নয়। মানবিকতার খাতিরে এবং সনাতনী ঐতিহ্য মেনেই মার্কিন মুলুক সমেত বহু দেশকে ভারত সম্প্রতি ওষুধ পাঠিয়েছে বলে দাবি করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। করোনার এই কঠিন সময়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে জোর দিলেন আয়ুষ মন্ত্রকের দাওয়াই গ্রহণে। কিন্তু বিরোধীদের প্রশ্ন, মার্কিন প্রেসিডেন্টের হুমকির মুখে তড়িঘড়ি ওষুধ পাঠানো নিয়ে কটাক্ষ শুনতে হয়েছে বলেই কি মোদীর এই কৈফিয়ৎ? তা ছাড়া, লকডাউনের এই সময়ে যেখানে অনেকের দু’বেলা খাবারই জুটছে না, সেখানে আয়ুষ মন্ত্রকের দাওয়াই খেতে বলাটা রসিকতা নয় কি?

রবিবার ‘মন কি বাত’ অনুষ্ঠানে মোদী বলেন, “এই সঙ্কটের সময়ে বহু উন্নত দেশেও ওষুধের ঘাটতি। এই সময়ে ভারত যদি ওষুধ পাঠিয়ে সহায়তা না-করত, কেউ দোষারোপ করতে পারত না।… কিন্তু দেশে পর্যাপ্ত জোগানের পাশাপাশি নিজেদের সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্য বজায় রেখে বাকি বিশ্বের দিকেও সাহায্যের হাত বাড়িয়েছি আমরা।” এখন ফোনে কথা বলার সময়ে ওই সমস্ত দেশের রাষ্ট্রপ্রধানেরা ভারতের জনগণকে ধন্যবাদ জানালে, তাতে দেশেরই মর্যাদা বাড়ে বলে তাঁর দাবি।

করোনা সামাল দেওয়ার এই সময়ে যাতে দেশে ওষুধ কিংবা স্বাস্থ্য সরঞ্জামে টান না-পড়ে, তা নিশ্চিত করতে ওই সমস্ত সামগ্রী রফতানিতে এ মাসের গোড়ায় সাময়িক ভাবে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল কেন্দ্র। কিন্তু করোনার চিকিৎসার জন্যই ভারতের কাছে হাইড্রোক্সিক্লোরোকুইন কেনার চুক্তি সেরে রেখেছিল আমেরিকা। নিষেধাজ্ঞা জারির পরে ভারত তা না-পাঠাতে পারে কি না, সেই প্রশ্নে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের উত্তর ছিল, “…(মোদীকে) ফোনে বলেছি, ওষুধ আসার ছাড়পত্র দিলে, অবশ্যই আমরা সেই সিদ্ধান্তের প্রশংসা করব। যদি তা না-আসতে দেন, তা হলেও কিছু বলার নেই। তবে সে ক্ষেত্রে প্রত্যাঘাত হতেই পারে।” এর পরেই মার্কিন মুলুকে ওষুধ পাঠায় ভারত। পাঠানো হয়  আরও কিছু দেশে। বিদেশ মন্ত্রক সূত্রের দাবি, এই ওষুধ-কূটনীতির জেরে বিভিন্ন সহায়তা পাওয়ার ক্ষেত্রে সুবিধা পাবে ভারত।

আরও পড়ুন: ভরসা দিচ্ছে প্লাজ়মা চিকিৎসা, দেশে নয়া আক্রান্ত আরও ১৯৭৫

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন