সংসদের আলোচনায় উপস্থিত থাকার জন্য মন্ত্রী ও সাংসদদের কড়া নির্দেশ দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু, সেই নির্দেশ উড়িয়ে দিয়েই গত বুধবার রাজ্যসভায় গরহাজির ছিলেন কেন্দ্রীয় পশুপালন প্রতিমন্ত্রী সঞ্জীবকুমার বলিয়ান। আলোচনার সময় তাঁর নাম বার বার ডেকেও সাড়া পাওয়া যায়নি। শুক্রবার, মন্ত্রীকে সংসদ কক্ষে দেখেই ধমক দেন রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডু।

শুক্রবার জিরো আওয়ারে আলোচনা চলছিল রাজ্যসভায়। আচমকাই কেন্দ্রীয় প্রতিমন্ত্রী সঞ্জীবকুমারের উদ্দেশে রাজ্যসভা চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডু বলেন, ‘‘গত বুধবার আলোচ্যসূচিতে আপনার নাম ছিল। কিন্তু, আলোচনার জন্য আপনি সংসদ কক্ষে ছিলেন না। ভবিষ্যতে যেন এমন আর না হয়।’’ কড়া প্রধানশিক্ষক যেন সমঝে দিচ্ছেন ছাত্রকে। বেঙ্কাইয়া নাইডুকে এমন ভূমিকায় দেখে থেমে যায় সব গুঞ্জন। হঠাৎই স্তব্ধ হয়ে যায় গোটা রাজ্যসভা।

বেঙ্কাইয়া নাইডুর এমন ধমকের সামনে পড়ে ক্ষমা চেয়ে নেন সঞ্জীবকুমার।তিনি বলেন, ‘‘এমন ঘটনা ভবিষ্যতে আর ঘটবে না।’’ এর পরে, অবশ্য বিহারে বন্যা, মুম্বইয়ে বহুতলে ধসে মৃত্যু-সহ নানা বিষয় উঠে আসে জিরো আওয়ারে।]

আরও পড়ুন: সোনভদ্র হত্যাকাণ্ডে নিহতদের বাড়ি যেতে পারলেন না প্রিয়ঙ্কা, মাঝপথে আটক করল পুলিশ

গত মঙ্গলবারই মন্ত্রীদের অধিবেশনে উপস্থিত থাকা বাধ্যতামূলক বলে সতর্ক করে দেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। গরহাজির মন্ত্রীদের নামের তালিকা প্রতিদিন সন্ধ্যায় তাঁকে জানানোর জন্য সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশিকে নির্দেশও দেন তিনি।


আরও পড়ুন: ‘অনুপ্রবেশকারীদের স্বর্গরাজ্য হতে পারে না ভারত’, অসমের নাগরিকপঞ্জি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে বলল কেন্দ্র