নতুন মোটর ভেহিকল আইন কার্যকর হওয়ার পর থেকে একের পর এক জরিমানার খবর সামনে আসছে। কিন্তু এবার এমন একটি খবর সামনে এল যেখানে নিয়ম না মেনেও পার পেয়ে গেলেন এক ব্যক্তি। এক ব্যক্তি হেলমেট না পরলেও তাঁকে জরিমানা করল না গুজরাত পুলিশ। কারণ তাঁর সমস্যা বুঝছে পুলিশ।

গুজরাতের ছোটা উদেপুর জেলার বোদেলি শহরের বাসিন্দা জাকির মামুন। বাড়ি থেকে নিজের ফলের দোকানে বাইক নিয়েই যাতায়াত করেন। পয়লা সেপ্টেম্বর নতুন মোটর ভেহিকল আইন কার্যকর হওয়ার পর থেকেই তিনি ও তাঁর পরিবার ভয়ে ভয়ে রয়েছেন। কারণ জাকির হেলমেট পরেন না, পুলিশ ধরলেই জরিমানা করবে। হলও তাই। সম্প্রতি তাঁকে পুলিশের মুখে পড়তে হল।

অন্যদিনের মতোই হেলমেট ছাড়া বাইক নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান দোকানে যাওয়ার জন্য। রাস্তায় এবার সত্যিই এক পুলিশকর্মী আটকান তাঁকে। বলেন হেলমেট নেই জরিমানা দিতে হবে। তখন জাকির বলেন, তিনি আইন মেনেই চলেন। কিন্তু হেলমেট তিনি পরতে পারেন না। কারণ গোটা বাজার ঘুরেও তাঁর মাথার মাপের কোনও হেলমেট খুঁজে পাননি। শুনে কিছুটা অবাকই হন পুলিশ কর্মীরা। কিন্তু তাঁরাও দেখেন সত্যিই জাকিরের মাথা একটু বড়। পরীক্ষা করেও দেখেন হেলমেট দিয়ে। দেখা যায় হেলমেট জাকিরের মাথায় ঢুকছে না।

আরও পড়ুন : ৩০ কোটি বছরের পুরনো প্রাণী ভেজে খেলেন মত্স্যজীবী

আরও পড়ুন : এনকাউন্টার স্পেশালিস্ট সেজে সাত মহিলাকে বিয়ে, অন্য ছয় মহিলার শ্লীলতাহানি

এরপর আর কী করা যায়। সমস্যা যখন সত্যি এমন অদ্ভুত, তখন পুলিশও ছেড়ে দেন জাকিরকে। বোদেলির এক ট্রাফিক আধিকারিক বলেন, জাকিরের সমস্যার কোনও সমাধান তাঁদের হাতে এই মুহূর্তে নেই। আর জাকির সত্যিই আইন মেনে চলা মানুষদের একজন। তিনি হেলমেট পরতে না পারলেও বাকি সমস্ত কাগজপত্র সঙ্গে রাখেন। ফলে তাঁকে জরিমানা করা হয়নি।