গ্রামের পঞ্চায়েতের কার্যালয়। সেখানে উপস্থিত রয়েছেন পঞ্চায়েতের প্রধান। তাঁকে ঘিরে সে সময় অফিসে রয়েছেন বেশ কয়েক জন ব্যক্তি। সেখানে দেখা যাচ্ছে এক মহিলাকেও। সেই মহিলা চেয়ারে বসে ছিলেন। তার পর উঠে গেলেন। তখনই পঞ্চায়েত প্রধান তাঁর পিছু নিলেন। ঘরের মধ্যে সেই মহিলা এদিক ওদিক যাচ্ছেন প্রধানকে পাশ কাটিয়ে। আর ওই মহিলার পিছনে ছুটছেন প্রধান। তার পর চেয়ারে বসিয়ে, কিছু জোর করে জড়িয়ে ধরে মহিলাকে চুম্বন করলেন ওই পঞ্চায়েত প্রধান।

এই ঘটনার ভিডিয়ো সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়ে সোশ্যাল মিডিয়ার বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে। তার পরই ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিয়ো।  বিষয়টি নিয়ে শুরু হয়েছে আলোচনা। জানা গিয়েছে, হিমাচল প্রদেশের হামিরপুরা জেলার একটি গ্রাম পঞ্চায়েতের ভিতর ঘটেছে ঘটনাটি। তবে কোন প়ঞ্চায়েতের ঘটনা তা জানা যায়নি। জানা যায়নি, ঘটনায় অভিযুক্ত ওই পঞ্চায়েত প্রধানের নাম ও মহিলার পরিচয়।

তবে এই ভিডিয়ো ভাইরাল হতেই বেশ কয়েকটি প্রশ্ন উঠে আসছে। ওই মহিলা কী স্বেচ্ছায় এসেছিলেন পঞ্চায়েতে? না তাঁকে জোর করে আনা হয়েছিল। মহিলার সঙ্গে প্রধানের কি সম্পর্ক রয়েছে? তবে এই ঘটনার জন্য কোনও অভিযোগ দায়ের হয়েছে কি না তাও জানা সম্ভব হয়নি।

আরও পড়ুন: সময় দিচ্ছেন না ইউপিএসসি পরীক্ষার প্রস্তুতিতে ব্যস্ত স্বামী, ডিভোর্স চাইল স্ত্রী!

আরও পড়ুন: তরুণীর কুর্নিশযোগ্য কৃতিত্বে আন্তর্জাতিক মঞ্চে উদ্ভাসিত ভারত