সেই অবাক করা ঘটনাই ঘটে চলেছে আমাদের সৌরমণ্ডলে| একটা নয়| দু দুটো চাঁদ নাচানাচি করে চলেছে সৌরমণ্ডলের অনেক অনেক দূরে থাকা "বরফের রাজ্য" গ্রহ নেপচুনে|

একটির নাম "নাইয়াদ"| অন্যটি "থালাসা"| এমন ঘটনা এর আগে অন্য কোনও সৌরমণ্ডলেও দেখা যায়নি| 

চাঁদের এই নাচানাচির খবর বেরিয়েছে আন্তর্জাতিক বিজ্ঞান-জার্নাল "আইকারাস"-এ| ১৩ নভেম্বর সংখ্যায়|

নেপচুনের এখনও পর্যন্ত আবিষ্কৃত ১৪ টি চাঁদের মধ্যে ৭ টি রয়েছে খুব কাছে| তাদের মধ্যে সবচেয়ে কাছে রয়েছে দুটি চাঁদ|   নাইয়াদ আর থালাসা| 

নাইয়াদ রয়েছে সবচেয়ে কাছে| নেপচুনকে প্রদক্ষিণ করতে সময় নেয় ৭ ঘন্টা| আর থালাসা সময় নেয় সাড়ে ৭ ঘন্টা| কক্ষপথে নেপচুনকে প্রদক্ষিণের সময় নাইয়াদ আর থালাসার মধ্যে দূরত্ব থাকে গড়ে এক হাজার আটশো কিলোমিটারের মতো|

আরও পড়ুন-ব্যর্থতা থেকে শিক্ষা নিয়ে আগামী এক বছরের মধ্যে ফের চাঁদে নামার প্রস্তুতি ইসরোর

নাসার জেট প্রপালসান ল্যাবরেটরির সিনিয়র রিসার্চ সায়েন্টিস্ট গৌতম চট্টোপাধ্যায় বলছেন "এটা খুবই অভিনব ঘটনা| অন্য সৌরমণ্ডলেও চাঁদের নাচানাচি এখনও পর্যন্ত দেখা যায়নি|"

দেখুন চাঁদের নাচানাচি ( ভিডিয়ো সৌজন্য: নাসা) 

 

কেন ওই দুটি চাঁদের নাচানাচি নেপচুনে? 

গৌতম জানাচ্ছেন, দুটি চাঁদ খুব কাছ থেকে নেপচুনকে প্রদক্ষিণ করছে| দুটি চাঁদের মধ্যে দূরত্ব খুব কম| তাই নিজেদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি এড়াতে ওরা ওই ভাবে ঘুরছে| নেপচুনের অভিকর্ষ বল দুটি চাঁদকে ওই ভাবেই ঘোরাচ্ছে|

আরও পড়ুন-বিজ্ঞানে কেন নোবেল নেই বাঙালির ঘরে?

 

কী ভাবে দুটি চাঁদ নাচছে? 

নাসার গবেষকরা জানিয়েছেন থালাসা থেকে দেখলে মনে হবে নাইয়াদ তাকে নীচ দিয়ে দুবার পাক মারছে দিনে| আবার ওপর দিয়েও পাক মারছে দুবার|

কী ভাবে ওই দুটি চাঁদের জন্ম হয়েছিল? 

গবেষণাপত্রে বিজ্ঞানীরা লিখেছেন, সম্ভবত নেপচুনের সবচেয়ে বড় চাঁদ "ট্রাইটন"-এর জন্মের সময়েই ওই দুটি ছোট চাঁদের জন্ম হয়েছিল|