Advertisement
২৭ নভেম্বর ২০২২

বয়সের লাবণ্যে বলিরেখা নয়

কীভাবে মুক্তি পাবেন রিংকলস থেকে? জেনে নিন সমাধানকীভাবে মুক্তি পাবেন রিংকলস থেকে? জেনে নিন সমাধান

মডেল: অনিন্দিতা, মেকআপ: অভিজিৎ চন্দ, ছবি: সোমনাথ রায়

মডেল: অনিন্দিতা, মেকআপ: অভিজিৎ চন্দ, ছবি: সোমনাথ রায়

সোহিনী দাস
শেষ আপডেট: ০৩ জুন ২০১৭ ১২:৪৫
Share: Save:

কবি যতই বলুক ‘মুখ তার শ্রাবস্তীর কারুকার্য’, ভেবে দেখুন তো সত্যিই তেমন হলে কী সব্বোনাশই না হতো!

Advertisement

ছোট্ট একটুখানি ব্রণ বা ফুসকুড়ি, তার দাগ ঢাকতেই হিমশিম খান আজকের বনলতারা, তার উপর গোদের উপর বিষফোঁড়া বলিরেখা।

বয়সের চাকা একটু ঘুরতে না ঘুরতেই হালকা করে মুখে জায়গা নিচ্ছে দাগ, চোখের তলায় কালচে ছাপগুলো আর অনেক কষ্টেও লুকোতে পারছে না আয়নাটা। আর এ সবের চক্করে আপনার আত্মবিশ্বাসের পারদটাও ক্রমশ সিঁড়ি বেয়ে নীচের দিকে। বয়সের হাজারটা প্রমাণপত্র থাকতে মুখ কেন জানাবে আপনার বয়স?

তবে শুধু মাত্র বয়স লুকোতেই নয়, নিজেকে এবং নিজের ত্বক ভাল রাখতে জেনে নিন বলিরেখা নিয়ে চটজলদি কিছু সমাধান।

Advertisement

কেন বলিরেখা?

বয়সের সঙ্গে-সঙ্গে কোষ বিভাজনের গতি কমে আসে। ফলে পাতলা হতে থাকে ত্বকের ডারমিস স্তর। চামড়াকে টানটান করে ধরে রাখতে সাহায্য করে কোলাজেন নামক একটি বিশেষ প্রোটিন। বয়স বাড়লে ক্ষয়ে যেতে থাকে সেই প্রোটিন, যার ফলে ত্বক পাতলা ও ভঙ্গুর হতে থাকে।

চামড়ার স্থিতিস্থাপকতা আসে ইলাস্টিন নামক উপাদান থেকে, ত্বকের আর্দ্রতা ধরে রাখতেও সাহায্য করে এটি। বয়স বাড়লে ক্ষয়ে যেতে থাকে সেটিও। ত্বকের সবচেয়ে গভীর স্তর ঝুলে পড়ে, ফলে সেই প্রভাব পড়ে ত্বকের অন্যান্য স্তরের উপর। শুকিয়ে যায় ত্বকের তৈলগ্রন্থিও। ফলে ক্রমশ শুষ্ক হয়ে যায়। কমে যায় প্রতিরক্ষা শক্তিও।

পুরুষদের চেয়ে বলিরেখার সমস্যায় বেশি ভোগেন মেয়েরা। নেদারল্যান্ডের এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে, পুরুষের ঠোঁটের চারপাশে সোয়েট (sweat gland) নামক এক ধরনের বিশেষ গ্রন্থি বেশি থাকায় তাঁদের বলিরেখার পরিমাণ কম। সাধারণ ভাবে মনে করা হয়, তিরিশের পর থেকেই বলিরেখা পড়তে শুরু করে। তবে কুড়ির পর থেকেই সতর্ক হলে এড়ানো যেতে পারে অসময়ে বুড়িয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা। খাবারের অভ্যেসে সামান্য বদল এনেই আমরা বলিরেখার সমস্যা থেকে অনেকটা মুক্তি পেতে পারি।

কী কী খাব

বলিরেখা ঠেকাতে পারে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। ফলে রোজের খাবার তালিকায় রাখুন প্রচুর অ্যান্টি অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ খাবারদাবার।

খাদ্য তালিকায় থাকুক তাজা ফলমূল। পাকা কলা, পেঁপে, পাকা আম, পাকা পেয়ারা, লাল তরমুজ বেদানার মতে রঙিন ফল। খান বেশি পরিমাণে শাকসবজি, পালংশাক, লাউশাক, কুমড়ো, ঢেঁড়স, গাজর, বাঁধাকপি, টম্যাটো, ক্যাপসিকামেও থাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট।

কোল্ড ড্রিঙ্কসের বদলে তালিকায় থাকুক ডাবের জল। প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-সি যুক্ত খাবার খান। ভিটামিন সি-তেও রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট যা আমাদের কোষাবরণকে মজবুত করতে সাহায্য করে। রোজ খান বাদাম জাতীয় ফল। চিনাবাদাম, পেস্তা, আখরোট ইত্যাদি বলিরেখা ঠেকাতে অত্যন্ত উপকারী।

সাধারণ চায়ের বদলে সকাল-বিকেল গ্রিন টি খেতে ভুলবেন না। মেনুতে থাকুক মাছের পদ।

সতর্ক হোন

এড়িয়ে চলুন রোদ, নিয়মিত ব্যবহার করুন সানস্ক্রিন লোশন। সিগারেট বা মদ্যপানের অভ্যেস থাকলে তা বন্ধ করুন আজই। প্রচুর পরিমাণে জল খান। এতে ত্বকের আর্দ্রতা বজায় থাকবে।

বাড়িতেও ব্যবহার করুন হালকা কোনও ময়শ্চারাইজিং লোশন। খেয়াল রাখুন, প্রতিদিন পর্যাপ্ত পরিমাণে ঘুম হচ্ছে তো? ঘুম না হলেও কিন্তু বাড়তে পারে বলিরেখা। মানসিক চাপের থেকেও কম বয়সে বলিরেখার প্রকোপ পড়ে।

কয়েকটি ঘরোয়া টোটকা

রোজ মুখে অলিভ অয়েল মাসাজ করুন। মধু, অলিভ অয়েল ও গ্লিসারিন দিয়ে একটি প্যাক বানিয়ে দিনে দু্’বার করে মুখে মাখুন। এর ফলে মুখের মৃত কোষ উঠে যাবে। মেথি পাতা বেটে মুখে সারারাত লাগিয়ে রাখুন। সকালে উঠে ঈষদুষ্ণ জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। অ্যালো ভেরা পাতা থেকে বের করে নিন জেল অংশটুকু। মুখে মেখে ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন।

আদার মধ্যে থাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। আদা ও মধু দিয়ে একটি প্যাক তৈরি করে রোজ সকালে মাখুন। আদা চা খেতে পারলেও উপকার পাবেন। দু’টো কলা চটকে মুখে মেখে নিন। আধঘণ্টা রেখে ঈষদুষ্ণ গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। আগের দিন রাতে দুধের মধ্যে কয়েকটা আমন্ড ভিজিয়ে রাখুন। পরের দিন সকালে খোসা ছাড়িয়ে একটি ঘন পেস্ট বানিয়ে মুখে মাখুন। ২০-৩০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। আসলে বাচ্চাদের মতোই ত্বকও চায় আপনার অল্প একটু মনোযোগ। কেবল সুন্দর দেখাতেই নয়, নিজের কাছে নিজেকে ভাল রাখতেও একটা ছোট্ট চেষ্টাই কিন্তু আপনাকে বানিয়ে তুলতে পারে আত্মবিশ্বাসী, বাড়ি থেকে শুরু করে অফিস, কাছারি সর্বত্র। তবে এ বার আর বয়সের ভারে নয়, বয়সের লাবণ্যে আর অভিজ্ঞতায় হয়ে উঠুন আরও একটু ঝলমলে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.