Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

‘স্লো’ হয়ে যাচ্ছে পুরনো মডেল, কম দামে ব্যাটারি পাল্টে দেবে অ্যাপল

টিলার বার্নি নামে ওই কিশোর জানিয়েছে, অনেক দিন ধরেই তার সাধের আইফোন ৬-এর সিস্টেম ‘স্লো’ হয়ে আসছিল। তারপর সে আবিষ্কার করে, ফোনের লিথিয়াম আয়ন ব

সংবাদ সংস্থা
২৯ ডিসেম্বর ২০১৭ ১৬:২১
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

আইফোনের পুরনো মডেলগুলি ধীরে কাজ করছে। ব্যাটারিও অনেক স্লো, চার্জআপ হতে অনেক সময় নিচ্ছে।

এমনই বহুবিধ অভিযোগ শোনা যাচ্ছিল আইফোনের নির্মাতা সংস্থা অ্যাপলের বিরুদ্ধে। এ বার সরাসরি গোটা বিষয়টি রেডিট ওয়েবসাইটের পাতায় তুলে ধরল বছর সতেরোর এক কিশোর। শুধু তাই নয়, সমস্যার পাশাপাশি, সমাধান সূত্রও বাতলাল সে।

টিলার বার্নি নামে ওই কিশোর জানিয়েছে, অনেক দিন ধরেই তার সাধের আইফোন ৬-এর সিস্টেম ‘স্লো’ হয়ে আসছিল। তারপর সে আবিষ্কার করে, ফোনের লিথিয়াম আয়ন ব্যাটারির কারণেই এই দুর্গতি। ব্যাটারি পরিবর্তন করার পরই সমস্যা মিটে যায়।

Advertisement

আরও পড়ুন:

অ্যানড্রয়েড ফোনের জন্য সেরা ৫ ফোটো এডিটিং অ্যাপ

ফোনের আইএমইআই নম্বর জানেন তো? নইলে বিপদে পড়তে পারেন

টিলারের পোস্ট ভাইরাল হয়ওয়ার পর তা নজরে আসে অ্যাপল কর্তৃপক্ষেরও। গত বৃহস্পতিবার, অ্যাপলের তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়, ‘‘আমরা বুঝতে পারছি গ্রাহকেরা কিছু সমস্যার মধ্যে পড়েছেন। এই অনিচ্ছাকৃত ত্রুটির জন্য আমরা দুঃখিত। গ্রাহকদের সবচেয়ে ভাল এবং সেরা পরিষেবা দেওয়াই আমাদের লক্ষ্য। সমস্যার দ্রুত এবং সন্তোষজনক সমাধানের চেষ্টা করব।’’ সেই সঙ্গে কম দামে ব্যাটারি দেওয়ার কথাও ঘোষণা করে অ্যাপল। সাধারণত আইফোনের পুরনো ব্যাটারির বদলে নতুন ব্যাটারি কিনতে দাম পড়ে ৭৯ মার্কিন ডলার বা ভারতীয় টাকায় প্রায় পাঁচ হাজার টাকা। সেখানে এখন ৫০ মার্কিন ডলার বা প্রায় তিন হাজার টাকায় ব্যাটারি পরিবর্তন করা সম্ভব হবে।

আইফোনের ব্যাটারির সমস্যা নিয়ে অভিযোগ ভুরি ভুরি। এর আগে ‘গিকবেঞ্চ’ সফটওয়্যার সিস্টেমের কর্ণধার জন পুল জানিয়েছিলেন, আইওএস ১০.২.০ ভার্সনের পারফরম্যান্স খুব খারাপ। ব্যাটারিগুলোও পুরনো হয়ে গিয়েছে। পরে, ওই ভার্সনের সফটওয়্যার আপডেট করে অ্যাপল।

আইফোনের পুরনো মডেলগুলি ‘স্লো’ হয়ে যাওয়ার কারণে মামলার মুখেও পড়তে হয়েছে অ্যাপলকে। বাজারে নতুন মডেলর দর বাড়াতে ইচ্ছাকৃত ভাবে পুরনো মডেল ‘স্লো ডাউন’ করে দেওয়া হচ্ছে এমন অভিযোগও ওঠে। তবে ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছে অ্যাপল।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement