• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ঘুরে দাঁড়াতে আজ ইস্টবেঙ্গলের অস্ত্র ক্রোমা ও কাশিম

east bengal
পরীক্ষা: কোয়ম্বত্তূরে পৌঁছে গেলেন ক্রোমা, মেহতাবরা (ডান দিকে)। নিজস্ব চিত্র

Advertisement

অগ্নিপরীক্ষা! 

ডার্বি-সহ আই লিগের শেষ তিনটি ম্যাচে হেরে লিগ টেবলের সপ্তম স্থানে নেমে এসেছে ইস্টবেঙ্গল। তার চেয়েও বড় ধাক্কা, কোচের পদ থেকে আলেসান্দ্রো মেনেন্দেস গার্সিয়ার পদত্যাগ। লাল-হলুদ শিবিরের অন্দরমহলের আবহ নাটকীয় ভাবে বদলে গিয়েছে গত কয়েক দিনে। স্পষ্ট হয়ে উঠেছে বিভাজনও। এই পরিস্থিতিতে লড়াই তো শুধু মাঠের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই। ছড়িয়ে পড়েছে মাঠের বাইরেও!

নতুন কোচ মারিয়ো রিভেরা এখনও দলের সঙ্গে যোগ দেননি। সহকারী বাস্তব রায় এক দিকে মানসিক ভাবে বিধ্বস্ত ফুটবলারদের উদ্বুদ্ধ করছেন। অন্য দিকে চেন্নাইকে হারানোর নকশা বানাচ্ছেন। শুক্রবার বিকেল তিনটে নাগাদ কোয়েম্বত্তূর পৌঁছয় ইস্টবেঙ্গল। সাংবাদিক বৈঠকে বাস্তব বললেন, ‘‘কঠিন পরিস্থিতি। তাই এই ম্যাচটা জিতে ঘুরে দাঁড়ানোর লক্ষ্যেই আমরা এসেছি।’’ এর পরেই তিনি যোগ করেছেন, ‘‘ফুটবলে এ রকম হয়েই থাকে। উত্থান-পতন তো থাকবেই। সব ভুলে আমাদের এখন শুধু সামনের দিকে তাকাতে হবে।’’ 

মরণ-বাঁচন ম্যাচের আগে সমস্যা একটা নয় লাল-হলুদ শিবিরে। রক্ষণের অন্যতম ভরসা মার্তি ক্রেসপি কার্ড সমস্যায় ছিটকে গিয়েছেন। আর এক ডিফেন্ডার সামাদ আলি মল্লিকের চোট। প্রধান স্ট্রাইকার মার্কোস খিমেনেস দে লা এসপারা মার্তিনের খেলায় অনেকেই হতাশ। এই অবস্থায় ইস্টবেঙ্গলের ভরসা এখন দু’জন। সদ্য যোগ দেওয়া আনসুমানা ক্রোমা ও কাশিম আইদারা। প্রথম জন কলকাতা লিগে পিয়ারলেসের চ্যাম্পিয়ন হওয়ার নেপথ্যে ছিলেন। সর্বোচ্চ গোলদাতাও হয়েছিলেন তিনি। চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে তিনিই হতে চলেছেন ইস্টবেঙ্গলের প্রধান অস্ত্র। কাশিমকে খেলানো হতে পারে রক্ষণে। কারণ, ক্রেসপি-সামাদ নেই। মেহতাব সিংহ ও আশির আখতারের পক্ষে চেন্নাইয়ের আক্রমণের ঝড় থামানো সম্ভব কি না, তা নিয়ে অনেকেই দ্বিধায়। এই কারণেই বড় চেহারার কাশিমকে খেলানো হতে পারে।

আরও পড়ুনটাইব্রেকারে অবিশ্বাস্য জয় অদম্য ফেডেরারের

প্রশ্ন উঠছে, মাত্র এক দিন দলের সঙ্গে অনুশীলন করা ক্রোমাকে কি চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে শুরু থেকেই খেলানো হবে? না কি আলেসান্দ্রোর দর্শন অনুযায়ী, সদ্য যোগ দেওয়ায় পরিবর্ত হিসেবে নামানো হবে তাঁকে? লাল-হলুদ শিবিরের খবর, শুরু থেকেই খেলার সম্ভাবনা প্রবল ক্রোমার। লাইবিরীয় স্ট্রাইকার নিজেও ছটফট করছেন মাঠে নামার জন্য। শোনা যাচ্ছে, মার্কোস নিজেও ক্রোমাকে চাইছেন তাঁর পাশে। এ ছাড়া বদলাতে পারে গোলরক্ষকও। আলেসান্দ্রোর পছন্দ ছিলেন লালথুয়ামাওয়াইয়া রালতে। তাঁর পরিবর্তে শনিবার খেলার সম্ভাবনা ক্রমশ বাড়ছে মিরশাদ মিচুর।

ইস্টবেঙ্গলের মতো না হলেও পরিস্থিতি খুব একটা অনুকূলে নেই চেন্নাইয়েরও। গত বারের আই লিগ চ্যাম্পিয়নরা এই মুহূর্তে লিগ টেবলের অষ্টম স্থানে। তার উপরে পেদ্রো মানজ়ি, নেস্তর গর্দিলোর মতো তারকারা এই মরসুমে নেই। এই ম্যাচে কোচ আকবর নওয়াজের ভরসা ইস্টবেঙ্গলেরই প্রাক্তন কাতসুমি ইউসা। জাপানি তারকার কথায়, ‘‘ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে খেলার জন্য ছটফট করছি।’’ 

শনিবার আই লিগে:

চেন্নাই সিটি এফসি বনাম ইস্টবেঙ্গল (সন্ধে ৭.০০, ডি স্পোর্টস চ্যানেলে)।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন