• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পাকিস্তান বিরুদ্ধে সিরিজ জিতল অস্ট্রেলিয়া, চ্যাপেলে বিদ্ধ স্মিথ

Smith and Paine
বিতর্ক: পেনের সিদ্ধান্তে স্মিথের হস্তক্ষেপ নিয়ে উঠছে প্রশ্ন। এএফপি

Advertisement

দিনরাতের টেস্টে অস্ট্রেলিয়ার দাপট অব্যাহত। এই নিয়ে ছ’টি দিনরাতের টেস্ট খেলে ছ’টিতেই জিতল অস্ট্রেলিয়া। সোমবার অ্যাডিলেডে পাকিস্তানকে এক ইনিংস ও ৪৮ রানে চূর্ণ করে সিরিজ ২-০ জিতে নিল টিম পেনের দল।

গোলাপি বলে প্রথম ইনিংসে পাকিস্তান ব্যাটিংকে ভেঙেছিলেন বাঁ-হাতি পেসার মিচেল স্টার্ক। দ্বিতীয় ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার বোলারদের মধ্যে নায়ক অফস্পিনার নেথান লায়ন। সোমবার, টেস্টের চতুর্থ দিনে তিনি ৬৯ রান দিয়ে পাঁচ উইকেট নিলেন। পাকিস্তানের দ্বিতীয় ইনিংস শেষ হয়ে যায় ২৩৯ রানে। জশ হেজলউড নেন তিন উইকেট। 

ওয়ার্নারদের এই দাপটের মধ্যেও অবশ্য বিতর্ক দেখা দিয়েছে। যে বিতর্ক তৈরি করেছেন অস্ট্রেলিয়ারই প্রাক্তন অধিনায়ক ইয়ান চ্যাপেল। তিনি মনে করেন, ফিল্ডিং করার সময় অধিনায়ক পেনের উপরে খবরদারি দেখাতে শুরু করেছিলেন স্টিভ স্মিথ। এমনকি, অধিনায়ককে উপেক্ষা করেই নিজের পছন্দ মতো ফিল্ডিং সাজিয়েছেন প্রাক্তন অধিনায়ক স্মিথ।

আরও পড়ুন: রোনাল্ডোকে টপকে দুরন্ত মেসির ষষ্ঠ ব্যালন ডি’ওর জয়

এ দিন এক রেডিয়ো চ্যানেলে চ্যাপেল মন্তব্য করেছেন, ‘‘আমার একটা ঘটনা মোটেই ভাল লাগেনি। দেখলাম, স্মিথ নিজেই কয়েক জন ফিল্ডারের জায়গা বদল করছে।’’ ঠিক কী হয়েছিল? চ্যাপেলের কথায়, ‘‘দেখলাম, পেনের সঙ্গে কথা বলছে স্মিথ। মনে হল, অফসাইডে এক জন ফিল্ডারকে সরানোর কথা বলছে। এ-ও মনে হল, স্মিথ যত দূরে ফিল্ডারকে সরাতে চেয়েছিল, তত দূরে সরায়নি পেন। এর পরে স্মিথ নিজেই ওই ফিল্ডারকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেয়। যেটা মোটেই ঠিক কাজ নয়।’’

চ্যাপেল আরও অভিযোগ করেছেন, স্মিথ ‘হোয়াইট অ্যান্টিং’ করছিলেন পেনকে। ‘হোয়াইট অ্যান্টিং’ শব্দটা অস্ট্রেলীয়রা বিশেষ করে ব্যবহার করেন একটা ব্যাপার বোঝাতে। সেটা হল, কাউকে যখন ভিতরে ভিতরে পদচ্যুত করার চেষ্টা করা হয়। এ ক্ষেত্রে চ্যাপেলের ইঙ্গিত, পেনকে হয়তো নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার একটা চেষ্টা শুরু হয়েছে।

আরও পড়ুন: ভারতে এসে ব্লেক: সৌরভকে বলব, ঘণ্টা বাজাতে চাই ইডেনে

তবে স্মিথ নিয়ে বিতর্কের মধ্যেও অস্ট্রেলিয়ার দাপট নিয়ে প্রশ্ন ওঠার কোনও জায়গা নেই। প্রথম ইনিংসে তা-ও লড়াইয়ের চেষ্টা করেছিলেন ইয়াসির শা। জীবনের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি করে। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে পাকিস্তান আরও অসহায় ভাবে আত্মসমর্পণ করে। সর্বোচ্চ রান ওপেনার শান মাসুদের (৬৮)। ইয়াসির ফিরে যান ১৩ রান করে। সিরিজ হারার পরে পাক অধিনায়ক আজহার আলির আফসোস, কেন তাঁরা এই সফরের জন্য আরও ভালভাবে প্রস্তুতি নিয়ে আসেননি।  

দুরন্ত ট্রিপল সেঞ্চুরি করে এই টেস্টের সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত হয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নার। সিরিজ সেরাও তিনি। ম্যাচের পরে ওয়ার্নার বলেছেন, ‘‘ভাগ্যিস, আমাদের আর দ্বিতীয় বার ব্যাট করতে হয়নি। গত কাল প্রচণ্ড ক্লান্ত ছিলাম। সোফায় বসেই ঘুমিয়ে পড়ি।’’ অস্ট্রেলিয়ার সামনে এ বার নিউজ়িল্যান্ড। ওয়ার্নার পরিষ্কার বলে দিয়েছেন, এখন থেকেই সেই সিরিজের প্রস্তুতি শুরু হয়ে যাবে। 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন