• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

করোনা লড়াইয়ে ম্যান ইউ, বার্সার সঙ্গে দুই প্রধানও

coronavirus
ছবি: এপি।

করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রচার চালাতে বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদ, লিভারপুল, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের মতো বিশ্বের নামী ক্লাবগুলির সঙ্গে মোহনবাগান এবং ইস্টবেঙ্গলকেও সামিল করল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ‘হু’ এবং ফিফা।  

জানা গিয়েছে, ‘পাস দ্য মেসেজ টু কিক আউট করোনাভাইরাস’—  ফুটবলের ভাষায় তৈরি করা এই স্লোগান নিয়ে করোনা অতিমারি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য নানা ভিডিয়ো তৈরি করা হবে। তাতে লিয়োনেল মেসি, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোদের পাশাপাশি দেখা যেতে পারে জোসেবা বেইতিয়া, শেখ সাহিল, খাইমে সান্তোস কোলাদো, সামাদ আলি মল্লিকদের। দুই কোচ কিবু ভিকুনা, মারিয়ো রিভেরাদের পাশাপাশি বসিয়ে করোনা সচেতনতা নিয়ে প্রচার চালানো হতে পারে। 

ফিফা এবং ‘হু’, দুই সংস্থাই চাইছে সদস্য-সমর্থকদের মধ্যে যাদের প্রভাব বেশি তাদের দিয়ে প্রচার চালাতে। ফিফার বিভিন্ন চ্যানেলে, সোশ্যাল মিডিয়ায় নিয়মিত ভাবে তা দেখানো হবে। বিশ্ব ফুটবল সংস্থার নথিভুক্ত ২১১টি দেশের বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমেও এগুলো দেখানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। বিশ্বের বিভিন্ন নামী ক্লাবের সঙ্গে এক নিঃশ্বাসে ইস্টবেঙ্গল, মোহনবাগানের নাম নেওয়াটা নিঃসন্দেহে কলকাতা ফুটবল ময়দানের জন্য বিরাট এক স্বীকৃতি।  

আরও পড়ুন: একটা ক্যাচ ধোনিদের তাতিয়ে দিয়েছিল ২০১১ সালের ফাইনালে, রহস্য ফাঁস করলেন সচিন

মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলকে কী করতে হবে, তা জানানো হবে ধাপে ধাপে। যেমন মঙ্গলবারই হু-র পক্ষ থেকে একটি করোনা-সচেতনতা বার্তা পাঠানো হয়েছে দুই ক্লাবকে। জানানো হয়েছে, ক্লাবের দুই ফুটবলারকে দিয়ে বাংলা এবং হিন্দিতে একটি ভিডিয়ো তৈরি করতে হবে। তা পাঠাতে হবে ‘হু’-র ভারতীয় প্রতিনিধির কাছে।   

ভারতে বহু ক্লাব থাকা সত্ত্বেও ফিফা শুধু কলকাতার দুই প্রধানকেই বেছে নেওয়ার কারণ, দুই ক্লাবের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বিতা এবং সদস্য-সমর্থক সংখ্যা। দুই ক্লাবের ডার্বি দেখতে এখনও সব চেয়ে বেশি ভিড় হয় মাঠে। তা ছাড়া সবুজ-মেরুন এবং লাল-হলুদ সমর্থকেরা ছড়িয়ে রয়েছেন শুধু ভারতের বিভিন্ন প্রান্তে নয়, বিশ্ব জুড়েও। ফিফা এবং ‘হু’ কর্তারা যে বার্তা দিতে চেয়েছেন তা হল, মাঠে যে বিভেদই থাকুক করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে সবাই এক। সে জন্যই স্পেনের দুই প্রবল প্রতিপক্ষ লিয়োনেল মেসিদের বার্সেলোনা এবং র‌্যামোসদের রিয়াল মাদ্রিদকে বাছা হয়েছে একযোগে প্রচার চালানোর জন্য। ইংল্যান্ড থেকে নেওয়া হয়েছে লিভারপুল এবং ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডকে। এই ভাবনা থেকেই ব্রাজিল, অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাষ্ট্রের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাবগুলিকে বাছা হয়েছে। সব ক্লাবকেই জানানো হয়েছে, একযোগে প্রচার চালাতে। এই লড়াইয়ে অন্য যে ক্লাবগুলিকে সামিল করা হয়েছে তাদের মধ্যে রয়েছে ক্লাব আমেরিকা ও সিডি গুয়াডালজেরা (মেক্সিকো), বেজিং গুয়ান এফ সি ও সাংহাই সেনহুয়া এফ সি (চিন),  মেলবোর্ন সিটি এফ সি ও সিডনি এফ সি (অস্ট্রেলিয়া), অকল্যান্ড সিটি এফ সি ও টিম ওয়েলিংটন এফসি (নিউজ়িল্যান্ড), রিভারপ্লেট (আর্জেন্টিনা), অলিম্পিক দ্য মার্সেই (ফ্রান্স), টিপি মাজেম্বে (কঙ্গো), ফ্ল্যামেঙ্গো ও পালমেইরাস (ব্রাজিল)।

বিশ্বের সেরা ক্লাবগুলির সঙ্গে তাদেরও এক আসনে বসানোয় দুই ক্লাবের কর্তারা উচ্ছ্বসিত। করোনার বিরুদ্ধে একযোগে লড়াইয়ে নামতেও প্রস্তুত তাঁরা। ইস্টবেঙ্গলের প্রেসিডেন্ট ডাক্তার প্রণব দাশগুপ্ত বললেন, ‘‘এটা ক্লাবের কাছে বিরাট সম্মানের। করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আমরা দুই ক্লাব একসঙ্গে কাজ করব। হু থেকে যা নির্দেশ আসবে, তা-ই করব।’’ আর মোহনবাগান সচিব সৃঞ্জয় বসু বললেন, ‘‘বার্সেলোনা, রিয়াল মাদ্রিদের মতো নামী ক্লাবেদের সঙ্গে আমাদের দুই ক্লাবকেও সামাজিক কাজের জন্য ফিফা যে বেছে নিয়েছে, এটা গর্বের।  ফিফা একটি বার্তা লিখে পাঠিয়েছে আমাদের। তবে সেটি শুধু ভারতে এবং নিজেদের রাজ্য বা শহরে প্রচারের জন্য। বাংলা এবং হিন্দিতে করোনা নিয়ে সচেতনতা গড়ে তোলার বার্তা দেবেন আমাদের ফুটবলারেরা।’’

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন