• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

চার দিনের ম্যাচ হলে সেটা টেস্টই নয়, বলে দিলেন কুম্বলে

Kumble
এখন মাঠে না আসতে পারলেও ফোনে টেস্টের খবর রাখেন ক্রিকেটপ্রেমীরা, বলেছেন কুম্বলে। ছবি: পিটিআই।

২০২৩ সাল থেকে চার দিনের টেস্টকে বাধ্যতামূলক করার কথা ভাবছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল। ভারতের প্রাক্তন অধিনায়ক অনিল কুম্বলে অবশ্য চার দিনের টেস্টের প্রয়োজন আছে বলে মনে করছেন না।

এর আগে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালি ও রোহিত শর্মা চার দিনের টেস্টের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন। এ বার এক ক্রিকেট ওয়েবসাইটে কুম্বলে সেই সুরেই বলেছেন, “ক্রিকেটাররাও চার দিনের টেস্ট চাইছে না। পাঁচ দিনের টেস্টই হল টেস্ট। পাঁচ দিন ধরে খেলা চলে বলেই এটা টেস্ট। চার দিনে শেষ হলে তা আর টেস্ট থাকে না। আমার কাছে এটা একেবারেই স্পষ্ট।”

আরও পড়ুন: ‘ব্যাটসম্যানদের নিয়ে বেশি ভাবলে নিজের বোলিং নিয়ে ভাবার সময় কম পড়ে যাবে’​

কুম্বলে শুধু ভারতের প্রাক্তন অধিনায়কই নন, তিনি একসময় জাতীয় দলের কোচও ছিলেন। একসময় ক্রিকেট প্রশাসনেও পা রেখেছিলেন কুম্বলে। আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের ক্রিকেট কমিটির চেয়ারম্যানও ছিলেন তিনি। এখন কুম্বলেকে টিভিতে বিশেষজ্ঞ হিসেবে নিয়মিতই দেখা যায়। তিনি বলেছেন, “আইসিসির ক্রিকেট কমিটিতে কয়েক বছর আগে এই ব্যাপারে আলোচনা হয়েছিল। কিন্তু এটাতে বাধ্যতামূলক করার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়েছিল বলে মনে পড়ছে না। দক্ষিণ আফ্রিকা ও জিম্বাবোয়েকে চার দিনের টেস্ট খেলিয়ে একটা পরীক্ষা হয়েছিল। ইংল্যান্ড খেলেছিল আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে। তবে আইসিসির ক্রিকেট কমিটি ও আইসিসির মধ্যেও চার দিনের টেস্টকে বাধ্যতামূলক করার ভাবনা আছে বলে মনে হচ্ছে না। ভাল লাগছে ক্রিকেটাররাও পাঁচ দিনের টেস্টের উপরে বিশ্বাস রাখছে বলে।”

টেস্ট ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ নিয়ে উদ্বিগ্ন নন কুম্বলে। তিনি বলেছেন, “মাঠে টেস্ট ক্রিকেট দেখার জন্য বেশি লোককে টেনে আনা যাচ্ছে না। কিন্তু তা সত্ত্বেও ক্রিকেটপ্রেমীরা ঠিকই খেয়াল করছেন যে নিউজিল্যান্ডে কী ঘটছে। হয় তাঁরা ফোনে স্কোর দেখছেন বা নোটিফিকেশন মেসেজে চোখ রাখছেন। তাই টেস্ট ক্রিকেট মৃতপ্রায় বলে একেবারেই মনে করি না। তবে এটা ঠিক যে স্টেডিয়ামে গিয়ে পাঁচ দিন ধরে টেস্ট দেখার লোক কমে গিয়েছে।”

আরও পড়ুন: ঋদ্ধিকে টপকে দলে ঋষভ কেন? শাস্ত্রী বললেন...​

আরও পড়ুন: ফিট পৃথ্বী খেলবেন দ্বিতীয় টেস্টে, জানিয়ে দিলেন শাস্ত্রী

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন