• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ২০২০

ভারত-পাকিস্তান দ্বৈরথ দেখা যাবে না গ্রুপ পর্বে

ICC
চমক: এই প্রথম সমর্থকদের নিয়ে বিশ্বকাপের সূচি ঘোষণা। ট্রফি নিয়ে বিভিন্ন দেশের ক্রিকেট সমর্থকদের মধ্যে রয়েছেন সচিন ভক্ত সুধীর গৌতমও ( বাঁ দিক থেকে দ্বিতীয়)। মঙ্গলবার সিডনিতে। গেটি ইমেজেস

Advertisement

সেই ২০১১ বিশ্বকাপের পরে এই প্রথম কোনও আইসিসি প্রতিযোগিতার গ্রুপ পর্বে মুখোমুখি হচ্ছে না ভারত-পাকিস্তান। পরের বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের যে সূচি মঙ্গলবার সিডনিতে আইসিসি প্রকাশ করেছে, তাতে দেখা যাচ্ছে আলাদা আলাদা গ্রুপে রয়েছে ভারত, পাকিস্তান।

২০১১ সালের পরে পাঁচটি আইসিসি প্রতিযোগিতার গ্রুপ পর্বে এখনও পর্যন্ত মুখোমুখি হয়েছে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী এই দুই দেশ। জুন মাসে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠেয় বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বেও দেখা যাবে এই দুই দেশের দ্বৈরথ। কিন্তু ২০২০ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্বে তা হচ্ছে না। যার অর্থ, সেমিফাইনালে ওঠার আগে যদি এই দুই দেশের কোনও একটির বিদায় ঘটে, তা হলে আর ভারত বনাম পাকিস্তান ম্যাচ দেখতে পারবেন না ক্রিকেটপ্রেমীরা। 

কিন্তু কেন এই সিদ্ধান্ত আইসিসির? জানা যাচ্ছে, টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের উপরে ভিত্তি করে ২০২০ বিশ্বকাপের গ্রুপ তৈরি করা হয়েছে। র‌্যাঙ্কিংয়ে পাকিস্তান এক নম্বরে, ভারত দুই নম্বরে। ফলে এই দুই দেশকে এক গ্রুপে রাখা সম্ভব হয়নি। র‌্যাঙ্কিং অনুযায়ী, প্রথম আটটা দেশ সরাসরি বিশ্বকাপ খেলার ছাড়পত্র পেয়ে গিয়েছে। বাকি চারটে দেশ ঠিক হবে যোগ্যতা অর্জন পর্বের পরে। মূলপর্বে দু’টি গ্রুপে থাকবে ছ’টি করে দল। যার মধ্যে থেকে দুটি করে দল উঠবে সেমিফাইনালে। 

আরও পড়ুন: অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে পন্থের অগ্নিপরীক্ষা​

র‌্যাঙ্কিংয়ে নয় এবং দশ নম্বর হওয়ার কারণে যোগ্যতা অর্জন পর্ব খেলে আসতে হবে শ্রীলঙ্কা এবং বাংলাদেশের মতো দলকে। কিন্তু র‌্যাঙ্কিংয়ে রশিদ খানের আফগানিস্তান আট নম্বরে থাকার কারণে তারা সরাসরি সুপার টুয়েলভ পর্বে খেলবে। আইসিসি-র এই সূচি প্রকাশ অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন লেগস্পিনার রশিদও।  এ দিনের সূচি প্রকাশ অনুষ্ঠানে বিশেষ চমকও ছিল। বিশ্বকাপ ট্রফি নিয়ে ক্রিকেটপ্রেমীদের ছবি তোলার ব্যবস্থা করে আইসিসি। যেখানে ভারত থেকে হাজির ছিলেন সচিন তেন্ডুলকরের ভক্ত সুধীর গৌতমও। 

বিশ্বকাপের মূলপর্ব শুরু হবে ২৪ অক্টোবর, সিডনিতে পাকিস্তান বনাম অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ দিয়ে। দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে পার্‌থে ভারত মুখোমুখি হবে দক্ষিণ আফ্রিকার। পরের দিন মেলবোর্নে গত বারের চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ নামবে নিউজ়িল্যান্ডের বিরুদ্ধে। দু’টো সেমিফাইনাল হবে সিডনি এবং অ্যাডিলেডে। ফাইনাল ১৫ নভেম্বর, মেলবোর্নে।  

একই দিনে প্রকাশিত হল মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সূচিও। পরের বছর ফেব্রুয়ারিতে যে প্রতিযোগিতা শুরু হচ্ছে। ২১ ফেব্রুয়ারি, প্রতিযোগিতার প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া খেলবে ভারতের বিরুদ্ধে। এই গ্রুপে আরও আছে নিউজ়িল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা এবং যোগ্যতা অর্জন পর্ব খেলে আসা কোনও দল। 

শেষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল অস্ট্রেলিয়া। সেমিফাইনালে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে বিদায় নেয় ভারত। যে ম্যাচে মিতালি রাজকে না-খেলানো নিয়ে তুমুল বিতর্ক হয়েছিল। 

মেয়েদের বিশ্বকাপের ফাইনাল হবে মেলবোর্নে, ৮ মার্চ। সংগঠকদের আশা, মেয়েদের খেলাধুলোর ইতিহাসে রেকর্ড সংখ্যক দর্শক হবে ফাইনালে। এখনও পর্যন্ত মেয়েদের কোনও খেলায় রেকর্ড দর্শক হয়েছিল ১৯৯৯ সালে ফুটবল বিশ্বকাপ ফাইনালে, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বনাম চিনের ম্যাচে। ক্যালিফোর্নিয়ার রোজ বোল স্টেডিয়ামে যে ম্যাচ দেখতে হাজির ছিলেন ৯০,১৮৫ দর্শক। 

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন