এজবাস্টনে বন্ধুকে দ্রুত ফেরাতে চান মইন
রবিবারের হাইভোল্টেজ ম্যাচের আগে ভারত অধিনায়কের মহামূল্যবান উইকেটটি নিতে আগ্রহী ইংল্যান্ডের মইন আলি।
Moeen Ali in World Cup

ক্রিকেট বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের হয়ে মইন আলি, ছবি: এপি

আইপিএলে বিরাট কোহালির সঙ্গে একই সাজঘর শেয়ার করেছেন তিনি। দরকারের সময়ে কোহালি বল তুলে দিয়েছিলেন তাঁর হাতে। রবিবার ‘বন্ধুত্ব’ ভুলে খেলার মাঠে কোহালির দিকে তিনি ছুড়ে দেবেন চ্যালেঞ্জ।  

রবিবারের হাইভোল্টেজ ম্যাচের আগে ভারত অধিনায়কের মহামূল্যবান উইকেটটি নিতে আগ্রহী ইংল্যান্ডের মইন আলি। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের স্পিনার বলেন, ‘‘বিরাটের মতো বিশ্বমানের এক ব্যাটসম্যানের উইকেট নেওয়া সত্যিই সন্মানের। বিরাট চাইবে বড় রান করে ভারতকে জয় এনে দিতে। অন্যদিকে আমার কাজ উইকেট নেওয়া এবং দলের প্রয়োজনে রান করা।’’ মাঠের এই লড়াই অবশ্য তাঁদের বন্ধুত্বে প্রভাব ফেলবে না।

চলতি বিশ্বকাপে দুর্দান্ত ফর্মে আছেন কোহালি। বিশ্বকাপে পর পর চারটি ম্যাচে অর্ধ-শতরান করেছেন তিনি। ৫০ রানকে এখনও পর্যন্ত একশোয় পরিণত করতে ব্যর্থ ‘চিকু’। শুরুটা দারুণ করেও বড় রানের ইনিংস খেলতে আটকে যাচ্ছেন বিরাট।

কোথায় সমস্যা হচ্ছে? কেন তিনি আটকে যাচ্ছেন? এই প্রশ্নগুলোর উত্তর নিশ্চয় খুঁজছেন ভারত অধিনায়ক। এমনও হতে পারে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধেই কোহালি পৌঁছে যাবে তিন অঙ্কের ম্যাজিক ফিগারে। কিন্তু, কোহালিকে আগেই ফিরিয়ে দিতে চান মইন। তিনি বলেন, ‘‘আমি বিরাটকে অনূর্ধ্ব ১৯ খেলার সময় থেকে চিনি। আইপিএলের সুবাদে গত দু’ বছরে আমাদের বন্ধুত্ব আরও গভীর হয়েছে। আমি জানি যে কোনও ধরনের চ্যালেঞ্জ নিতে ও বরাবরই পছন্দ করে। তাই বেশি কিছু বলে ওকে আরও তাতিয়ে দিতে চাই না আমি।’’

আরও পড়ুন:বিরাট আর রেকর্ড যেন সমার্থক, কোথায় গিয়ে থামবেন চেজ মাস্টার

আয়োজক দেশ হওয়ায় ইংল্যান্ডের উপরে বাড়তি চাপ আছে বলে মানতে চান না এই ডান হাতি স্পিনার। মইন বলেন, ‘‘চাপ আমাদের থেকে ভারতীয় দলের উপরে অনেক বেশি। ভারতে ক্রিকেটারদের ঈশ্বরের আসনে বসানো হয়। ভারত জিতলে ক্রিকেট-ভক্তরা তাদের নিয়ে উল্লাসেমেতে ওঠেন। কিন্তু, হারলেই সমালোচনার ঝড় ওঠে। সেই তুলনায় আমাদের উপরে তেমন চাপ নেই।’’

ভারতীয় স্পিনাররা বিশ্বকাপে দুরন্ত ছন্দে রয়েছেন। পাঁচ ম্যাচ খেলে ‘কুল-চা’ মোট ১৪টি উইকেট নিয়েছেন এই বিশ্বকাপে। রবিবারের ম্যাচে ভারতের দুই স্পিনার ইংল্যান্ডের জয়ের পথে কাঁটা বিছিয়ে দিতে পারেন বলে মনে করছেন মইন।

আরসিবি-তে যুজবেন্দ্র চহালও মইনের সতীর্থ। ইংল্যান্ডের স্পিনার বলেন, ‘‘গত বছর ওয়ানডে সিরিজে আমরা ওদের ভালভাবে খেলতে সক্ষম হয়েছিলাম। ফলে ওই সিরিজটি আমরা জিততে পারি। রবিবারেও চাপমুক্ত হয়ে খেললে আমরাই জিতব।’’

ওপেনার জেসন রয় ভারত ম্যাচের আগে ফিট হয়ে যাবেন বলে মনে করছেন মইন। জেসন রয় ও জনি বেয়ারস্টো ভারতীয় বোলারদের চাপে ফেলতে পারবেন বলে মনে করেন মইন। টুর্নামেন্টের আগে থেকেই ভারত ও ইংল্যান্ডকেবিশ্বকাপ জেতার বড় দাবিদার বলে মানছিলেন ক্রিকেট-বিশেষজ্ঞরা। ভারত এখনও পর্যন্ত বিশ্বকাপে অপরাজিত। ইংল্যান্ড কিন্তু সাতটি ম্যাচের মধ্যে তিনটিতে হেরে চাপে। রবিবারের ম্যাচটা ইংল্যান্ডের কাছে মরণবাঁচনের। 

আরও পড়ুন: শামির স্যালুটের জবাব হিন্দিতে দিলেন কটরেল

ম্যাচের
Live
স্কোর