সময়টা একেবারেই ভাল যাচ্ছে না পাকিস্তানের। বিশ্বকাপে একের পর এক ম্যাচ হেরে এমনিতেই চাপে ছিলেন সরফরাজরা। তার উপর যোগ হয়েছে ওল্ড ট্রাফোর্ডে ভারতের বিরুদ্ধে ৮৯ রানে লজ্জাজনক হার। যে হারের পর থেকে রাগে ফুঁসছে পাকিস্তানের আম জনতা। বিধ্বস্ত পাক শিবির এই হারের ধাক্কা এখনও সামলে উঠতে পারেনি। পাঁচ ম্যাচে তিন পয়েন্ট পেয়ে ধুঁকতে থাকা পাকিস্তান এমনিতেই পয়েন্ট টেবিলে অনেকটাই নীচে রয়েছে। সরফরাজদের পিছনে রয়েছে শুধু আফগানিস্তান। এর মাঝেই পাকিস্তানের অস্বস্তি আরও বাড়িয়েছেন এক পাক নাগরিক। গোটা দলকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা এবং পাকিস্তানের ক্রিকেট নির্বাচকদের অপসারণের আর্জি জানিয়ে দেশের গুজরানওয়ালা আদালতে একটি মামলা ঠুকেছেন তিনি।

আরও পড়ুন:  জন্মভূমি নয়, অন্য দেশের হয়ে বিশ্বকাপ মাতাচ্ছেন এই তারকারা

 

আরও পড়ুন:  মর্গ্যানের ছক্কা-বৃষ্টিতে ১৫০ রানে জিতল ইংল্যান্ড

বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে হারের পরেই অধিনায়ক সরফরাজের ফিটনেস নিয়ে কটাক্ষ ছুড়ে দেন প্রাক্তন পাক পেসার শোয়েব আখতার। এরপর বিশ্বকাপ যত এগিয়েছে, পাক দলের হতশ্রী চেহারা ততই স্পষ্ট হয়ে উঠেছে। কিন্তু বিরাটদের কাছে হারের পরে এমন মামলায় শোরগোল পড়ে গিয়েছে ক্রিকেট বিশ্বে।

মামলাকারির নাম জানা না গেলেও পাক সংবাদ সংস্থা সূত্রে খবর, তিনি গোটা পাক দলকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা এবং পাকিস্তানের নির্বাচক দলের মুখ্য নির্বাচক ইনজামাম-উল-হকের অপসারণের দাবি জানিয়ে একটি পিটিশন জমা দিয়েছেন। এই আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশের গুজরানওয়ালা আদালত পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের আধিকারিকদের ডেকে পাঠিয়েছেন।

পাকিস্তানের সংবাদ মাধ্যম সূত্রে আরও খবর, আজ, বুধবার আসন্ন পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের বৈঠকে বড়সড় রদবদল ঘটতে পারে। বর্তমান কোচ মিকি আর্থারকে ছাঁটাই করতে পারে পাক বোর্ড। এ ছাড়াও টিম ম্যানেজার তালাত আলি এবং বোলিং কোচ আজহার মাহমুদও কোপের মুখে পড়তে পারেন। বিদেশ সফর কাটছাঁট করে বুধবারের বৈঠকের জন্যে দেশে ফিরে আসছেন পিসিবির ম্যানেজিং ডিরেক্টর ওয়াসিম খান।