ইডেন গার্ডেন্সে আজ রবিবার মহেন্দ্র সিংহ ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস বনাম শাহরুখ খানের কলকাতা নাইট রাইডার্স। ম্যাচের বল গড়ানোর আগে চর্চায় সেই ধোনি।

চেন্নাই সুপার কিংস বনাম রাজস্থান রয়্যালস ম্যাচে আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক জুড়ে বিতর্কের আগুন উস্কে দিয়েছেন চেন্নাই অধিনায়ক। বিশেষজ্ঞরা ধোনিকে আক্রমণ করতে ছাড়ছেন না। দিনকয়েক আগে প্রাক্তন ক্রিকেটার বিষেণ সিংহ বেদী ক্যাপ্টেন কুলের সমালোচনা করেছিলেন। এ বার ভারতের প্রাক্তন ওপেনার বীরেন্দ্র সহবাগ তীব্র আক্রমণ করলেন ধোনিকে।

চেন্নাই অধিনায়ককে ‘সামান্য’ সাজা দিয়েই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে মনে করেন বীরু। চেন্নাই-রাজস্থান ম্যাচে শেষ বলে গিয়ে জয় পায় সিএসকে। ম্যাচ চলাকালীন মাঠের ভিতরে ঢুকে পড়ে আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক জুড়ে দেন ধোনি। ‘নজফগড়ের নবাব’ বলেছেন, দু’টি বা তিনটি ম্যাচে ধোনিকে নিষিদ্ধ করা উচিত ছিল। তাতে অন্য অধিনায়ক বা ক্রিকেটারদের সামনে দৃষ্টান্ত স্থাপন করা যেত। 

আরও পড়ুন: রাগে অগ্নিশর্মা ধোনি, দেখুন মেজাজ হারানোর সেই মুহূর্ত

আরও পড়ুন:  ম্যাচ ফি’র ৫০ শতাংশ জরিমানা ধোনির, আরও বড় শাস্তি হওয়া উচিত ছিল, বলছেন মঞ্জরেকর

রাজস্থান রয়্যালসের বিরুদ্ধে জেতার জন্য শেষ ওভারে ১৮ রান দরকার ছিল চেন্নাইয়ের। শেষ ওভারে বোলার ছিলেন বেন স্টোকস। স্টোকসের ওভারের তৃতীয় বলে আউট হন ধোনি। শেষ তিন বলে জেতার জন্য দরকার ছিল আট রান। স্টোকসের চতুর্থ বলটি ছিল ফুলটস। উচ্চতার জন্য প্রথমে ‘নো বল’ ডেকেছিলেন নন স্ট্রাইক প্রান্তে দাঁড়িয়ে থাকা  আম্পায়ার উলহাস গান্ধে।  স্কোয়ার লেগ আম্পায়ার ব্রুস অক্সেনফোর্ড সিদ্ধান্তটি বাতিল করে দেন। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে ডাগ আউট থেকে মাঠে ঢুকে পড়েন ধোনি। বিশ্বজয়ী অধিনায়ককে এতটা রেগে যেতে আগে কখনও দেখেননি সহবাগ।

বীরু বলেছেন, চেন্নাই সুপার কিংসের জন্য হয়তো বেশি মাত্রায় আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন ধোনি। আর এক বছর পরেই হয়তো অবসর নেবেন। সেই কারণেই এতটা আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েছিলেন ধোনি। সহবাগ মনে করেন, ধোনির সটান মাঠে নেমে পড়াটা একেবারেই ঠিক কাজ হয়নি। ধোনিকে জরিমানা করে অল্পেই ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

ম্যাচ রেফারি দুটো-তিনটে ম্যাচের জন্য ধোনিকে নিষিদ্ধ করতেই পারতেন। ধোনিকে অল্পেই ছেড়ে দেওয়ায় সহবাগ আশঙ্কা প্রকাশ করছেন। তাঁর মনে হচ্ছে, আগামী দিনে অন্য কোনও অধিনায়ক ধোনির মতোই মাঠের ভিতরে ঢুকে পড়ে আম্পায়ারের সঙ্গে তর্ক জুড়ে দিতে পারেন। এতে গুরুত্ব হারাবেন আম্পায়ারই।