• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ধোনি-পরীক্ষার মহড়ায় রাসেল

Andre Russel
নজরে: রাসেলের চোট নিয়ে উদ্বেগ থাকছে নাইটদের। ফাইল চিত্র

চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে নামার আগে কলকাতা নাইট শিবিরে সব চেয়ে বড় কাঁটা আন্দ্রে রাসেলের চোট। সানরাইজ়ার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে হাঁটুতে চোট পাওয়ার পর থেকে দু’টি ম্যাচে দেখা যায়নি তাঁকে। আজ, বৃহস্পতিবার মহেন্দ্র সিংহ ধোনির দলের বিরুদ্ধেও তাঁকে প্রথম একাদশে দেখা যাবে কি না, প্রশ্ন থাকছে। 

যদিও বুধবার চেন্নাই সুপার কিংসের বিরুদ্ধে নামার আগের দিন অনুশীলন করেছেন ক্যারিবিয়ান অলরাউন্ডার। তাঁকে ছাড়া এই গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে নামার ঝুঁকি অধিনায়ক অইন মর্গ্যান নেবেন কি না, বোঝা যাচ্ছে না। কারণ, প্লে-অফ স্বপ্ন শেষ হয়ে গেলেও শেষ ম্যাচে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরকে হারিয়ে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী ধোনিরা। তাই সিএসকে-র বিরুদ্ধে রাসেলের ফেরার সুযোগকে রাতারাতি খারিজ করা যাচ্ছে না। 

নাইটদের প্রতিপক্ষ সিএসকের হারানোর কিছু নেই। ধোনি চাইবেন, মরসুম শেষ হওয়ার আগে শেষ দু’টি ম্যাচ জিতে অন্যদের প্লে-অফ রাস্তা কঠিন করতে। নাইটদের সামনে তাই এই লড়াই একেবারে মরণ-বাঁচন। হারলে প্লে-অফে যাওয়ার আর কোনও রাস্তা হয়তো খোলা থাকবে না অইন মর্গ্যানের দলের। বর্তমানে নাইটদের পয়েন্ট ১২ ম্যাচে ১২। প্লে-অফে ওঠার জন্য শেষ দু’ম্যাচ জিততে হবে বড় ব্যবধানে। একই সঙ্গে তাকিয়ে থাকতে হবে কিংস ইলেভেন পঞ্জাব ও সানরাইজ়ার্স হায়দরাবাদের দিকে। 

তার উপরে নাইটদের পথের সব চেয়ে বড় কাঁটা তাদের নেট রানরেট (-০.৪৭৯)। পঞ্জাব (-০.০৪৯) ও হায়দরাবাদ (+০.৩৯৬) নেট রানরেটের ভিত্তিতে নাইটদের চেয়ে এগিয়ে। তাই চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে জেতার পাশাপাশি রানরেট বাড়িয়ে নেওয়ার কাজও করতে হবে কেকেআর-কে।

নাইট শিবিরে সব চেয়ে বেশি উদ্বেগ তাদের ব্যাটিং অর্ডার নিয়ে। ১২ নম্বর ম্যাচ হয়ে যাওয়ার পরেও স্থায়ী ব্যাটিং অর্ডার ঠিক করা হয়ে ওঠেনি। সেই সঙ্গেই সমস্যায় ফেলছে ধারাবাহিকতার অভাব। দিল্লির বিরুদ্ধে ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠা নীতীশ রানা পঞ্জাবের বিরুদ্ধে মুখ থুবড়ে পড়লেন। চার নম্বরে ব্যাট করতে আসা দীনেশ কার্তিক শেষ দু’ম্যাচে দশের গণ্ডিও পেরোতে পারেননি। প্রত্যেক ম্যাচে বাড়তি দায়িত্ব এসে পড়ছে শুভমন গিল ও মর্গ্যানের উপরে। চেন্নাইয়ের বিরুদ্ধে তার পুনরাবৃত্তি হলে সেই ভুল শোধরানোর আর জায়গা থাকবে না।

চেন্নাইয়ের বোলিং আক্রমণ যদিও এই আইপিএলের দুর্বলতম। পাওয়ারপ্লেতে দীপক চাহারের তিন ওভারে সুইং সামলে নিতে পারলেই অনেকটা চাপমুক্ত হবেন মর্গ্যানেরা। কিন্তু শেষ ম্যাচে খেলা ইমরান তাহির ও মিচেল স্যান্টনারও নিজেদের প্রমাণ করার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন। অধিনায়ক মহেন্দ্র সিংহ ধোনির কাছেও নিজের পুরনো ঝলক দেখানোর জন্য শেষ দু’টি ম্যাচ পড়ে থাকছে। 

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন