প্রথম ভারতীয় ক্রিকেটার হিসেবে নজির গড়তে চলেছেন ইরফান পাঠান। ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ ২০১৯ সালের জন্য ক্রিকেটারদের যে ড্রাফট তৈরি করা হয়েছে, সেই তালিকায় রয়েছেন ভারতের বাঁ হাতি এই অলরাউন্ডার। ২২ মে লন্ডনে নিলাম হবে। সেখানেই ভাগ্য পরীক্ষা হবে পাঠানের।

ইদানীং ভারতীয় দলে আর তাঁর জায়গা হয় না। ২০১২ সালে দেশের হয়ে শেষ বার খেলতে দেখা গিয়েছে পাঠানকে। দারুণ সাড়া জাগিয়ে শুরু করেছিলেন ইরফান পাঠান। গুরু গ্রেগের হাতে পড়ে পাঠানের ঈশ্বরদত্ত রামধনুর মতো বাঁকানো সুইং বোলিং উধাও হয়ে যায়।

এখন আর আইপিএলেও জায়গা হয় না তাঁর। রেকর্ড বই বলছে, কোনও ভারতীয় ক্রিকেটারই বিগ ব্যাশ, ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে খেলেননি। ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ডের অনুমোদিত টুর্নামেন্ট আইপিএল খেলতে বিদেশ থেকে বিশ্বখ্যাত তারকারা খেলতে আসেন।

আরও খবর:  আইপিএলের ফ্লপ একাদশ, হেরোদের এই দলে তিন ভারতীয় বিশ্বকাপার

আরও খবর: বিশ্বকাপ শুরুর আগেই ধাক্কা, দ্বিতীয় ম্যাচের আগে পাওয়াই যাবে না তারকা ক্রিকেটারকে​

কিন্তু ভারতীয় ক্রিকেটাররা বিদেশের মাটিতে এই ফরম্যাটের লিগে খেলতে যান না। নিলামে সিপিএল-এর (ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ) কোনও দল তাঁকে কিনে নিলে সেটাই ইতিহাস হবে। এক সময়ের দারুণ প্রতিভাবান অলরাউন্ডার এখন ধারাভাষ্যকার হয়ে গিয়েছেন। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে ধারাভাষ্যকার হিসেবে কাজ করতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। শেষ দু’বছর আইপিএলও খেলেননি তিনি। জাতীয় দলের দরজা খোলার জন্যই কি ৩৪ বছরের পাঠান সিপিএল-এ খেলবেন? ক্রিকেটমহলে সেই চর্চাই হচ্ছে।