সদ্য শেষ হওয়া বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের কোচ ট্রেভর বেইলিসকে কোচ করতে পারে নাইট রাইডার্স। বেইলিসের সঙ্গী হতে পারেন কিউয়ি ব্যাটসম্যান এবং প্রাক্তন নাইট ব্রেন্ডন ম্যাকালাম। ম্যাকালাম নাইটদের হয়েই তাঁর আইপিএল কেরিয়ার শুরু করেছিলেন ২০০৮-এ। প্রথম ম্যাচেই তাঁর সেই আক্রমণাত্মক ১৫৮ এখনও ভোলেননি ক্রিকেটভক্তরা। পরে অবশ্য ম্যাকালামকে অধিনায়কও করা হয় নাইটদের। সেই প্রাক্তন নাইটকে এ বার দেখা যেতে পারে ব্যাটিং পরামর্শদাতা ও মেন্টর হিসেবে। যে জায়গাটা এত দিন সামলাচ্ছিলেন জাক কালিস।

অস্ট্রেলিয়ান বেইলিসের হাত ধরে এর আগেও সাফল্য এসেছে নাইটদের ঘরে। ২০১১ থেকে ২০১৪ সালে তাঁর কোচিং-এই দু'বার ট্রফি জেতে নাইটরা। বেইলিস শুধু এ বারে বিশ্বকাপজয়ী ইংল্যান্ড দলেরই নয়, ২০১১-র ফাইনালে ওঠা শ্রীলঙ্কা দলের কোচও ছিলেন। জাক কালিস-সহ নাইটদের সমস্ত কোচিং স্টাফ দল ছাড়ায় নতুন করে ঘর গোছাতে হবে তাদের। সেই কাজেই নেমে পড়েছে শাহরুখ খানের দল। যদিও ২০১৯-এর অ্যাসেজ সিরিজ পর্যন্ত বেইলিসের সঙ্গে চুক্তি রয়েছে ইংল্যান্ডের। তারপর তিনি নাইটদের সঙ্গে যোগ দিতে পারেন। ম্যাকালামও আপাতত ব্যস্ত কমেন্ট্রির কাজে।

আরও পড়ুন: আরও একটা সুপার ওভার হতেই পারত, ফাইনাল নিয়ে মুখ খুললেন সচিন

দলীয় সূত্রে খবর, বলিউডের বাদশা এ বার মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের কাঠামো গ্রহণ করতে চাইছেন। বিশ্বের তাবড় প্রাক্তন খেলোয়াড়দের তারা পরামর্শদাতা হিসেবে দলের সঙ্গে যুক্ত রাখে। সেই ফর্মুলাই এ বার তাদের দলে আনতে চাইছে নাইটরা। মুম্বই-এর মতো আরও একটি বিষয় আনতে চলেছে শাহরুখের দল। আকাশ অম্বানী যে ভাবে মা নীতা অম্বানীর সঙ্গে মুম্বই দলের সঙ্গে যুক্ত থাকেন, সেই ভাবে কলকাতা দলের সঙ্গে যুক্ত হতে চলেছেন জুহি কন্যা জাহ্নবী চাওলা। যুব সমাজকে দলের সঙ্গে যুক্ত করে দলে তাজা হাওয়া আনতে চাইছে কলকাতা।

দেখার বিষয় এই পরিবর্তনগুলি পাঁচ বছরের ট্রফি খরা কাটাতে পারে কিনা নাইটদের।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপ জিতে কপিলদের টিম ইন্ডিয়ার সদস্যরা কত টাকা পেয়েছিলেন জানেন?