বিশ্বকাপ শুরু হওয়ার আগেই ভারতীয় দলকে সতর্ক করে দিলেন লুঙ্গি এনগিডি। ভারতের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজ হারের বদলা বিশ্বকাপেই মিটিয়ে নিতে চান দক্ষিণ আফ্রিকার তরুণ পেসার। ৫ জুন দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করছে ভারত। তার আগে বিপক্ষ পেসারের হুঙ্কার কি আরও চাগিয়ে দেবে ভারতীয় দলকে?

গত বছর দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের ওয়ান ডে সিরিজে ভারত জিতেছিল ৫-১ ব্যবধানে। কিন্তু সে দলে ছিলেন না এবি ডিভিলিয়ার্স, ফ্যাফ ডুপ্লেসি, কুইন্টন ডি’ককের মতো ক্রিকেটার। কিন্তু বিশ্বকাপে পুরো দল নিয়ে ভারতের বিরুদ্ধে নামতে চলেছে দক্ষিণ আফ্রিকা। যদিও অবসর নেওয়ার কারণে নেই ডিভিলিয়ার্স। এনগিডি মনে করেন, ৫ জুন ভারতকে হারিয়ে সেই সিরিজ হারের জবাব দেওয়ার সব চেয়ে বড় সুযোগ।

রবিবার ২৩ বছর বয়সি পেসার বলেন, ‘‘আমি মনে করি, ভারতকে কিছু ফিরিয়ে দেওয়ার সময় হয়ে গিয়েছে। ভারতের বিরুদ্ধে নামার জন্য আমি মুখিয়ে রয়েছি।’’ বিরাট কোহালির দলের বিরুদ্ধে ঘরের মাঠে সেই সিরিজ হারের প্রসঙ্গ টেনে লুঙ্গি বলেন, ‘‘আমাদের দেশে যখন ওরা এসেছিল, অসাধারণ সিরিজ খেলে গিয়েছিল। সেই হারের প্রভাব অনেক দিন ধরেই পড়েছে। আমার মনে হয় বিশ্বকাপই সঠিক মঞ্চ ওদের জবাব দেওয়ার। এই ম্যাচটি নিয়ে আমি খুব উত্তেজিত। আশা করি, বাকিরাও আমার মতোই ভারতের বিরুদ্ধে নামার জন্য উৎসাহী।’’

ভারতের দক্ষতা সম্পর্কে কোনও সন্দেহ নেই এনগিডির। তাঁর মানতে কোনও দ্বিধা নেই যে, ভারত অসাধারণ দল। বলছিলেন, ‘‘ভারত কেমন দল তা সবাই জানে। ওদের দক্ষতা সম্পর্কে কোনও সন্দেহ নেই। বিশ্বকাপে যে কোনও দলকে হারানোর ক্ষমতা রয়েছে ওদের।’’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘কিন্তু আমার বিরুদ্ধে ওরা যখন সিরিজ খেলেছে, তখন অনেকেই দলে ছিল না। বিশ্বকাপে তারা থাকছে। তাই প্রতিযোগিতা আরও বাড়তে পারে বলেই আমার ধারণা।’’

ক্রিকেট জীবন শুরু হওয়ার পর থেকেই এনগিডি স্বপ্ন দেখতেন, দেশকে বিশ্বকাপ জেতানোর। এখনও একটিও বিশ্বকাপ জিততে পারেনি তার দেশ। কিন্তু তরুণ পেসার মানছেন, বিশ্বকাপ জেতার ক্ষমতা রয়েছে তাঁর দলের। ‘‘সব সময়েই স্বপ্ন দেখেছি বিশ্বকাপ খেলার। এমনকি বিশ্বকাপ হাতে দাঁড়িয়ে থাকার স্বপ্নও দেখেছি বেশ কয়েক বার। এ বারই প্রথম সুযোগ সেই স্বপ্ন বাস্তবে পরিণত করার।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘দেশকে যদি প্রথম বিশ্বকাপ এনে দিতে পারি, তা হলে এর চেয়ে বেশি আনন্দের আর কিছুই হতে পারে না।’’

বিশ্বকাপ শুরু হচ্ছে ইংল্যান্ড বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা ম্যাচ দিয়ে। বর্তমানে ইংল্যান্ডের ফর্ম সম্পর্কে তিনি ওয়াকিবহাল। কিন্তু ভয় পাচ্ছেন না। বরং বিপক্ষের উপর চাপ বাড়ানোর জন্য এনগিডি বলে গেলেন, ‘‘ফেভারিট হিসেবে বিশ্বকাপ শুরু করছে ইংল্যান্ড। তাই ওদের উপরেই সব চেয়ে বেশি প্রত্যাশার চাপ। যদি আমরা সে ম্যাচ জিতে শুরু করতে পারি। তা হলে সব চেয়ে ভাল উদাহরণ হয়ে ওঠা যাবে।’’