সদ্যসমাপ্ত তৃতীয় অ্যাশেজ টেস্টে বেঞ্জামিন স্টোকসের কীর্তি এখন ক্রিকেটপ্রেমীদের মুখে মুখে ঘুরছে। জ্যাক লিচকে সঙ্গে নিয়ে তাঁর ৭৬ রানের পার্টনারশিপ টেস্ট ক্রিকেট ইতিহাসে দশম উইকেটে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ।

‘অতিমানবিক’ ইনিংসের জন্য বর্তমান ও প্রাক্তন তারকাদের প্রশংসা পেয়েই চলেছেন স্টোকস। এরই মধ্যে মইন আলির কাছ থেকে বড়সড় সার্টিফিকেট পেয়ে গেলেন নাইটহুডের জন্য মনোনীত স্টোকস। তাঁকে সর্বকালের সেরা বললেন ইংল্যান্ডের এই স্পিনার অলরাউন্ডার। স্টোকসের ১৩৫ রানের মহাকাব্যিক ইনিংস প্রশংসা কুড়িয়েছে সমগ্র ক্রীড়াজগত থেকেই। চেলসি কোচ ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পর্ড যেমন নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে লেখেন, ‘খেলার জগতে আমার দেখা অন্যতম সেরা ব্যাক্তিগত পারফরম্যান্স।’ মইন আরেক ধাপ এগিয়ে বলেন, ‘স্টোকস শুধু আমার দেখা সেরা খেলোয়াড়ই নয়, আমার মতে ইংল্যান্ডের সর্বকালের সেরা অলরাউন্ডারও।’

ইংল্যান্ডের জার্সি গায়ে ইয়ান বোথাম থেকে শুরু করে আধুনিক সময়ে অ্যান্দ্রু ফ্লিনটফ বহু অলরাউন্ডার খেলেছেন। তা হলে স্টোকস সবার আগে কেন? মইনের মতে, ছয় সপ্তাহের ব্যাবধানে দুই মহাকাব্যিক ইনিংস খেলা যে কোনও ক্রিকেটারের পক্ষে সম্ভব নয়। তিনি বলেন, “স্টোকসের নিজেকে আরও উন্নত করার খিদে এবং দিনের পর দিন করা অক্লান্ত পরিশ্রমই ওকে সকলের থেকে আলাদা করে। আমি ওকে বহু দিন ধরে চিনি। ক্রিকেটে ওর জার্নিটা আমি খুব কাছ থেকে দেখেছি। তাই এই পর্যায়ে পৌঁছনোর জন্য ওকে কতটা পরিশ্রম করতে হয়েছে সেটা আমি জানি।”

হেডিংলি টেস্টের ১৩৫ রানের ইনিংস ও চার উইকেটের সুবাদে সদ্য প্রকাশিত হওয়া আইসিসি র‍্যাঙ্কিংয়ে স্টোকস অলরাউন্ডারদের তালিকায় দু’নম্বরে এবং ব্যাটসম্যানদের তালিকায় ১৩ ধাপ এগিয়ে ১৩ নম্বরে উঠে এলেন। দু’টিই র‍্যাঙ্কিং-এর বিচারে তাঁর ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ।

আরও পড়ুন: রজারের সামনেও নির্ভীক, এক সেটে একশো নাগাল