টেস্ট ওপেনার হিসেবে রিহার্সাল একেবারেই ভাল হল না রোহিত শর্মার। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশের হয়ে ওপেন করতে নেমে খাতা খোলার আগেই ফিরে এলেন তিনি। খেললেন মাত্র ২ বল। প্রথম টেস্টের আগে যা নিঃসন্দেহে চাপ বাড়াবে তাঁর উপর।

তিন দিনের ম্যাচের প্রথম দিনের খেলা বৃষ্টিতে ধুয়ে গিয়েছিল। শুক্রবার দ্বিতীয় দিনে দক্ষিণ আফ্রিকা পাঁচ উইকেটে ১৯৯ তুলেছিল। শনিবার ছয় উইকেটে ২৭৯ তুলে ইনিংসের সমাপ্তি ঘোষণা করে প্রোটিয়ারা। জবাবে ব্যাট করতে নেমে রোহিত স্থায়ী হন মাত্র দুই বল। ফিলান্ডারের প্রথম ওভারের দ্বিতীয় ডেলিভারিতেই ক্যাচ দিয়ে ফেরেন মুম্বইকর। তাঁর ক্যাচ ধরেন হেইনরিখ ক্লাসেন।

২ অক্টোবর থেকে শুরু হচ্ছে টেস্ট সিরিজ। বিশাখাপত্তনমে প্রথম টেস্টের আগে এটাই ছিল রোহিতের ওপেনার হিসেবে মানিয়ে নেওয়ার একমাত্র সুযোগ। কিন্তু তিনি তা কাজে লাগাতে পারলেন না। মিডল অর্ডারে ধারাবাহিক ভাবে সফল হতে পারছিলেন না বলেই রোহিত ভারতের টেস্ট দলে নিয়মিত নন। এই মুহূর্তে আবার আজিঙ্ক রাহানে ও হনুমা বিহারীকে পাঁচ ও ছয় নম্বরে নিশ্চিত দেখাচ্ছে। ফলে, রোহিতের টেস্ট দলে আসার একমাত্র উপায় হল ওপেন করা। লোকেশ রাহুলের ব্যর্থতা রোহিতের সামনে সেই সুযোগও এনে দিয়েছে। জাতীয় নির্বাচকরাও ওপেনার হিসেবে রোহিতের উপর ভরসা দেখিয়েছেন। কিন্তু তাঁর শুরুটা ভাল হল না।

আরও পড়ুন: পিচে জল, তার মধ্যেই প্র্যাকটিস, পুরনো ভিডিয়ো পোস্ট করলেন সচিন​

আরও পড়ুন: ওরা একটা সুযোগ তৈরি করলে আমরা দুটো করব, ফয়সালার ম্যাচের আগে বলছেন রঞ্জন​

রান পেলেন না বাংলার অভিমন্যু ঈশ্বরনও। ওপেন করেননি, তিন নম্বরে নেমেছিলেন তিনি। ২৫ বল খেলে ১৩ রানে ফিরলেন তিনি। কাগিসো রাবাডার বলে মারক্রামকে ক্যাচ দিয়ে আউট হলেন অভিমন্যু।