• নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মুগ্ধ স্যর ভিভ, ক্যারিবিয়ান আকাশে নতুন তারা ব্ল্যাকউড

Blackwood
রাজকীয়: ব্ল্যাকউডের লড়াকু ইনিংসের চর্চা ক্রিকেটবিশ্বে।

নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা। মাঠে ঢুকতে গেলে সাংবাদিকদের ধরানো হচ্ছে প্রশ্নমালা। উত্তর ঠিক না হলে প্রবেশাধিকার বন্ধ। দিনে দু’বার করে মাপা হচ্ছে দেহের তাপমাত্রা। খেলোয়াড়, সম্প্রচারকর্মীরা ধরাছোঁয়ার বাইরে। পেশাদার সাংবাদিকদের কেউ তাঁদের জন্য নির্দিষ্ট অঞ্চল ছেড়ে বেরোলেই বিপ্-বিপ্ করে বাজবে অ্যালার্ম। মধ্যাহ্নভোজে এক টেবিলে দু’জন।দিনের শেষে সাংবাদিক বৈঠক জুম অ্যাপে।

করোনা পরবর্তী ক্রিকেট ম্যাচ কভার করার নির্দেশিকা নয়! এই নিয়ম মেনেই সাউদাম্পটনে হয়েছে ইংল্যান্ড বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রথম টেস্ট। ম্যাচ কভার করা এক সাংবাদিকের বিবরণে উঠে এসেছে এমনই সমস্ত তথ্য।

জৈব নিরাপত্তার মধ্যে অনুষ্ঠিত  এই টেস্টে শ্যানন গ্যাব্রিয়েল, জোফ্রা আর্চার-সহ সম্প্রচারকারী সংস্থার কর্মীদের রাখা হয়েছিল মাঠ লাগোয়া  হোটেলে। তিনতলা হোটেলের একদম উপরে ছিলেন বেন স্টোকসরা। দোতলায় জেসন হোল্ডাররা। একতলায় সম্প্রচারকর্মীরা।

সাউদাম্পটনের কীর্তিমান

বেড়ে ওঠা: জামাইকায়।

বয়স: ২৮।

টেস্টে অভিষেক: জুন, ২০১৪। ঘরের মাঠে প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড। করেন ৬৩ রান।

তার পরে:  ২০১৭-র অক্টোবর পর্যন্ত ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে নিয়মিত। করেন ৯টি অর্ধশতরান ও একটি শতরান।

খারাপ সময়: অক্টোবর, ২০১৭-জুন, ২০২০। শেষ পাঁচ ইনিংসে মোট রান ১৫।

প্রত্যাবর্তন: ঘরোয়া ক্রিকেটে জামাইকার হয়ে ১৫ ইনিংসে ৭৬৮ রান। যার মধ্যে একটি দ্বিশতরানের ইনিংস।

ভাগ্যের হাত: শিমরন হেটমায়ার ও ড্যারেন ব্র্যাভো ইংল্যান্ড সফর থেকে সরে দাঁড়ানোয় সুযোগ।

ইংল্যান্ডে পা দিয়ে: প্রস্তুতি ম্যাচে চার ইনিংসে ৬২ রান। স্পিনার রাখিম কর্নওয়েল খেললে প্রথম টেস্টে জায়গা হত না।

ইংল্যান্ডের আতঙ্ক: একমাত্র টেস্ট শতরান (অপরাজিত ১১২) ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে। 

দর্শক বলতে একমাত্র হাজির ছিলেন হ্যাম্পশায়ার শীর্ষকর্তা রড ব্র্যানসগ্রোভ। তিনিও স্টেডিয়ামের এক কোণায় বিশেষ আসনে বসে দেখেন ম্যাচ। নিজের নামাঙ্কিত প্যাভিলিয়নেও যেতে পারেননি। সাংবাদিকরা, ‍দিনের শেষে বাইরে যাওয়া অনুমতি পেলেও রেস্তরাঁ কিংবা পাবে যাওয়ার সবুজ-সঙ্কেত মেলেনি। 

আরও পড়ুন: দাদার ধমকেই জেতার খিদে তৈরি হয়, বললেন কাইফ

এ দিকে, ইংল্যান্ডকে চার উইকেটে হারিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ শিবিরে সিরিজ জয়ের স্বপ্ন ঘুরছে। অধিনায়ক জেসন হোল্ডার বলছেন, ‍‘‍‘চতুর্থ দিনে সবাই নিজেদের সেরা পারফরম্যান্সটা তুলে ধরেছিল। কেউ বলেনি সে ক্লান্ত কিংবা ম্যাচ জিততে পারবে না।’’ যোগ করেছেন, ‍‘‍‘অনেক অন্ধকার দেখতে হয়েছে অতীতে। এই ম্যাচে গুরুত্বপূর্ণ সময়ে উইকেট তুলে বোলারেরা আমাদের ম্যাচে রেখেছিল।’’ আরও বলেন, ‍‘‍‘জারমেইন ব্ল্যাকউড তো নিজের সর্বস্ব দিয়ে ব্যাট করে গিয়েছে। একটা সময়ে মনে হচ্ছিল গোটা দলকেই ও নিজের কাঁধে তুলে নিয়েছে।’’

 এ দিকে, ইংল্যান্ড শিবিরে বিতর্ক ধেয়ে আসছে পেসার স্টুয়ার্ট ব্রডকে না খেলানোয়। তবে অধিনায়ক বেন স্টোকস বলছেন, ‍‘‍‘প্রথম টেস্টে সুযোগ না পাওয়ায় স্টুয়ার্ট সংবাদমাধ্যমে যে সাক্ষাৎকার দিয়েছিল তা দুর্দান্ত। এতেই বোঝা যায়, ১০০-র বেশি টেস্ট খেলার পরেও দেশের হয়ে খেলার জন্য কতটা আবেগ ও তাগিদ ওর মধ্যে কাজ করে।’’ যোগ করেছেন, ‍‘‍‘নির্বাচন নিয়ে হতাশা ব্যক্ত করে লাভ নেই। তা হলে যারা খেলল, তাদের প্রতি ঠিক বার্তা যাবে না। হেরে দল নির্বাচনের সমালোচনা করার মানুষ আমি নই।’’ যদিও দ্বিতীয় টেস্টে ম্যাঞ্চেস্টারে ব্রড খেলবেন কি না, তা নিয়ে নিশ্চয়তা দিতে পারেননি ইংল্যান্ড কোচ ক্রিস সিলভারউড। 

আরও পড়ুন: টোকিয়ো যাওয়া হচ্ছে না শুটার মেহুলি, আয়ুষির

এ দিকে ওয়েস্ট ইন্ডিজের জয়ে প্রাক্তনরা উচ্ছ্বসিত। ভিভিয়ান রিচার্ডস টুইট করেছেন, ‍‘‍‘বিরতির পরে প্রথম ম্যাচটা আমাদেরই। ছেলেরা যোগ্য দল হিসেবেই জিতেছে। তোমরা আমাকে গর্বিত করলে।’’ সচিন তেন্ডুলকরের টুইট, ‍‘‍‘দুর্দান্ত পারফরম্যান্স।’’ উচ্ছ্বসিত ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহালির টুইট, ‍‘‍‘টেস্ট ক্রিকেটের সর্বোচ্চ দৃষ্টিনন্দন প্রদর্শন।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন