আইপিএল মঞ্চে প্রত্যাবর্তন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের। ক্রিকেটার, মেন্টরের পরে এ বার দিল্লি ক্যাপিটালসের উপদেষ্টার ভূমিকায়।

বৃহস্পতিবারই দিল্লি ক্যাপিটালস আনুষ্ঠানিক ভাবে উপদেষ্টা সৌরভের নাম জানিয়েছে। প্রায় ছ’বছর পরে আইপিএলে কোনও দলের সঙ্গে যুক্ত হলেন তিনি। শেষ বার পুণে ওয়ারিয়র্স ইন্ডিয়ার অধিনায়ক ও মেন্টর হিসেবে কাজ করেছেন প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক। এ বার তাঁকে দেখা যাবে ঋষভ পন্থ, শিখর ধওয়ন, পৃথ্বী শ’দের উপদেষ্টা হিসেবে।

নতুন দায়িত্ব পেয়ে আপ্লুত তিনি। জানিয়ে দিলেন, প্রায় এক মাস আগেই তাঁর কাছে প্রস্তাব এসেছিল। কিন্তু ভারতীয় বোর্ডের টেকনিক্যাল কমিটি, আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল ও আইপিএল টেকনিক্যাল কমিটির সঙ্গে যুক্ত থাকায় রাজি হতে পারেননি। দিল্লির প্রস্তাবে রাজি হওয়ার আগেই সে সব পদ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তিনি। বৃহস্পতিবার সিএবি-তে সৌরভ বলেন, ‘‘ছ’বছর পরে আইপিএলের সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে খুব ভাল লাগছে। দেড়, দু’মাস আগেই আমার কাছে এই প্রস্তাব আসে। কিন্তু স্বার্থের সঙ্ঘাত হতে পারে বলে এই তিনটি পদ থেকেই সরে দাঁড়িয়েছি। আপাতত আমি শুধু সিএবি-র প্রেসিডেন্ট। সিএবি-র কোনও পদে থাকলে স্বার্থ সঙ্ঘাত হওয়ার কথা নয়। সিওএ এই ব্যাপারটি জানে।’’

দিল্লির কোচ রিকি পন্টিং। ২০০৮ সালে প্রথম আইপিএলে সৌরভের নেতৃত্বে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে খেলেছিলেন পন্টিং। প্রাক্তন অস্ট্রেলীয় অধিনায়কের সঙ্গে আরও এক বার কাজ করার জন্য মুখিয়ে সৌরভ। বললেন, ‘‘রিকির সঙ্গে কথা হয়েছে। কিন্তু কী ভাবে কাজ করব সে ব্যাপারে কথা বলিনি। কাল দিল্লি গিয়ে ঠিক করব।’’

 দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯ 

এ বার আইপিএলে দিল্লি ক্যাপিটালসের অধিকাংশ ম্যাচে দলের সঙ্গে থাকবেন তিনি। ঋষভ, ধওয়ন, পৃথ্বী, শ্রেয়স আইয়ারদের টেকনিক, মানসিক দৃঢ়তা উন্নত করে তোলার দায়িত্ব তাঁর। ঋষভ পন্থের ফর্ম খুব একটা ভাল নয়। ধওয়ন অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজে একটি সেঞ্চুরি করলেও বাকি চার ম্যাচে রান পাননি। কোথায় তাঁদের সমস্যা হচ্ছে, সেটাই খতিয়ে দেখতে হবে সৌরভকে। ঋষভের সমস্যা কী? সৌরভের ব্যাখ্যা, ‘‘ভারতীয় ক্রিকেটের ভবিষ্যৎ ঋষভ। ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ায় টেস্ট সেঞ্চুরি রয়েছে। সেটা অস্বীকার করার তো জায়গা নেই। সমস্যা একটাই। এখনও নিয়মিত ভারতীয় দলের সদস্য হতে পারেনি ও। ঠিক মতো সুযোগ পেতে শুরু করলেই খেলা খুলে যাবে।’’

সৌরভ যে বার পুণে ওয়ারিয়র্সের অধিনায়ক ছিলেন, সে বার কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিরুদ্ধে নিজের শহরে খেলতে এসে বুঝেছিলেন, তাঁকে ঘিরে দু’শিবিরে বিভক্ত হয়ে গিয়েছিলেন ইডেনের সমর্থকরা। এ বার তিনি না মাঠে না নামলেও উপদেষ্টার ভূমিকায় থাকবেন ডাগ-আউটে। ফলে ধরে নেওয়া যায়, ইডেনে এ বার দিল্লির সমর্থন বাড়বে। প্রাক্তন অধিনায়ক অবশ্য সেই বিষয়কে খুব বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন না। বললেন, ‘‘কিছু করার নেই। পুরোটাই মেনে নিতে হবে।’’

অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ওয়ান ডে সিরিজের পরে প্রশ্ন উঠেছে, চার নম্বরে কে ব্যাট করবেন? অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে প্রথম তিন ম্যাচে অম্বাতি রায়ডু চার নম্বরে ব্যাট করে সফল হননি। শেষ দুই ম্যাচের একটিতে চারে নেমেছিলেন বিরাট। শেষ ম্যাচে চারে ব্যাট করেন ঋষভ পন্থ। রায়ডু বা ঋষভ, কেউ সফল হতে পারেননি। সৌরভ অধিনায়ক থাকলে কাকে বাছতেন? তাঁর সাফ উত্তর, ‘‘ইংল্যান্ডের পরিবেশের কথা মাথায় রেখে ছ’মাস আগে থেকেই চার নম্বরে আমি চেতেশ্বর পুজারাকে খেলাতাম। জানি না বিরাট কী করবে। ও হয়তো রায়ডুকেই খেলাবে। রাহানে তো ছন্দে নেই। না হলে ওর কথাও ভাবা যেতে পারত।’’

তবে বৃহস্পতিবারের পর থেকেই কলকাতার ক্রিকেটপ্রেমীদের কাছে আকর্ষণীয় হয়ে দাঁড়িয়েছে কেকেআর বনাম দিল্লি ক্যাপিটালসের দ্বৈরথ। মাঠে কার্তিক বনাম ঋষভদের মধ্যেই তো সেই লড়াই থেমে থাকবে না। মাঠের বাইরেও যে আবার নতুন ভাবে শুরু হতে চলেছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বনাম শাহরুখ খানের প্রতিদ্বন্দ্বিতা।