নিজের জীবন সঙ্গিনীকে খুঁজে পেয়েছেন এশিয়ান গেমসে পদকজয়ী ভারতীয় মহিলা অ্যাথলিট দ্যুতি চাঁদ। সম্প্রতি তিনি নিজেই জানিয়েছেন সে কথা। দ্যুতি ও তাঁর সঙ্গিনী একই শহরের বাসিন্দা। বেশ কয়েক বছর আগে থেকেই তাঁরা একে অপরকে চিনতেন। তবে অযথা বিতর্ক যাতে সঙ্গিনীকে তাড়া না করে সে জন্য তিনি নিজের সঙ্গিনীর নাম জানাননি। তবে তিনিই প্রথম ভারতীয় ক্রীড়াবিদ যিনি নিজের সমকামী সম্পর্কের কথা প্রকাশ্যে স্বীকার করলেন।

২০১৮-র এশিয়ান গেমসে ১০০ মিটার দৌড়ে রেকর্ড করেছিলেন দ্যুতি। জিতেছিলেন দুটি রুপোর পদক। বর্তমানে তিনি টোকিও অলিম্পিকের প্রস্তুতিতে ব্যস্ত। তাই নিজের সম্পর্ককে পরিণতি দেওয়ার কোনও পরিকল্পনা আপাতত নেই তাঁর। 

সমকামী সম্পর্কের ব্যাপারে দ্যুতি বলেছেন, ‘‘যারা সমকামী সম্পর্কে বিশ্বাসী তাঁদের প্রতি আমার পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। এটা সকলের ব্যক্তিগত পছন্দ।’’ আর নিজের সঙ্গিনীকে বিয়ে করার পরিকল্পনা নিয়ে তিনি জানিয়েছেন, এখন তাঁর ফোকাস ওয়ার্ল্ড চ্যাম্পিনশিপ ও অলিম্পিক গেমসে। তবে ভবিষ্যতে নিজের সঙ্গিনীকে বিয়ে করার কথাও জানিয়েছেন তিনি।

সমকামী সম্পর্ক ও এলজিবিটি অধিকার নিয়েও সরব দ্যুতি। গত বছর ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৭ ধারাকে অবলুপ্তির জন্য দেশের শীর্ষ আদালতের পদক্ষেপকে ঐতিহাসিক বলে চিহ্নিত করে তিনি বলেছেন, ‘‘আমি সব সময় বিশ্বাস করি প্রত্যেক মানুষের ভালবাসার স্বাধীনতা থাকা উচিত। ভালবাসার থেকে বড় অনুভূতি আর কিছু নেই। এ জন্য সুপ্রিম কোর্টও পুরনো আইনে বদল এনেছে।’’ 

আরও পড়ুন: সবাই শূন্য! ৪ রানে অলআউট গোটা দল

দ্যুতি চাঁদ। ছবি এএফপি। 

সম্পর্ক নিয়ে এই স্বীকারোক্তির সঙ্গে যে তাঁর অ্যাথলিট কেরিয়ারের কোনও সম্পর্ক নেই তাও ফুটে উঠেছে দ্যুতি কথায়। তিনি বলেছেন, ‘‘আমার এই সিদ্ধান্তের জন্য অ্যাথলিট হিসাবে আমাকে বাঁকা চোখে দেখার কারও অধিকার নেই। কারণ তাঁর সঙ্গেই আছি যাঁকে আমি জীবনে চেয়েছি। এটা আমার ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত । তাই এটাকে সম্মান করা উচিত। আমি ভারতের হয়ে আরও আন্তর্জাতিক পদক জেতার জন্য মুখিয়ে আছি।’’ 

আরও পড়ুন: চার বছরের বাচ্চার ফুটবল স্কিলে মুগ্ধ আনন্দ মহীন্দ্রাও