ভারতের জাতীয় দলের প্রাক্তন পেসার শান্তাকুমারন শ্রীসন্থের উপর থেকে চির নির্বাসন তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল সুপ্রিম কোর্ট। শনিবার দেশের সর্বোচ্চ আদালত এই সিদ্ধান্ত জানিয়েছে, শুধুমাত্র চির নির্বাসনই তোলা হল শ্রীসন্থের উপর থেকে। শাস্তি তিনি পাবেনই। শাস্তির মেয়াদ ঠিক করতে ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড (বিসিবিআই)-র শৃঙ্খলারক্ষা কমিটিকে তিন মাসের মধ্যে সিদ্ধান্ত নিতে বলা হয়েছে। একেবারে শাস্তি না দেওয়ার শ্রীসন্থের আর্জি অবশ্য খারিজ করে দিয়েছে শীর্ষ আদালত।

২০১৩ সালের আইপিএলে স্পট-ফিক্সিং কাণ্ডে অভিযুক্ত হন শ্রীসন্থ। তদন্ত শেষে বোর্ড আজীবন নির্বাসিত করে তাঁকে। তখন থেকেই জাতীয় স্তরের ক্রিকেট থেকে দূরে তিনি। বিচারপতি অশোক ভূষণ ও কে এম জোসেফকে নিয়ে গড়া বেঞ্চ বোর্ডের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির সামনে শ্রীসন্থকে আত্মপক্ষ সমর্থনের সুযোগ দেওয়ার কথাও বলেছে। প্রসঙ্গত, কিছু দিন আগে কেরল হাইকোর্ট বোর্ডের দেওয়া চির নির্বাসনের সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছিল। তা চ্যালেঞ্জ করেই সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেন শ্রীসন্থ।

এর আগে বোর্ড কাদের নির্বাসিত করেছিল জানেন? খেলুন কুইজ

তবে দিল্লি হাইকোর্টে শ্রীসন্থের বিরুদ্ধে ম্যাচ গড়াপেটা নিয়ে যে ফৌজদারি মামলা চলছিল, তা চলবে বলেই জানা গিয়েছে। সেই মামলায় সুপ্রিম কোর্টের এ দিনের রায় কোনও প্রভাব ফেলবে না। ২০১৩ সালের আইপিএলে স্পট-ফিক্সিংয়ের অভিযোগে শ্রীসন্থ ছাড়াও অভিযুক্ত হয়েছিলেন রাজস্থান রয়্যালসের আরও দুই ক্রিকেটার অজিত চান্ডিলা ও অঙ্কিত চহ্বন। এর আগে ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে ম্যাচ-গড়াপেটার অপরাধে জড়িয়ে শাস্তি পেয়েছেন মহম্মদ আজহারউদ্দিন, অজয় জাডেজা, অজয় শর্মা, মনোজ প্রভাকর, নয়ন মোঙ্গিয়ারা।

আরও পড়ুন: রক্তাক্ত হামলার জের, বাতিল হল বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফর​

আরও পড়ুন: মু্ম্বই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে প্র্যাকটিসে নেমেই ট্রোলড হলেন যুবরাজ​

 

(আইসিসি বিশ্বকাপ হোক বা আইপিএল, টেস্ট ক্রিকেট, ওয়ান ডে কিংবা টি-টোয়েন্টি। ক্রিকেট খেলার সব আপডেট আমাদের খেলা বিভাগে।)