• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিশ্বকাপ নিয়ে কী বলে ডনের দেশ, শুনবে আইসিসি

ICC
ফাইল চিত্র

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ঠিক কবে ফিরতে পারে, তার রূপরেখা পাওয়া যেতে পারে আজ, বৃহস্পতিবারের আইসিসি শীর্ষ বৈঠকে। সব সদস্য দেশের প্রতিনিধিরা ভারতীয় সময় দুপুর থেকে শুরু হতে যাওয়া এই সভায় যোগ দেবেন ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকে থাকছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়। তিনি সভায় আসবেন বেহালার বাড়িতে বসেই। 

আনন্দবাজারে আগেই প্রকাশিত হয়েছিল এই খবর যে, ২৮ মে এই সভাতেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে এসপার-ওসপার সিদ্ধান্ত হবে। এ দিনই অস্ট্রেলিয়া বছরের শেষে বিরাট কোহালিদের সফরসূচি ঘোষণা করেছে। বোঝাই যাচ্ছে, কোহালিদের নিয়ে মহারণের সিরিজ করার সবুজ সঙ্কেত সরকারের থেকে পাওয়া যাবে বলে অস্ট্রেলীয় বোর্ড নিশ্চিত। একই ইতিবাচক অবস্থা টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ নিয়ে আছে, জোর দিয়ে বলা যাচ্ছে না। ওয়াকিবহাল মহলে কারও কারও মত, ‘‘ভারতের সঙ্গে পূর্ণাঙ্গ সিরিজ দু’মাসের উপরে হলেও সেটা দ্বিপাক্ষিক। দু’টো দল আর তাদের পনেরো-পনেরো তিরিশ জনকে নিয়ে করতে হবে। চারটি কেন্দ্রে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে টেস্ট, ওয়ান ডে ম্যাচ হতে পারে। কিন্তু টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ১৬টি দল খেলবে। প্রত্যেক দলের ১৬ জন করে অন্তত ২৫৬ জনকে সামলানোর ঝক্কি।’’ এঁরা যোগ করছেন, ‘‘সারা দেশের বিভিন্ন কেন্দ্রে হবে বিশ্বকাপ। আর সেটা করতে হবে অক্টোবরেই। এত বড় ঝুঁকি অস্ট্রেলিয়া সরকার নিতে চাইবে কি না, সেটাও দেখার।’’ অস্ট্রেলিয়া সরকার ইতিমধ্যেই জানিয়ে দিয়েছে, অক্টোবর পর্যন্ত তাদের দেশে সীমান্ত বন্ধ থাকবে। বিশ্বকাপ উপলক্ষে সেই মতের পরিবর্তন হবে কি না, সেই প্রশ্ন রয়েছে। তাই বৃহস্পতিবারের সভায় অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট বোর্ড কী বলে, সে দিকে তাকিয়ে রয়েছেন অনেকেই। বুধবার পর্যন্ত যা খবর, অস্ট্রেলীয় সরকারের দিক থেকে সবুজ সঙ্কেত পাওয়া যাবে কি না, তা নিয়েই উদ্বিগ্ন রয়েছেন ডনের দেশের কর্তারা। 

তথ্যভিজ্ঞমহলের মতে, ‘‘অস্ট্রেলিয়া বেশি চিন্তিত বছরের শেষে ভারতের সফর নিয়ে। কোহালিরা না গেলে ওদের প্রায় ৩৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ক্ষতি হবে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এই পরিস্থিতির মধ্যে যে করা সম্ভব না-ও হতে পারে, সেটা সকলেই বুঝতে পারছে।’’ এখনকার মতো বিশ্বকাপ পিছিয়ে যাওয়ার স্বপক্ষে আর একটা যুক্তি হল, একাধিক দল নিয়ে কোনও বিশ্বমানের ইভেন্ট এ বছর হচ্ছে না। অলিম্পিক্স পিছিয়ে গিয়েছে, ইউরো এবং কোপা আমেরিকা ফুটবল পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার উপরে ফাঁকা গ্যালারির সামনে বিশ্বকাপ করে কী লাভ, সেই প্রশ্ন তুলতে পারে টিভি স্বত্ব কিনে রাখা সংস্থা। 

আরও পড়ুন: তাঁর গ্রিপের সঙ্গে মিল লারা-পুত্রের, ছবি পোস্ট করলেন সচিন

প্রস্তাব দেওয়া হচ্ছে, এ বছরের বদলে ২০২২ সালে অস্ট্রেলিয়াতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হোক। ২০২১-এ ভারতে হওয়ার কথা কুড়ি ওভারের বিশ্বকাপ। সেটা তেমনই থাকুক। আইসিসি-র সঙ্গে নানা ব্যাপারেই খটাখটি চলছে ভারতীয় বোর্ডের। তার মধ্যে ভারতে বিশ্বকাপ করা নিয়ে কর-জনিত সমস্যা রয়েছে। তবে তা নিয়ে খুব উদ্বিগ্ন নন ভারতীয় কর্তারা।  আইসিসি প্রধান হিসেবে শশাঙ্ক মনোহরের মেয়াদও ফুরিয়ে যাচ্ছে। তার জায়গায় নতুন আইসিসি প্রধান নিয়োগের প্রক্রিয়াও চালু হবে।  

তবে এ নিয়ে কোনও সন্দেহ থাকছে না যে, বিশ্বকাপের সর্বনাশ মানে আইপিএলের পৌষ মাস। অস্ট্রেলিয়ায় বিশ্বকাপ আপাতত স্থগিত রাখা হলে দরজা খুলে যেতে পারে ভারতের কৌন বনেগা ক্রোড়পতি লিগের। 

আরও পড়ুন: ‘নিজের সুনাম নষ্ট করেছেন’, প্রাক্তন কোচকে নিয়ে মুখ খুললেন কাইফ

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন