World Cup 2018: Brazil’s Ronaldo is not happy over Neymar’s performance - Anandabazar
  • নিজস্ব প্রতিবেদন
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিশ্বকাপে নেমারের খেলায় খুশি নন বড় রোনাল্ডো

Ronaldo-Neymar
হতাশ: নেমার প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ, বলছেন রোনাল্ডো। ফাইল চিত্র 

Advertisement

চার বার বিশ্বকাপ খেলেছেন। তার দু’বার কাপ জিতেছে ব্রাজিল। রাশিয়া বিশ্বকাপে তিতের দলের ব্যর্থতার কারণ বিশ্লেষণ করার উপযুক্ত লোক কিংবদন্তি রোনাল্ডো নাজারিয়ো। করলেনও। এমনকি নেমার দা সিলভা স্যান্টোসের (জুনিয়র) মৃদু সমালোচনাও পাওয়া গেল তাঁর প্রতিক্রিয়ায়।

এক টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বড় রোনাল্ডো নেমার প্রসঙ্গে বললেন, ‘‘ওর (নেমারের) কাছ থেকে আমাদের প্রত্যাশা আরও অনেক বেশি ছিল। কারণ ও-ই এই দলটার সত্যিকারের বড় তারকা।’’ এখানেই থামেননি বিশ্বজয়ী ব্রাজিলের প্রাক্তন মহাতারকা। তাঁর কথা, ‘‘জানি না পায়ে অস্ত্রোপচার না অন্য কোনও কারণে ও তেমন কিছু করতে পারল না। কিন্তু পারেনি যে সেটাই সত্যি। যে কারণেই হোক রাশিয়ায় নিজেকে একটা গণ্ডির মধ্যে আবদ্ধ রেখেছিল।’’

মৃদু সমালোচনা করলেও রোনাল্ডো অবশ্য নেমারকে নিয়ে আশার কথাও শুনিয়েছেন। ‘‘ওর বয়স অনেক কম। প্রতিভাবানও। সামনে আরও সময় পড়ে রয়েছে। অনেক দায়িত্ব ওর কাঁধে। সেই দায়িত্ব পালনও করতে হবে। আর তার জন্য ওকে এখনও অনেক কিছু শিখতে হবে।’’

আরও পড়ুন:  রক্ষাকর্তা লরিসকেও যেন না ভোলে ফ্রান্স

রোনাল্ডো নিজেও এক জন দুর্দান্ত স্ট্রাইকার ছিলেন। বার বার তাঁকেও বিপক্ষ ডিফেন্ডারদের কড়া ট্যাকলের সামনে পড়তে হয়েছে। নেমারকেও সেই একই পরিস্থিতিতে হামেশাই পড়তে হয়। তবে তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ, হালফিলে কোনও সংঘর্য ছাড়াই নেমার ডাইভ দিয়ে নাটক করছেন ফাউল আদায় করতে। এই প্রসঙ্গে রোনাল্ডোর কথা, ‘‘বছর পাঁচেক আগে ওর সঙ্গে আমার এটা নিয়ে কথা হয়েছিল। তখন ও বলেছিল, ডিফেন্ডারদের সঙ্গে সংঘর্ষে আহত হলে এ ভাবেই ও ডাইভ দেয়। এটাই ওর স্বাভাবিক প্রতিক্রিয়া। হতে পারে সব ক্ষেত্রে এটা নিষ্ঠুর ট্যাকলের ঘটনা থাকে না। তবে ট্যাকল তো হয়ই। চোটও লাগে। আমার নিজের ক্ষেত্রেও এ রকম প্রচুর হয়েছে। আমিও দেখেছি অনেক বার ফাউল হওয়া সত্ত্বেও রেফারি বাঁশি বাজাননি। কী আর করা যাবে!’’

রোনাল্ডোর সময় সোশ্যাল ওয়েবসাইট-এ কোনও ঘটনা নিয়ে এ ভাবে বিদ্রুপ করা হত না। এই মাধ্যমটি এতটা শক্তিশালীও ছিল না। কিন্তু নেমারের অভিজ্ঞতা খুব খারাপ। তাঁর ডাইভ নিয়ে প্রতিদিনই নতুন নতুন রসিকতা হচ্ছে। কখনও অ্যানিমেশন-এ। কখনও বা ফোটোশপ-এ। রোনাল্ডোরও ব্যাপারটা ভাল লাগেনি। তাঁর কথা, ‘‘সোশ্যাল মিডিয়া সত্যি সত্যিই কখনও কখনও অতিরিক্ত সৃষ্টিশীল হয়ে উঠছে। কিন্তু এখন এ রকম ঘটতেই থাকবে। নেমারকেও  মেনে নিতে হবে। এ সব নিয়ে মাথা ঘামানোর কোনও দরকার নেই।’’ এই প্রসঙ্গে রোনাল্ডোর আরও মন্তব্য, ‘‘ম্যাচের সময় নেমারকে নিজের আবেগ আরও ভাল ভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে। হলুদ কার্ড আদায় করতে মাঝে মাঝে ও অতিরিক্ত ঝুঁকিও নিয়ে ফেলছে। এ ভাবে নিজের শক্তিক্ষয় করার কোনও মানে হয় না। এগুলোই ওকে এখন আরও বেশি করে শিখতে হবে,’’ বলেছেন রোনাল্ডো নাজারিয়ো।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন
বাছাই খবর

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন