Advertisement
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Rafael Nadal

Rafael Nadal: ‘কার্যত অবশ পা’ নিয়েই নাদালের চোখ এ বার উইম্বলডনে

নাদালের দখলে ২২টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম। ফরাসি ওপেনই জিতেছেন ১৪ বার। তবু ট্রফি জয়ের খিদে মরেনি নাদালের। এ বার তাঁর লক্ষ্য উইম্বলডন।

ফরাসি ওপেন জয়ের পর নাদাল।

ফরাসি ওপেন জয়ের পর নাদাল। ছবি: রয়টার্স

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৬ জুন ২০২২ ১১:৩৫
Share: Save:

ফরাসি ওপেনের লড়াই শেষ। সেই ট্রফি হাতে নিয়েই রাফায়েল নাদালের মনে উইম্বলডন জয়ের ভাবনা। চিন্তা শুধু চোট। তাঁর পায়ের চোট সারেনি। সেই চোট নিয়েই খেললেন ফরাসি ওপেন। জিতলেনও। রবিবার ২২তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে নাদাল জানালেন, ফরাসি ওপেনে খেলার সময় বাঁ পায়ের ব্যথা কমাতে একাধিক ইঞ্জেকশন নিয়েছিলেন। এই চোট সারাতে এ বার নতুন চিকিৎসা পদ্ধতি খুঁজছেন তিনি।

চোট সর্বক্ষণের সঙ্গী হলেও নোভাক জোকোভিচের মতো বড় তারকাকে হারাতে সমস্যায় পড়তে হয়নি নাদালকে। ক্রমতালিকায় প্রথম দশের মধ্যে থাকা চার জনকে হারিয়েছেন। রবিবার ফাইনালে ক্যাসপার রুদকে উড়িয়ে দেন। দু’ঘণ্টা ১৮ মিনিটের মধ্যে স্ট্রেট সেটে ফরাসি ওপেনের ফাইনাল জিতে নেন। খেলার ফল ৬-৩, ৬-৩, ৬-০।

একই বছরে অস্ট্রেলিয়ান ওপেন এবং ফরাসি ওপেন জিতলেন নাদাল। এ বার তাঁর লক্ষ্য উইম্বলডন। আগামী সপ্তাহে নতুন কোনও চিকিৎসা পদ্ধতির মাধ্যমে চোট সারাতে চান নাদাল। ২৭ জুন থেকে শুরু উইম্বলডন। দু’বার সবুজ ঘাসের কোর্টে জিতেছেন নাদাল। ফের এক বার জেতার জন্য মুখিয়ে রয়েছেন তিনি। চোট সারিয়ে সেই প্রতিযোগিতায় নামতে পারবেন নাদাল?

ফরাসি ওপেন জিতে নাদাল বলেন, “উইম্বলডনে খেলার সুযোগ হারাতে চাই না। মনে হয় না কেউ উইম্বলডনে খেলার সুযোগ হারাতে চাইবে। উইম্বলডনে খেলতে ভালবাসি। ওখানে সাফল্যও পেয়েছি। এই প্রতিযোগিতাকে আমি খুব সম্মান করি। উইম্বলডন খেলার জন্য আমি সব সময় তৈরি। যদি জিজ্ঞেস করা হয় এই বছর খেলতে পারব কি না? সেই উত্তর আমার কাছে এখনও স্পষ্ট নয়। আমি উইম্বলডন জিততে চাই। দেখি চিকিৎসা কেমন হয়।”

রবিবার রুদের বিরুদ্ধে নাদাল প্রথম সেট জেতেন ৫২ মিনিটে। ৬-৩ গেমে হারিয়ে দেন নরওয়ের প্রতিযোগীকে। দ্বিতীয় সেট জিততেও একই সময় নেন নাদাল। ফলও ৬-৩। এই সেটে এক সময় ১-৩ গেমে পিছিয়ে ছিলেন নাদাল। সেখান থেকে ফিরে আসেন সুরকির কোর্টের সম্রাট। তৃতীয় সেটে রুদকে দাঁড়াতেই দেননি তিনি। ৩৪ মিনিটের মধ্যে ৬-০ গেমে জিতে নেন তৃতীয় সেট। চোট যে নাদালকে কোনও রকম সমস্যায় ফেলছে, তা বোঝাই যায়নি ফাইনালে।

বার বার ইঞ্জেকশন নিয়ে খেলা কতটা কঠিন, তা অবশ্য নিজে বুঝতে পারছেন নাদাল। আগামী কয়েক সপ্তাহের মধ্যে তাঁর শরীর কতটা সুস্থ হয়ে উঠবে সেটার উপর নির্ভর করছে কোন কোন প্রতিযোগিতায় তিনি খেলবেন।

এ বারের উইম্বলডনে রাশিয়া এবং বেলারুসের প্রতিযোগীদের খেলার অনুমতি দেওয়া হয়নি। ইউক্রেনের উপর হামলার কারণেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন উইম্বলডন কর্তৃপক্ষ। এর ফলে উইম্বলডনে খেললেও কোনও পয়েন্ট পাবেন না নাদালরা। খেলার ইচ্ছা থাকলেও চোট নিয়ে নাদালের পক্ষে উইম্বলডন খেলা কতটা সম্ভব, তা তিনি নিজেও বুঝতে পারছেন না। নাদাল বলেন, “একটা পা কার্যত অবশ। এমন পরিস্থিতিতে প্রতিযোগিতা খেলে যাওয়া সম্ভব নয়।” সব থেকে বেশি বয়সে ফরাসি ওপেনের সিঙ্গলস জেতা নাদাল চোট না সারলে অস্ত্রোপচার করার কথা ভাববেন।

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ।

Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE