Advertisement
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
Bajrang Punia

চিকিৎসা নিয়ে ক্ষোভ যাচ্ছে না বজরংয়ের

ক্ষতস্থানে তখন ‘শক্ত টেপ’ বেঁধে দিয়েছিলেন সেখানকার চিকিৎসকেরা। সেই টেপ এতটাই অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছিল বজরংকে যে তাঁর মনসংযোগে ব্যাঘাত ঘটে।

কুস্তিগির বজরং পুনিয়া।

কুস্তিগির বজরং পুনিয়া। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২২ ০৬:৫৪
Share: Save:

বিশ্ব কুস্তি চ্যাম্পিয়নশিপে চোট পাওয়ার পরে যে ভাবে তাঁর চিকিৎসা হয়েছে তাতে অসন্তুষ্ট তারকা কুস্তিগির বজরং পুনিয়া। এই প্রতিযোগিতায় কোয়ার্টার ফাইনালে বজরং হেরে গিয়েছিলেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে। কিন্তু তার আগে তিনি প্রথম রাউন্ডে লড়ার সময়ই চোট পান মাথায়। ক্ষতস্থানে তখন ‘শক্ত টেপ’ বেঁধে দিয়েছিলেন সেখানকার চিকিৎসকেরা। সেই টেপ এতটাই অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছিল বজরংকে যে তাঁর মনসংযোগে ব্যাঘাত ঘটে।

‘‘ঈশ্বর জানেন কেন ওরা এ রকম করেছিলেন। টেপটা বেঁধে দেওয়ার পরে অস্বস্তি শুরু হয়ে যায়। ক্ষতস্থানের উপরে কিছু না দিয়েই সরাসরি টেপ বেঁধে দেওয়া হয়েছিল। এ জন্য আমাকে চুলও কেটে ফেলতে হয়েছিল মাথার কয়েক জায়গায়। ২০ মিনিট লেগে গিয়েছিল টেপটা সরাতে,’’ সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে বলছেন বজরং। তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘‘মর্কিন প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে রণকৌশল কী হবে তা নিয়ে আলোচনা করার বদলে আমি আর আমার টিম মাথা থেকে ওই টেপ সরাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছিলাম। ওই লড়াইয়ের আগে যে ২০-২৫ মিনিট সময় ছিল তার বেশির ভাগ এতেই চলে যায়।’’

বজরংয়ের ব্যক্তিগত ফিজিয়ো আনন্দ দুবে এই বিষয়ে বলছিলেন, ওই চিকিৎসকদের অন্য টেপ ব্যবহার করা উচিত ছিল। ‘‘ক্ষতস্থানে শক্ত টেপ ব্যবহার করলে ফুলে যেতে পারে। কারণ ক্ষতস্থানে সামান্য আঘাত লাগলেই অস্বস্তি হতে পারে সঙ্গে চুলেও টান পড়বে। আর কুস্তিতে প্রতিপক্ষ অনেক সময়ই লড়াই করার সময় মাথায় হাত দেয়। তাই আমরা ওই টেপ সরিয়ে অন্য একটি টেপ বেঁধে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.