Advertisement
১০ ডিসেম্বর ২০২২
Melbourne Test

মেলবোর্নে সহজ জয়ের সামনে পাঁচিল তুললেন কামিন্স, ভারতের চাই আর ২ উইকেট

চতুর্থ ইনিংসে অস্ট্রেলিয়াকে করতে হত ৩৯৯ রান। যা প্রায় অসম্ভব লক্ষ্য। চতুর্থ দিনের শেষে আট উইকেটে ২৫৮ তুলেছে অস্ট্রেলিয়া। এখনও ১৪০ রানে পিছিয়ে তারা।

লড়াকু কামিংস প্রতীক্ষা বাড়ালেন ভারতের। শনিবার মেলবোর্নে। ছবি: এএফপি।

লড়াকু কামিংস প্রতীক্ষা বাড়ালেন ভারতের। শনিবার মেলবোর্নে। ছবি: এএফপি।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ২৯ ডিসেম্বর ২০১৮ ১০:২৪
Share: Save:

মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্টে জয়ের দোরগোড়ায় ভারত। দরকার আর দুই উইকেট। তা হলেই টেস্ট সিরিজে ফের লিড নেবে ভারত। তবে আশা জাগিয়েও শনিবার এল না জয়। আট উইকেট পড়ার পর প্যাট কামিন্স-নেথান লায়নের জুটিই হতাশ করে চলল বিরাট কোহালির দলকে। চতুর্থ দিনের শেষে আট উইকেটে ২৫৮ রানে থামল অস্ট্রেলিয়া। এখনও ১৪০ রানে পিছিয়ে তারা।

Advertisement

শনিবারই র্ডার-গাওস্কর ট্রফিতে ২-১ এগিয়ে যাওয়ার হাতছানি ছিল। কিন্তু, নবম উইকেটে ৪৩ রান যোগ করে ভারতের অপেক্ষা দীর্ঘায়িত করালেন কামিন্স। এই টেস্টে নয় উইকেট নিয়েছেন তিনি। ব্যাট হাতেও এদিন পূর্ণ করলেন পঞ্চাশ। যা তাঁর টেস্ট কেরিয়ারের দ্বিতীয় অর্ধশতরান। পঞ্চম দিনে বৃষ্টির আশঙ্কা রয়েছে বলেই কামিংসের লড়াই তাৎপর্যপূর্ণ হয়ে উঠছে।

এদিন সকালে দ্বিতীয় ইনিংসে পাঁচ উইকেটে ৫৫ নিয়ে শুরু করেছিল ভারত। আট উইকেটে ১০৬ ওঠার পর ডিক্লেয়ার করে দেন কোহালি। মায়াঙ্ক আগরওয়াল (৪২) ও ঋষভ পন্থ (৩৩) ছাড়া কোনও ব্যাটসম্যান দুই অঙ্কের রানে পৌঁছতে পারেননি। অস্ট্রেলিয়ার সফলতম বোলার প্যাট কামিন্স। তিনি ২৭ রানে নেন ছয় উইকেট। জশ হেজেলউড দুই উইকেট নেন ২২ রানে।

আরও পড়ুন: অধিনায়ককে অপমানজনক মন্তব্য, জবাব দিতে চায় দল

Advertisement

আরও পড়ুন: এক্সপ্রেস গতি ও সুইংয়েই বাজিমাত

ভারতের লিড দাঁড়ায় ৩৯৮ রানের। অর্থাৎ, জেতার জন্য চতুর্থ ইনিংসে অস্ট্রেলিয়াকে করতে হবে ৩৯৯ রান। যা প্রায় অসম্ভব লক্ষ্য। আর অস্ট্রেলিয়া প্রথম থেকে নিয়মিত ব্যবধানে হারাতেও থাকে উইকেট। জশপ্রীত বুমরা ফেরান অ্যারন ফিঞ্চকে (৩)। দ্বিতীয় স্লিপে তাঁর ক্যাচ নেন কোহালি। আর এক ওপেনার মার্কাস হ্যারিস (১৩) ফেরেন রবীন্দ্র জাডেজার বলে ফরোয়ার্ড শর্ট লেগে মায়াঙ্ককে ক্যাচ দিয়ে। অস্ট্রেলিয়ার তৃতীয় উইকেট পড়ে ৬৩ রানে। মহম্মদ শামির বলে এলবিডব্লিউ হন উসমান খাওয়াজা (৩৩)। চতুর্থ উইকেটে শন মার্শ ও ট্র্যাভিস হেড ৫১ রান যোগ করে প্রতিরোধ গড়ে তুলেছিলেন। কিন্তু, তা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। শনকে (৪৪) এলবিডব্লিউ করেন ফের বুমরা। তাঁর ভাই, মিচেল মার্শ (১০) ফেরেন কিছুক্ষণের মধ্যেই। জাডেজার বলে তাঁর ক্যাচ ধরেন কোহালি। চায়ের বিরতিতে ১৩৮ রানে পাঁচ উইকেট হারিয়ে রীতিমতো চাপে দেখাচ্ছিল অস্ট্রেলিয়াকে।

চায়ের বিরতির পর ট্র্যাভিস হেডকে ফেরান ইশান্ত শর্মা। বাইরের বল মারতে গিয়ে স্টাম্পে টেনে আনেন তিনি। ৩৪ করে ফেরেন তিনি। ১৫৭ রানে ছয় উইকেট পড়ল অস্ট্রেলিয়ার। সপ্তম উইকেট পড়ল দলীয় ১৭৬ রানে। জাডেজার বলে কাট করতে গিয়ে উইকেটরক্ষক ঋষভ পন্থকে ক্যাচ দিলেন অজি অধিনায়ক টিম পেন। তিনি করলেন ২৬ রান। অস্ট্রেলিয়ার অষ্টম উইকেট পড়ল ২১৫ রানে। মহম্মদ শামির বলে বোল্ড হলেন মিচেল স্টার্ক। তিনি ফিরলেন ১৮ রানে।

এরপর ১৪.১ ওভার টিকে থাকলেন কামিন্স-লায়ন। বাড়তি আধ ঘন্টা বল করলেও আসেনি উইকেট। দ্বিতীয় নতুন বলে কয়েক ওভার হাত ঘুরিয়েও বুমরারা পাননি সাফল্য। যা কিছুটা হলেও চিন্তায় রাখছে। তাছাড়া, বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে রবিবার। এটাও উদ্বেগের।

(আইসিসি বিশ্বকাপ হোক বা আইপিএল ,টেস্ট ক্রিকেট, ওয়ান ডে কিংবা টি-টোয়েন্টি। ক্রিকেট খেলার সব আপডেট আমাদের খেলা বিভাগে।)

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.