×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৭ জুন ২০২১ ই-পেপার

গোয়াকে সমীহ পার্সিপোলিস কোচের, আত্মবিশ্বাসী খুয়ান

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২০ এপ্রিল ২০২১ ০৬:০৩
 প্রস্তুতি: গোয়ার অনুশীলনে ব্যস্ত কোচ খুয়ান ফেরেন্দো।

প্রস্তুতি: গোয়ার অনুশীলনে ব্যস্ত কোচ খুয়ান ফেরেন্দো।
টুইটার

ইরানের পার্সিপোলিস এফসি গত মরসুমে এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের রানার্স। এ বারও খেতাবের অন্যতম দাবিদার। আজ, মঙ্গলবার তাদের প্রতিপক্ষ এফসি গোয়া প্রথম বার এশিয়ার সর্বোচ্চ লিগে যোগ্যতা অর্জন করেছে। তা সত্ত্বেও স্বস্তিতে নেই পার্সিপোলিসের কোচ, ২০০৬ বিশ্বকাপে মেক্সিকোর বিরুদ্ধে ইরানের একমাত্র
গোলদাতা ইয়াহা গোলমহম্মদি।

কিংবদন্তি লরা ব্লঁ-র আল রায়ানের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে গোলশূন্য ড্র করেছিল গোয়া। দ্বিতীয় ম্যাচে এদু বেদিয়া-রা আটকে দেন আল ওয়াহাদা-কে। কাগজ-কলমে এগিয়ে থাকলেও গোয়ার দুরন্ত ফুটবলকে রীতিমতো সমীহ করছেন পার্সিপোলিস কোচ। সোমবার সাংবাদিক বৈঠকে গোলমহম্মদি বলেই ফেলেছেন, ‘‘গোয়া ইতিমধ্যেই নিজেদের যোগ্যতা প্রমাণ করেছে। এ বারের এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের অন্যতম চমক ওরা। আল রায়ান ও আল ওয়াহাদা-র মতো শক্তিশালী দু’টি দলকে আটকে দেওয়া কখনওই দুর্ঘটনা হতে পারে না।’’

এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ‘ই’ গ্রুপে পার্সিপোলিস দু’টি ম্যাচই জিতেছে। শুধু তাই নয়। সব চেয়ে বেশি গোলও (৪) করেছে ইরানের এই ক্লাব। আজ, মঙ্গলবার ফতোরদায় পার্সিপোলিসের জয়ের হ্যাটট্রিকের পথে প্রধান কাঁটা যে গোলরক্ষক ধীরজ সিংহ, তা খোলাখুলিই বলেছেন গোলমহম্মদি। তাঁর কথায়, ‘‘গোলরক্ষকই গোয়া দলের আসল তারকা।’’

Advertisement

পার্সিপোলিস কোচের প্রশংসায় যদিও উচ্ছ্বাসে ভাসতে নারাজ খুয়ান ফেরান্দো। গুরুত্ব দিচ্ছেন না আগের দুটি ম্যাচে কোনও গোল না খেয়ে অপরাজিত থাকার সাফল্যকেও। তাঁর পাখির চোখ পার্সিপোলিসকে হারিয়ে মাঠ ছাড়া। সাংবাদিক বৈঠকে খুয়ান বলেছেন, ‘‘গোল করাটাই সব চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। তা ছাড়া এই মুহূর্তে আমি পার্সিপোলিসকে নিয়েই শুধু ভাবছি।’’ তিনি যোগ করেছেন, ‘‘প্রতিযোগিতার অন্যতম শক্তিশালী দলের বিরুদ্ধে এ বার আমাদের খেলতে হবে। তাই নিজেদের খেলার আরও উন্নতি
করতে হবে।’’

সাংবাদিক বৈঠকে কোচের সঙ্গে সোমবার এসেছিলেন ধীরজও। আগের ম্যাচে আল ওয়াহাদা-র বিরুদ্ধে ছ’টি অবধারিত গোল বাঁচিয়েছেন তিনি। মঙ্গলবারও তিনি অন্যতম ভরসা খুয়ানের। প্রতিশ্রুতিমান ভারতীয় গোলরক্ষক বলেছেন, ‘‘অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপে ভারতের হয়ে খেলাই আমার আত্মবিশ্বাস বাড়াতে সাহায্য করেছে। আমার মতো তরুণরা যত বেশি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে, তত উন্নতি করবে। এফসি গোয়া আমাকে সেই সুযোগ দিয়েছে।’’ পার্সিপোলিসের বিরুদ্ধে লড়াই যে আরও কঠিন তা মেনে নিয়েছেন ধীরজ। বলেছেন, ‘‘পার্সিপোলিস এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের অন্যতম সেরা দল। আমাদের লক্ষ্য থাকবে আগের দু’টি ম্যাচের মতোই স্বাভাবিক ফুটবল খেলার। পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে পারলে কোনও সমস্যা হবে বলে আমার মনে হয় না।’’

মঙ্গলবার এএফসি চ্যাম্পিয়ন্স লিগে: পার্সিপোলিস এফসি বনাম এফসি গোয়া (স্টার স্পোর্টস নেটওয়ার্কে সরাসরি সম্প্রচার)।

Advertisement