Advertisement
১৫ জুন ২০২৪
Asia Cup 2023

রবিবারের ফাইনালে ৬ উইকেট, সেরা কোনটি, নিজেই বেছে দিলেন সিরাজ

প্রায় প্রতি বলে সিরাজ বোকা বানিয়েছেন শ্রীলঙ্কার ব্যাটারদের। তাঁর বলের লাইন, লেংথ বুঝতেই পারেননি শনাকারা। ৬টি উইকেট থেকে সেরাটি বেছে নিয়েছেন সিরাজ নিজেই।

picture of Mohammed Siraj

মহম্মদ সিরাজ। —ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
শেষ আপডেট: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৫:৩৪
Share: Save:

রবিবার এশিয়া কাপ ফাইনালের পর মহম্মদ সিরাজে আচ্ছন্ন ক্রিকেট বিশ্ব। ক্রিকেটপ্রেমীরা বারে বারে দেখছেন তাঁর অনবদ্য বোলিংয়ের ভিডিয়ো। ৬টা উইকেটের ৪টেই এক ওভারে। ক্রিকেটজীবনের সেরা বোলিং করে সিরাজ নিজেও খুশি। ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের ওয়েবসাইটে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রবিবারের ৬টি উইকেট থেকে বেছে নিয়েছেন নিজের সেরাটি।

সিরাজ এশিয়া কাপ ফাইনালে আউট সুইং, ইন সুইংয়ে ক্রমাগত বোকা বানিয়েছেন শ্রীলঙ্কার ব্যাটারদের। কেউ সুইং বুঝতে না পেরে ক্যাচ দিয়েছেন। কেউ হয়েছেন বোল্ড। সিরাজের সামনে শ্রীলঙ্কার কোনও ব্যাটারই স্বস্তিতে ছিলেন না। সিরাজের বলের লাইন এবং লেংথও বিভ্রান্ত করেছে তাঁদের। প্রতিটা উইকেটই সিরাজ তুলেছেন ব্যাটারকে ভুল করতে বাধ্য করে। একটি উইকেটও ছুড়ে দেননি দাসুন শনাকারা। সতর্ক হয়ে খেলতে গিয়েও আউট হয়েছেন তাঁরা। ৬টি উইকেটের মধ্যে শ্রীলঙ্কার অধিনায়কের উইকেট পেয়ে সব থেকে খুশি হয়েছেন সিরাজ।

নিজের সেরা উইকেট নিয়ে সিরাজ বলেছেন, ‘‘ওয়েস্ট ইন্ডিজ়ের বিরুদ্ধে সিরিজ় থেকে এই বলটা অনুশীলন করছিলাম। ক্রিজ়ের একটু বাইরে থেকে এসে আউট সুইং করানোর চেষ্টা করেছিলাম। বলটা নিখুঁত ভাবে করতে পেরেছি। শনাকার উইকেটই তাই সেরা। ঠিক যেমন ভেবেছিলাম, তেমনই হয়েছে। বলা যেতে পারে পরিকল্পনা মতো সব কিছু ঠিকঠাক হয়েছে।’’

দলকে এশিয়া কাপ জেতাতে পেরে উচ্ছ্বসিত সিরাজ। ভারতীয় জোরে বোলার বলেছেন, ‘‘স্পেলটা জাদুর মতো ছিল। এত ভাল বল করতে পারব ভাবিনি। এর আগে তিরুঅনন্তপুরমেও শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে ৪ উইকেট নিয়েছিলাম। সে বার তার পর ৬ ওভার বল করেও পঞ্চম উইকেট পাইনি।’’ তিনি আরও বলেছেন, ‘‘প্রথম থেকেই ভাল সুইং পাচ্ছিলাম। তাই খুব জোরে বল করার চেষ্টা করিনি। শুধু সঠিক জায়গায় বল রাখার চেষ্টা করেছি। মনে হয়েছিল, ঠিক জায়গায় বল রাখতে পারলেই সুইং পাব।’’

রবিবার শনাকার বলের লাইনে ব্যাট নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেও উইকেট রক্ষা করতে পারেননি। বল পিচে পড়ার পর আউট সুইং করে। রক্ষণাত্মক শনাকার ব্যাটের নাগাল এড়িয়ে অফ স্টাম্প ভেঙে দেয় বলটি। সিরাজের এই বলটির প্রশংসা করেছেন ক্রিকেট বিশেষজ্ঞরাও। তাঁদের মতে, এমন বল খেলা কঠিন শুধু নয়, প্রায় অসম্ভব।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE