Advertisement
২০ মে ২০২৪
India vs Australia

রোহিতের ‘বিরাট গুরু’ কোহলি, নাগপুরে জেতার পর দরাজ ভারত অধিনায়ক

বর্ডার-গাওস্কর সিরিজ়ের প্রথম টেস্টে প্রশংসিত হয়েছে রোহিতের নেতৃত্ব। ম্যাচের পর খুশি রোহিত এ জন্য কৃতিত্ব দিয়েছেন কোহলিকে। জানিয়েছেন কী ভাবে সতীর্থের কাছ থেকে শিখেছেন নেতৃত্ব।

picture of rohit sharma and virat kohli

রোহিত জানিয়েছেন নেতৃত্বের অনেক কিছুই শিখেছেন কোহলিকে দেখে। ছবি: টুইটার।

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১৯:৫৮
Share: Save:

নাগপুরে অস্ট্রেলিয়াকে প্রথম টেস্টে ইনিংস এবং ১৩২ রানে হারিয়ে খুশি রোহিত শর্মা। ভারত অধিনায়ক বেশি স্বস্তি পয়েছেন দীর্ঘ দিন পর টেস্ট ক্রিকেটে শতরান করতে পেরে। অধিনায়ক হিসাবেও দলের পারফরম্যান্সে তিনি খুশি। নাগপুরে প্রশংসিত হয়েছে তাঁর নেতৃত্ব। সে জন্য রোহিত কৃতিত্ব দিচ্ছেন বিরাট কোহলিকে।

নাগপুর টেস্টে নজর কেড়েছে রোহিতের ফিল্ডিং সাজানো। ভারতীয় দলের অধিনায়ক কৃতিত্ব দিয়েছেন কোহলিকে। রোহিত বলেছেন, ‘‘যখন সাধারণ ক্রিকেটার হিসাবে কোহলির নেতৃত্ব খেলতাম, সে সময় এর সব কিছু দেখতাম। কী করছে, নজর রাখার চেষ্টা করতাম। উইকেট না পেলেও কোহলি হতাশ হত না। প্রতিপক্ষের উপর আরও চাপ তৈরির চেষ্টা করত। যাতে ওরা ভুল করতে বাধ্য হয়। এই বোলাররাই যখন কোহলির নেতৃত্বে খেলত। সে সময় আমি ওকে দেখে শেখার চেষ্টা করেছি।’’

রোহিত জানিয়েছেন, কোহলিকে দেখে শেখা জিনিসগুলিই এখন কাজে লাগছে তাঁর। ভারতীয় দলের অধিনায়ক বলেছেন, ‘‘আমি এখন সেগুলিই করার চেষ্টা করি। উত্তেজিত না হয়ে প্রতিপক্ষের উপর চাপ বজায় রাখার চেষ্টা করি। উইকেট না এলেও শান্ত থাকার চেষ্টা করি। কারণ প্রতি বলে উইকেট পাওয়া যায় না। ধৈর্য রাখার চেষ্টা করি। চাপ তৈরি করার চেষ্টা করি। দ্রুত একাধিক উইকেট পড়লেও দলের সকলকে বোঝাই, এমন বার বার হওয়া সম্ভব নয়। তাই আমাদের আরও কঠোর পরিশ্রম করতে হবে।’’

প্রথম টেস্ট শুরুর আগেই নাগপুরের ২২ গজ নিয়ে বিতর্ক তৈরির চেষ্টা করে অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যম। প্যাট কামিন্সের সলের ব্যাটাররা রান করতে না পারলেও রোহিতরা দেখিয়ে দিয়েছেন, স্পিন সহায়ক উইকেটেও ভাল ইনিংস খেলা সম্ভব। ম্যাচের পর সাংবাদিকরাও উইকেট নিয়ে প্রশ্ন করেছিলেন রোহিতকে। জবাবে তিনি বলেছেন, ‘‘পরিস্থিতি দু’দলের জন্য একই রকম ছিল। আমাদের জন্য বাড়তি কোনও ব্যবস্থা ছিল না। মাঠে নেমে উইকেট থেকে সুবিধা আদায় করে নিতে হয়। এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ। আমাদের বোলাররা এই ধরনের উইকেটে কী করতে হয়। কোথায় বল ফেলতে হয়। তাই ওরা সব সময় প্রতিপক্ষের ব্যাটারদের চাপের মধ্যে রাখতে পেরেছে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE