Advertisement
০২ মার্চ ২০২৪
Ravichandran Ashwin

ভারতীয় দলে কারও সঙ্গে কারও কেন বন্ধুত্ব হয় না, আবার জানালেন ‘সহকর্মী’ অশ্বিন

ভারতীয় দলের কেউ অশ্বিনের বন্ধু নন, সকলেই সহকর্মী। তাঁর সেই বক্তব্যের কারণ জানালেন ভারতীয় স্পিনার। দোষ দিলেন আইপিএলকে।

Ravichandran Ashwin

রবিচন্দ্রন অশ্বিন। —ফাইল চিত্র।

আনন্দবাজার অনলাইন ডেস্ক
শেষ আপডেট: ১৮ অগস্ট ২০২৩ ১৬:৩৯
Share: Save:

কিছু দিন আগে রবিচন্দ্রন অশ্বিন বলেছিলেন যে, ভারতীয় দলের কেউ তাঁর বন্ধু নয়, সকলেই স্রেফ সহকর্মী। তাই নিয়ে সমালোচনা হয়েছিল। এ বার নিজের সেই কথার ব্যাখ্যা দিলেন ভারতীয় দলের অভিজ্ঞ স্পিনার। তিনি মনে করেন না, নেতিবাচক কিছু বলেছিলেন। অশ্বিনের মতে, তাঁর কথার ভুল ব্যাখ্যা করেছিলেন সকলে।

লাল বলের ক্রিকেটে নিয়মিত দলে থাকলেও অশ্বিনকে এখন আর সাদা বলের ক্রিকেটে ভারতের হয়ে খেলতে দেখা যায় না। ৪৮৯টি টেস্ট উইকেটের মালিক বলেন, “আমি যেটা বলেছিলাম আর সকলে যা বুঝেছিল, সেটা সম্পূর্ণ আলাদা। আমি বলতে চেয়েছিলাম যে, আগে এক একটা সিরিজ অনেক বেশি দিন ধরে চলত। তাই বন্ধুত্ব হওয়ার সুযোগ বেশি থাকত। এখন আমরা সব সময় খেলে যাচ্ছি। তিন ধরনের ক্রিকেট খেলছি। কোথাও আবার একে অপরের বিপক্ষে খেলছি। তাই বন্ধু হওয়া খুব কঠিন। মাঠে লড়াই করতে হলে সেই মানসিকতাটাও প্রয়োজন হয়। তাই বন্ধু হওয়া যায় না।”

অশ্বিনের মতে ভারতীয় দলে বন্ধু না হওয়ার অন্যতম কারণ আইপিএল। রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে খেলেন অশ্বিন। ভারতীয় দলের অধিনায়ক রোহিত শর্মা খেলেন মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের হয়ে। বিরাট কোহলি খেলেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের হয়ে। একেক জন একেক দলের হয়ে খেলার কারণে বন্ধুত্ব হয় না বলে মনে করেন অশ্বিন। তিনি বলেন, “আইপিএলে তিন মাসের জন্য ভারতীয় দলের সতীর্থেরা হয়ে যায় প্রতিপক্ষ। এত বেশি অন্য দলের হয়ে খেললে বন্ধু হওয়া কঠিন। তবে একেবারেই যে বন্ধুত্ব হয় না, সেটা বলা ভুল। কিন্তু হওয়াটা কঠিন। এখন তো এটাই স্বাভাবিক নিয়ম হয়ে গিয়েছে। এতে নেতিবাচক কিছু আছে বলে আমি মনে করি না।”

ভারতের হয়ে ৯৪টি টেস্ট, ১১৩টি এক দিনের ম্যাচ এবং ৬৫টি টি-টোয়েন্টি খেলেছেন অশ্বিন। ৭১২টি আন্তর্জাতিক উইকেটের মালিক টেস্টে পাঁচটি শতরানও করেছেন। ১৩ বছর ধরে ভারতীয় ক্রিকেটে খেলছেন অশ্বিন। ২০১০ সালে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে অভিষেক হয়েছিল তাঁর।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE