Advertisement
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Rohit Sharma

নিজের ব্যর্থতা নিয়ে চুপ, চোখের জল মুছে রোহিত হারের জন্য কাঠগড়ায় তুললেন এক সতীর্থকেই

হারের জন্য বিশেষ এক সতীর্থের ঘাড়ে দায় চাপালেন রোহিত। তাঁর মতে, বড় ম্যাচের চাপ সামলাতে না পারার জন্যই হার। রোহিতের সাফাই, চাপ কী করে সামলাতে হয়, কাউকে শেখানো যায় না।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ার পরে ক্ষুব্ধ ভারত অধিনায়ক রোহিত শর্মা।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ার পরে ক্ষুব্ধ ভারত অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ছবি: এএফপি

নিজস্ব প্রতিবেদন
শেষ আপডেট: ১০ নভেম্বর ২০২২ ১৭:৫৫
Share: Save:

সেমিফাইনালেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিতে হবে, ভাবতে পারেননি রোহিত শর্মা। ইংল্যান্ডের কাছে ১০ উইকেটে হেরে হতাশ ভারত অধিনায়ক মেনে নিলেন দলের ব্যর্থতা। দায়ী করলেন বিশেষ এক জনের ব্যর্থতাকে।

খেলা শেষ হওয়ার পরে দেখা যায়, ডাগ আউটে বসে চোখের জল মুছছেন ভারত অধিনায়ক। বেশ কিছু ক্ষণ পরে নিজেকে সামলে নিয়ে ম্যাচের কাটাছেঁড়া করতে বসেন তিনি। রোহিত হারের জন্য দুষলেন মূলত বোলারদের। তার মধ্যে আলাদা করে বেছে নিলেন ভুবনেশ্বর কুমারের প্রথম ওভার। ভারত অধিনায়কের মতে, ওই ওভারটাই ছন্দ নষ্ট করে দেয়। ম্যাচের পরে তিনি বলেন, ‘‘ভুবনেশ্বর কুমারের প্রথম ওভারটা ঠিকঠাক হল না। ঠিক জায়গায় বলই রাখতে পারল না। আমাদের পরিকল্পনা ছিল আঁটোসাটো বল করা। ইংল্যান্ডের ব্যাটারদের মারার জায়গা না দেওয়ার পরিকল্পনা ছিল আমাদের। উইকেটের দু’পাশের এলাকা নিয়ে সতর্ক ছিলাম আমরা। কারণ এই মাঠে উইকেটের দু’পাশে প্রচুর রান ওঠে। এই ম্যাচেও উঠেছে। ভাল বল করার পরেও ব্যাটাররা রান করলে বলার কিছু থাকে না। কিন্তু আমরা তো ভাল বলই করতে পারিনি।’’

ব্যাটিং নিয়ে তেমন অভিযোগ নেই রোহিতের। বলেছেন, ‘‘এই ফলাফল খুবই হতাশার। মনে হয় আমরা ভালই ব্যাট করেছি। বিশেষ করে ইনিংসের শেষ দিকে আমাদের ব্যাটিং ভাল হয়েছে। আসলে আমরা ভাল বল করতে পারিনি। উইকেট এমনও ছিল না, যে মাত্র ১৬ ওভারেই প্রতিপক্ষ লক্ষ্যে পৌঁছে যাবে নেমে। বল হাতে কিছুই করতে পারিনি আমরা।’’ রোহিত ব্যাটিং ভাল হয়েছে বলে দাবি করলেও, সেমিফাইনালে প্রথম ছয় ওভারের পাওয়ার প্লেতে উঠেছে মাত্র ৩৮ রান।

বোলারদের উপর হারের দায় চাপালেও প্রতিযোগিতায় নিজের ছন্দে না থাকা নিয়ে কিছু বলেননি ভারতীয় দলের অধিনায়ক। ছ’টি ম্যাচ খেলে মাত্র ১১৬ রান করেছেন রোহিত। ফাইনালের হতশ্রী পারফরম্যান্স নিয়ে রোহিত ম্যাচের পর বলেছেন, ‘‘নক আউট পর্বে চাপ সামলানোই আসল। এই বিষয়টা সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির উপর নির্ভর করে। চাপ সামলানোর বিষয়টা কাউকে শেখানো যায় না। চাপ নিয়ে খেলা দলের ছেলেদের কাছে নতুন নয়। আইপিএলের প্লে অফ ম্যাচ যখন খেলে তখনও প্রচুর চাপ থাকে। দলের সকলেই চাপ সামলাতে অভ্যস্ত। আসলে সেমিফাইনালে আমাদের বোলিং আক্রমণের শুরুটাই ঠিকঠাক হয়নি। সে সময় আমরা একটু স্নায়ুর চাপে ছিলাম। সেটাই একমাত্র কারণ নয়। ইংল্যান্ডকেও যথেষ্ট কৃতিত্ব দিতে হবে।’’

প্রতিযোগিতায় ভাল ছন্দেই দেখা গিয়েছে ভারতের জোরে বোলারের।

এই মাঠেই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই করেছিল ভারতীয় দল। আর ইংল্যান্ডের কাছে ১০ উইকেটে হার? রোহিত বলেছেন, ‘‘হ্যাঁ, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ম্যাচটাও কঠিন হয়েছিল। সে দিন আমরা চাপ সামলাতে পেরেছিলাম। নিজেদের ভাল ভাবে প্রয়োগ করতে পেরেছিলাম। ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সেটাই হয়নি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE