Advertisement
২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২
gayle

Chris Gayle: ক্রিস গেলের নামে ট্রফি! ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগ ব্রাত্য ‘ইউনিভার্স বস’-এর কাছে

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড নতুন প্রতিযোগিতা শুরু করতে চলেছে। সেই প্রতিযোগিতার নাম রাখা হয়েছে ক্রিস গেলের নামে। উত্তেজিত গেল।

সেই ট্রফি নিজে ক্রিস গেল

সেই ট্রফি নিজে ক্রিস গেল ছবি ইনস্টাগ্রাম

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৮ জুন ২০২২ ১৬:১২
Share: Save:

কিছু দিন আগেই নতুন ধরনের ক্রিকেট প্রতিযোগিতা শুরুর কথা ঘোষণা করে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড। নতুন এই প্রতিযোগিতার নাম দেওয়া হয় ‘দ্য সিক্সটি’। সেই প্রতিযোগিতা এ বার থেকে পরিচিত হতে চলেছে ‘ইউনিভার্স বস ট্রফি’ নামে। ক্রিকেটবিশ্বে ‘ইউনিভার্স বস’ হলেন ক্রিস গেল। তাঁর নামেই চালু হচ্ছে আস্ত একটি প্রতিযোগিতা।

তারকা ব্যাটার ক্রিস গেল ‘দ্য সিক্সটি’ নিয়ে এতটাই উত্তেজিত যে, ক্যারিবিয়ান প্রিমিয়ার লিগে এ বার খেলবেন না ঠিক করেছেন। বলেছেন, “এ বার সবচেয়ে ছোট ফরম্যাটে খেলব। সিক্সটি প্রতিযোগিতায় যে নতুনত্ব আনা হয়েছে সেটা দারুণ লেগেছে। আমি তো প্রথম ১২ বলেই দুটো ছক্কা মারব, যাতে আর একটা পাওয়ার প্লে পাই।” গেলকে ‘দ্য সিক্সটি’র দূত করা হয়েছে। দলগুলিকে স্বাগত জানানোর দায়িত্বেও থাকবেন তিনি। সে প্রসঙ্গে বলেছেন, “ইউনিভার্স বসের নামে ট্রফির নামকরণ। এর থেকে ভাল কিছু হতে পারে নাকি? আমি জানি অনেকে জিজ্ঞাসা করবেন যে সত্যিই এই ট্রফি ক্রিস গেলের নামে হয়েছে কি না। আমি তাঁদের আশ্বস্ত করেই বলছি, হ্যাঁ এটা সত্যি।”

ক্রিকেটারদের নামে স্টেডিয়ামের নামকরণ হওয়ার ভুরি ভুরি উদাহরণ ক্রিকেটবিশ্বে রয়েছে। কিন্তু জীবিত থাকা অবস্থায় কোনও ক্রিকেটারের নামে প্রতিযোগিতা, এ রকম জিনিস আগে দেখা যায়নি। ফলে ‘দ্য সিক্সটি’ নিয়ে উত্তেজনা বাড়তে চলেছে। গেলও ফুটতে শুরু করেছেন।

আরও পড়ুন:

উল্লেখ্য, ক্রিকেটকে আরও আকর্ষণীয় করে তুলতে অভিনব ভাবনা নিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড। দশ ওভারের ক্রিকেট প্রতিযোগিতা শুরু করছে তারা। প্রতিযোগিতার নাম দেওয়া হয়েছে ‘দ্য সিক্সটি’। ১০ ওভারের ক্রিকেট নতুন নয়। দুবাইয়ে আগে থেকেই এই ধরনের প্রতিযোগিতা হয়। ইংল্যান্ডে হয় ১০০ বলের ক্রিকেট। ক্যারিবিয়ান ক্রিকেট কর্তারা অভিনব ভাবনায় ক্রিকেটপ্রেমীদের আগ্রহ বাড়াতে চাইছেন।

নতুন এই প্রতিযোগিতায় থাকছে বেশ কিছু নতুন নিয়ম। যেমন খেলা হবে ছয় উইকেটের। অর্থাৎ, কোনও দলের ছয় উইকেট পড়ে গেলেই ইনিংস শেষ হয়ে যাবে। তৃতীয় পাওয়ার প্লে নির্ভর করবে ব্যাটিং টিমের উপর। প্রথম দু’ওভারের পাওয়ার প্লে-তে অন্তত দু’টি ছক্কা মারতে পারলে তবেই তৃতীয় পাওয়ার প্লে পাওয়া যাবে। দশ ওভারের এই ম্যাচগুলিতে প্রতি ওভারের পর উইকেটের প্রান্ত বদল হবে না। টানা পাঁচ ওভার এক প্রান্ত থেকে বল করার পর পরের পাঁচ ওভার উইকেটের অন্য প্রান্ত থেকে বোলিং করতে হবে। নির্দিষ্ট ৪৫ মিনিটের মধ্যে ১০ ওভার বোলিং সম্পূর্ণ করতে হবে। না পারলে শেষ ওভারে এক জন ফিল্ডারকে মাঠের বাইরে বেরিয়ে যেতে হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.