Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ম্যাচ হারলেন মেজাজ হারালেন ক্রিশ্চিয়ানো

এক সপ্তাহ আগে জুরিখের তারকাখচিত রাতে ‘দ্য বেস্ট’ শিরোপা বসেছিল ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর নামের পাশে। তাঁর মুখে তখন চড়া হাসি। শ্রেষ্ঠত্বের চূড়

নিজস্ব প্রতিবেদন
১৭ জানুয়ারি ২০১৭ ০৩:৩৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
সেভিয়ার বিরুদ্ধে হারের পর রোনাল্ডো। ছবি: রয়টার্স

সেভিয়ার বিরুদ্ধে হারের পর রোনাল্ডো। ছবি: রয়টার্স

Popup Close

এক সপ্তাহ আগে জুরিখের তারকাখচিত রাতে ‘দ্য বেস্ট’ শিরোপা বসেছিল ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর নামের পাশে। তাঁর মুখে তখন চড়া হাসি।

শ্রেষ্ঠত্বের চূড়োয় উঠলে যা হয়।

কিন্তু রবিবার রাতের রোনাল্ডোর ছবিটা ছিল একটু আলাদা। তাঁর মাথা নিচু। হতাশ মুখ। রাগে গজগজ করছেন।

Advertisement

চল্লিশ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড শেষ হলে যা হয়।

বিশ্ব সেরা ট্রফি জিতে তাঁর মাঠে ফেরাটা সুখকর হল না। গোল করলেন ঠিকই। কিন্তু দলকে জেতাতে পারলেন না। বরং সেভিয়ার ঘরের মাঠে অসহায় আত্মসমর্পণ করতে দেখলেন তাঁর সতীর্থদের। মরসুমে প্রথম বার টের পেলেন হার জিনিসটা কী।

কোপা দেল রে হারের বদলা লা লিগায় নিল সেভিয়া। নিজেদের ঘরের মাঠে রিয়ালকে ২-১ হারাল জর্জ সাম্পাওলির দল।

ম্যাচ হারা ছাড়া আবার মেজাজও হারালেন রোনাল্ডো। পেনাল্টি থেকে গোল করার সময় বিপক্ষ ফরোয়ার্ড ভিটোলোর সঙ্গে ঝামেলায় জড়ান সিআর সেভেন। পেনাল্টি পাওয়ার পর রোনাল্ডো যখন স্পটে বল বসাতে যাবেন, ভিটোলা এসে পা দিয়ে জায়গাটা ঘষতে থাকেন। রোনাল্ডোকে বল বসাতে দিচ্ছিলেন না। যা একটু সময় চলার পর মেজাজ ঠিক রাখতে পারেননি সিআর সেভেন। সেভিয়া প্লেয়ারের পিঠে বল ছুড়ে মারেন। ভিটোলোও তখন তেড়ে আসেন। পরিস্থিতি সামলাতে মধ্যস্থতা করতে হয় নাচোকে।

সাম্প্রতিক কালে রিয়াল মাদ্রিদ আর রোনাল্ডোর কম্বিনেশন মানে অবিসংবাদিত দাপট। এই দুইয়ের মিলিত উপস্থিতি মানে হয় জয়, না হলে ট্রফি। রবিবার রাতে সেই রেকর্ড অক্ষুণ্ণ রাখা থেকে মাত্র পাঁচ মিনিট দূরে ছিল রিয়াল। ১-০ এগিয়ে তিন পয়েন্ট পাওয়া ছিল সময়ের অপেক্ষা।

কিন্তু কথায় আছে, ফুটবল মানে শেষ পাঁচ মিনিটও রাজাকে ফকির করে দিতে পারে। যতক্ষণ ফুলটাইমের বাঁশি বাজছে, ততক্ষণ খেলায় প্রাণ আছে।

হল ঠিক সেটাই।

আর কাকতালীয় হল, যে সের্জিও র‌্যামোস কঠিন পরিস্থিতি থেকে রিয়ালকে বাঁচিয়ে অভ্যস্ত, তিনিই হয়ে উঠলেন খলনায়ক। নিজের প্রাক্তন ক্লাবের বিরুদ্ধে স্প্যানিশ ডিফেন্ডারের আত্মঘাতী গোলেই এ দিন সমতা ফেরায় সেভিয়া। ম্যাচের ক্লাইম্যাক্সে সেভিয়াকে ঐতিহাসিক জয় পেতে সাহায্য করেন স্টেফান জোভেটিচ। যাঁর দুর্দান্ত গোলে থামল জিদানের অশ্বমেধের ঘোড়া।

ম্যাচ হারলেও রিয়াল কোচ মানতে নারাজ তাঁর দল খারাপ খেলেছে। বরং ভাগ্যকে দুষছেন ফরাসি কিংবদন্তি। ‘‘আমরা দারুণ খেলেছি। পাঁচ মিনিট দূরে ছিলাম জয় থেকে। বিপক্ষও ভাল খেলেছে। আমাদের উচিত ছিল শেষ পাঁচ মিনিট কিছু করে স্কোরলাইনটা এক রাখা,’’ বলছেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ী কোচ। চল্লিশ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড নিয়ে গর্বিত জিদান যোগ করেন, ‘‘আমি খুব খুশি ফুটবলারদের নিয়ে। গর্বিত চল্লিশ ম্যাচ অপরাজিত ছিল দল। আমি সব সময় বলে এসেছি সেভিয়াও ক্ষমতা রাখে লা লিগা দৌড়ে থাকার। ওরা খুব ভাল দল। কিন্তু এখন আর সেভিয়া ম্যাচ নিয়ে ভাবলে হবে না। আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।’’

জয়ের সৌজন্যে লা লিগা টেবলে বার্সেলোনাকে টপকে দু’নম্বরে উঠে এলো সেভিয়া। এক ম্যাচ বেশি খেলে রিয়ালের থেকে মাত্র এক পয়েন্ট দূরে সাম্পাওলির দল। সাম্পাওলি বলছেন, ‘‘এত বড় একটা দলের বিরুদ্ধে জয় পেয়ে ভাল লাগছে। আমরা মাত্র এক পয়েন্ট দূরে রিয়ালের থেকে। জয়ের আসল কারণ ছিল শেষ পর্যন্ত লড়াই করে যাওয়া। আমরা হার মানতে চাইনি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement