×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২২ জুন ২০২১ ই-পেপার

বিশ্বকাপ যোগ্যতা পর্বের ম্যাচ নিয়ে সংশয়ের মেঘ

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২২ জুলাই ২০২০ ০৫:২২
প্রতীকী ছবি

প্রতীকী ছবি

বিশ্বকাপ যোগ্যতামান পর্বের ম্যাচ আদৌ ভারতে বা কলকাতায় করা সম্ভব হবে কি না, তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। কোভিড-১৯ পরিস্থিতি অনেকটাই উদ্বেগজনক মোড় নিয়েছে। ৮ অক্টোবর ভুবনেশ্বরে বিশ্বকাপ ও এএফসি এশিয়ান কাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বে কাতারের সঙ্গে ম্যাচ ছিল সুনীল ছেত্রীদের। তার জন্য সেপ্টেম্বরে ভুবনেশ্বরে শিবির করার কথা ভাবা হচ্ছিল। কিন্তু এখনকার পরিস্থিতিতে দাঁড়িয়ে সে সবই অনিশ্চিত দেখাচ্ছে।

ভুবনেশ্বরে কাতারের বিরুদ্ধে খেলার পরে বাংলাদেশের সঙ্গে অ্যাওয়ে ম্যাচ ছিল সুনীলদের। তার পরে ১৭ নভেম্বর কলকাতায় ছিল আফগানিস্তান দ্বৈরথ। সেগুলিও হবে কি না ঠিক নেই। কলকাতায় করোনা পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে আসেনি। বরং প্রত্যেক দিনই আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। কবে যে সংক্রমণের হার কমার দিকে যাবে, কেউ জানে না।

২০২২ বিশ্বকাপে ভারতের খেলার কোনও আশা নেই কিন্তু এই যোগ্যতামান পর্বের ম্যাচগুলির উপরে একই সঙ্গে ২০২৩-এর এএফসি এশিয়ান কাপে খেলার সুযোগ পাওয়াও নির্ভর করবে। সেই কারণে এই ম্যাচগুলির ফলাফল সুনীলদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। যত ক্ষণ না তাঁরা অনুশীলনে নামতে পারছেন, ম্যাচ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া কঠিন। ভারত, বাংলাদেশ, আফগানিস্তান কোনও দেশেই এই মুহূর্তে খেলা আয়োজন করার মতো পরিস্থিতি নেই। এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফেও ফুটবল ফেডারেশনের কাছে নির্দিষ্ট করে কোনও বার্তা নেই। শোনা যাচ্ছে, অবস্থার উন্নতি না হলে ফিফা একটি নিরপেক্ষ দেশে সব ম্যাচ করার কথা ভাবতে পারে। মঙ্গলবারেই ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের লিগ কমিটির সভা হল। সংস্থার সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং লিগ কমিটির চেয়ারম্যান সুব্রত দত্ত জানিয়েছেন, করোনা পরিস্থিতিকে খুবই কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে। খেলোয়াড়দের সুস্বাস্থ্যের চিন্তাই সবার আগে। তবে আইএসএল করার চেষ্টা হচ্ছে গোয়া বা কেরলে। তেমনই আই লিগও হতে পারে একটি রাজ্যে এবং কলকাতা হতে পারে সেই রাজ্য। তার জন্য আইএফএ-কে অবশ্য রাজ্য সরকারের লিখিত অনুমোদন জোগাড় করতে হবে। ভিডিয়ো সভায় ছিলেন ফেডারেশনের সাধারণ সচিব কুশল দাস, আই লিগ সিইও সুনন্দ ধর-সহ একাধিক কর্তা।

Advertisement

আই লিগ এবং আইএসএলের ক্লাব লাইসেন্সিং নিয়ে কড়াকড়ি কিছুটা শিথিল করা হতে পারে। করোনাভাইরাস অতিমারি নিয়ে বর্তমান পরিস্থিতি এবং লকডাউনের কারণেই নিয়মকানুন কিছুটা শিথিল করার ভাবনা চলছে। এ ব্যাপারে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের (এএফসি) সঙ্গে কথা বলছে সর্বভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন (এআইএফএফ)। সেপ্টেম্বরে যে ফুটসল লিগ হওয়ার কথা ছিল, তা পিছিয়ে যাচ্ছে। এআইএফএফ চাইছে না, প্রথম বছরে এই প্রতিযোগিতা দর্শকশূন্য স্টেডিয়ামে হোক।

Advertisement