×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১২ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

অদূর ভবিষ্যতেও মহমেডানের সমস্যা মিটছে না

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৪ জানুয়ারি ২০২১ ২২:৪২
ছবি আই লিগ।

ছবি আই লিগ।

জটিলতা মেটানোর জন্য ইনভেস্টর ও ক্লাবের মধ্যে মঙ্গলবার আলোচনা হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সোমবার রাত পর্যন্ত যা খবর, তাতে মঙ্গলবার স্পনসর বাঙ্কারহিল ও মহমেডান কর্তাদের মধ্যে সম্পর্কের বরফ গলার কোনও সম্ভাবনাই নেই। তাই দুই পক্ষের আলোচনা হচ্ছে না। এবং অদূর ভবিষ্যতেও এই সমস্যা মিটবে কিনা, সেই বিষয়ে কেউ গ্যারান্টি দিতে পারবে না।

কিছু সাদা-কালো কর্তার অপেশাদার মনোভাবের জন্য আই লিগের আগে সরে যাচ্ছে ইনভেস্টর বাঙ্কারহিল। কিন্তু দুই পক্ষের মধ্যে রফাসুত্র এখনও বেরোয়নি। কেন জটিলতা আরও বাড়ল? বাঙ্কারহিল-এর অন্যতম কর্তা দীপক কুমার সিংহ বলছেন, ‘‘আমরা ভেবেছিলাম এত কিছুর পর মহমেডান কর্তাদের শুভ বুদ্ধির উদয় ঘটবে। কিন্তু কোথায় কী! কিছু কর্তা আমাদের নিয়ে অপপ্রচার করছেন। ওঁরা ক্লাবের ভাল চান না। পাশাপাশি আমাদের ভাবমূর্তি নষ্ট করার চক্রান্ত করছেন।’’

এরপরেই তিনি যোগ করলেন, ‘‘বলা হচ্ছে আমরা নাকি ক্লাবের লোগো এবং জার্সি বদলে দেব। মহমেডানের লোগো ও সাদা-কালো জার্সির একটা ঐতিহ্য আছে। এমন শতাব্দী প্রাচীন ক্লাবের সেই ঐতিহ্য নষ্ট করার মত বোকামি আমি করব না। চুক্তি অনুসারে যে টাকা দেওয়ার কথা ছিল তার থেকে ওরা বেশি টাকা দাবি করছে। এগুলো মেনে নেওয়া সম্ভব নয়। তবে ওরা যদি বুধবারের মধ্যে নতুনভাবে কাগজপত্র তৈরি করে আমাদের পাঠায়, আমরাও সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেব।"

Advertisement

আরও পড়ুন: রফিকের নতুন ডাকনাম ‘রাফা’, দিয়েছেন কোচ ফাওলার

ফলে সবমিলিয়ে এই মুহুর্তে আরও চাপে ক্লাব সচিব ওয়াসিম আক্রম। যাবতীয় পরিস্থিতির জন্য তাঁকে কাঠগড়ায় দাঁড় করানো হলেও সাদা-কালো সচিব কিন্তু ক্লাবের কমিটি মেম্বারদের দিকেই ফের আঙ্গুল তুললেন। বলে দিলেন, ‘‘ক্লাবের উন্নতির জন্য ইনভেস্টর নিয়ে এলাম। আর এখন কিছু কর্তা অপেশাদার মনোভাব দেখিয়ে হাতের লক্ষী পায়ে ঠেলছেন। এটা মোটেও শুভ লক্ষণ নয়।’’

আরও পড়ুন: আই লিগের আগে পাঁচতারা হোটেলে মেডিক্যাল হাব

Advertisement